শিরোনাম
হেলমেটের মান নির্ধারণ হবে কবে? উপজেলা নির্বাচনে মন্ত্রী-এমপিদের আত্মীয়দের সরে দাঁড়ানোর নির্দেশ আ.লীগের, আছে শাস্তির বার্তাও রাঙ্গামাটির চন্দ্রঘোনায় পরোয়ানাভুক্ত ৭ আসামি গ্রেফতার খাগড়াছড়ির পানছড়িতে চেংগী নদীতে ডুবে শিশুর মৃত্যু রাঙ্গামাটিতে বজ্রপাতে আরও এক নারীর মৃত্যু মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে ভয়-উৎকণ্ঠায় দিন কাটছে মিয়ানমার সীমান্তবাসীর বিশ্বের প্রভাবশালী ১০০ ব্যক্তির তালিকায় স্থান, কে এই বাংলাদেশি নারী? বান্দরবানের রুমা-থানচিতে ব্যাংকে হামলা: ১৮ নারীসহ ৫৩ জনের রিমান্ড মঞ্জুর

সাবেক ভূমিমন্ত্রীর বিদেশে সম্পদ নিয়ে টিআইবির তদন্ত দাবি

রিপোর্টার
  • আপডেট সময় সোমবার, ৪ মার্চ, ২০২৪
  • ৮১ দেখা হয়েছে

ডেস্ক রির্পোট:- সরকারের সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর প্রতি সাবেক ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরীর বিদেশে সম্পদ অর্জনের প্রক্রিয়া ও পরিমাণ যথাযথভাবে তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

রবিবার (৩ মার্চ) সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে গণমাধ্যমকে জানিয়েছে সংস্থাটি।

এর আগে শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে ভূমিমন্ত্রী লন্ডনে ব্যবসা ও সম্পদ থাকার কথা স্বীকার করেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে টিআইবি বলেছে, গত বছরের ২৬ ডিসেম্বর দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী প্রার্থীদের হলফনামা বিশ্লেষণ ও সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে টিআইবি জানিয়েছিল, সরকারের মন্ত্রিসভার একজন সদস্যের নিজ নামে বিদেশে একাধিক কোম্পানি থাকার প্রমাণ রয়েছে, যার প্রতিফলন হলফনামায় নেই। এই মন্ত্রী যে তৎকালীন ভূমিমন্ত্রী, তা পরবর্তীকালে বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমের খবরে স্পষ্ট হয়।

নির্বাচনি হলফনামায় বিদেশে সম্পদ থাকার কথা গোপন করার বিষয়ে তৎকালীন ভূমিমন্ত্রী বলেন, হলফনামা পুরোপুরি বাংলাদেশের আয়কর রিটার্নের ওপর ভিত্তি করে দেওয়া হয়। এতে বিদেশে সম্পদের তথ্য দেওয়ার আলাদা কোনো ছক নেই। বাড়তি তথ্য কেন দিতে যাবেন? বিদেশের সম্পদ করার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ থেকে কোনো টাকা নেননি বলেও দাবি করেন।

ভূমিমন্ত্রীর ওই ব্যাখ্যাকে অযৌক্তিক ও অগ্রহণযোগ্য আখ্যায়িত করেছেন টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান। তিনি বলেন, ‘প্রথমত সাবেক ভূমিমন্ত্রী হলফনামায় তথ্য গোপন করেছেন। আর নির্বাচনি হলফনামায় মিথ্যা বা অপর্যাপ্ত তথ্য প্রকাশ করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। হলফনামায় একজন প্রার্থীর সব সম্পদের বিবরণ প্রদানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে, তা দেশে বা বিদেশে যেখানেই থাকুক না কেন। বিদেশে সম্পদের জন্য আলাদা কলাম নেই বলে খোঁড়া যুক্তি দিয়ে তিনি নিজেকে বাঁচানোর চেষ্টা করছেন। আয়কর বিবরণীতে না থাকায় হলফনামায়ও বিদেশে সম্পদের কথা উল্লেখ করেননি বলে যে দাবি করেছেন, যা নিতান্তই অবান্তর।’

বিদেশে সম্পদের তথ্য গোপন করার ঘটনায় একটি নয়, সাবেক ভূমিমন্ত্রী বেশ কয়েকটি আইন ভেঙেছেন বলে মনে করেন ইফতেখারুজ্জামান। তিনি বলেন, ‘সংবিধানের ১৪৭(৩) ধারা অনুযায়ী, দেশের মন্ত্রীসহ আট ধরনের সাংবিধানিক পদাধিকারী কোনো লাভজনক পদ কিংবা বেতন-ভাতাদিযুক্ত পদ বা মর্যাদায় বহাল হবেন না কিংবা মুনাফা লাভের উদ্দেশ্যযুক্ত কোনো কোম্পানি, সমিতি বা প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা বা পরিচালনায় কোনোরূপ অংশগ্রহণ করবেন না। অর্থাৎ সাবেক ভূমিমন্ত্রী শপথ নিয়ে সাংবিধানিক এ বিধানকেও লঙ্ঘন করেছেন, যা কোনোভাবেই মেনে নেওয়ার সুযোগ নেই।’

সাবেক ভূমিমন্ত্রী দেশ থেকে টাকা নিয়ে বিদেশে সম্পদ গড়েননি দাবি করে যে বক্তব্য দিয়েছেন এবং তা তদন্তে যে কমিটি করার প্রস্তাব করেছেন, তা একেবারেই অবান্তর বলে দাবি করেন টিআইবির নির্বাহী পরিচালক। অর্থ পাচারসহ সাংবিধানিক ও আইনি বিধানের লঙ্ঘন কোনো তদন্ত কমিটির বিষয় নয়, বরং যথাযথ আইনি প্রক্রিয়ায় দুদক, এনবিআর, বিএফআইইউ, সিআইডিসহ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ জবাবদিহি নিশ্চিত করবে বলে উল্লেখ করেছে টিআইবি।

পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো
© All rights reserved © 2023 Chtnews24.net
Website Design By Kidarkar It solutions