মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা সেনাদের ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে-বিজিবি মহাপরিচালক

রিপোর্টার
  • আপডেট সময় শনিবার, ২৩ মার্চ, ২০২৪
  • ১৩৯ দেখা হয়েছে

খাগড়াছড়ি:- বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ, বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আশরাফুজ্জামান সিদ্দিকী বলেছেন, বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের সেনাদের দ্রুত তাদের দেশে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

তিনি বলেন, বর্তমানে মিয়ানমারের ১৭৭ জন সৈন্য রয়েছে। তাদেরকে পূর্বের মত নিজ দেশে প্রত্যাবর্তন করা হবে।

শুক্রবার (২২ মার্চ) বিকালে খাগড়াছড়ির রামগড় স্থলবন্দরে বিজিবি আইসিপি ভবন, মৈত্রী সেতু ও বিজিবি জন্মস্মৃতি স্তম্ভ পরিদর্শন শেষে তিনি সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এ কথা বলেন।

বিজিবি মহাপরিচালক আরও বলেন, রামগড়-সাব্রুম স্থলবন্দর চালু হলে দুই দেশের অর্থনৈতিক অবস্থার আমূল পরিবর্তন হবে। বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরও সম্প্রসারণ হবে। দুই দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির নতুন দ্বার খুলবে।

তিনি বলেন, রামগড়-সাব্রুম স্থলবন্দর ঘিরে জাপানসহ বিভিন্ন দেশ বিনিয়োগ করছে। এটি চালু হলে প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনায় দেশের অর্থনীতির চাকা যেভাবে সচল হয়েছে, সেটি আরও জোরদার হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, পার্বত্য এলাকা বিবেচনায় রামগড় স্থলবন্দরে বিজিবি আইসিপি ঘিরে এখানে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে। প্রয়োজনে আরও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ভারতীয় অংশেও অনুরূপ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

রামগড়ে সফরে এসে নিজেকে অত্যন্ত সৌভাগ্যবান বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ২২৮ বছর পূর্বে ১৭৯৫ সালে ‘রামগড় লোকাল ব্যাটালিয়ন’ নামে রামগড়েই গোড়াপত্তন হয় বিজিবির।

বিজিবির স্মৃতিস্তম্ভের বেদিতে ব্রিফিংকালে তিনি, বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তাঁর পরিবারের শহিদ সদস্য, মহান মুক্তিযুদ্ধে সকল শহিদ, বিজিবির দুই শহিদ বীর শ্রেষ্ঠসহ ৮১৭ জন শহিদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান। ব্রিফিং শেষে স্থানীয় দুই শতাধিক অসহায় ও দুস্থ মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন।

এসময় তিনি সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, বিজিবি সীমান্ত প্রহরীর দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি আর্তমানবতার কাজেও নিয়োজিত। বিজিবির এ মানবিক কার্যক্রম ভবিষ্যৎ ও অব্যাহত থাকবে।

মহাপরিচালকের রামগড় সফরকালে অন্যান্যের মধ্যে বিজিবির অতিরিক্ত মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জাহাঙ্গীর আলম, বিজিবির দক্ষিণ-পূর্ব রিজিয়নের (চট্টগ্রাম) কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাজেদুর রহমান, বিএসবি প্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আনোয়ার হোসেন, গুইমারা সেক্টর কমান্ডার কর্নেল এস এম আবুল এহসান, ডিজিএফআই’র খাগড়াছড়ির ডেট কমান্ডার কর্নেল আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ আরিফ, রামগড় ৪৩ বিজিবির পরিচালক লে. কর্নেল সৈয়দ ইমাম হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো
© All rights reserved © 2023 Chtnews24.net
Website Design By Kidarkar It solutions