শিরোনাম
কাল থেকে নিয়মিত বিচারিক কার্যক্রমে ফিরছে সুপ্রিম কোর্ট : তীব্র গরমে আইনজীবীদের গাউন পরতে হবে না দেশের সর্বোচ্চ ৪২.৬ ডিগ্রি তাপমাত্রা যশোরে, গলে যাচ্ছে সড়কের পিচ রাঙ্গামাটির কাপ্তাই হ্রদের পানি হ্রাস পাওয়ায় দুর্ভোগে লাখো মানুষ, বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যাহত পার্বত্য শান্তি চুক্তির মোট ৭২টি ধারা,বাস্তবায়িত হয়েছে ৬৫ ধারা – জাতিসংঘে বাংলাদেশ রিজার্ভ কমে দুই হাজার কোটি ডলারের নিচে ইসরায়েলকে ‘সর্বোচ্চ পর্যায়ের’ জবাব দেওয়ার হুঁশিয়ারি ইরানের পৃথিবীটা বড় নিষ্ঠুর, বলছেন ট্রলের শিকার হওয়া কানসেলো সাবমেরিন ক্যাবল বন্ধ, ইন্টারনেট স্বাভাবিক হবে কবে বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা নিয়ে হঠাৎ সরব আওয়ামী লীগ ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিল আরেক দেশ

২০২৩ সালে কক্সবাজারের যত আলোচিত ঘটনা

রিপোর্টার
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ৭০ দেখা হয়েছে

ডেস্ক রির্পোট:- পর্যটন নগরী কক্সবাজারের উন্নয়নের পাশাপাশি সমুদ্র, মাদক, সীমান্ত ও রাজনীতির মেরুকরণ, নানা ঘটনা ও সফলতা-ব্যর্থতার মধ্যে দিয়ে ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ শেষ হয়ে উদিত হলো ইংরেজি নববর্ষ ২০২৪ এর নতুন দিনের সূর্য। নতুন বছরে সকলের প্রত্যাশা চলমান প্রকল্প সম্পন্নসহ একটি নিরাপদ ও আধুনিক পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে উঠবে কক্সবাজার। চলুন জেনে নিই গত বছরের উল্লেখযোগ্য ঘটনার কয়েকটি:

টেকনাফে অপহরণের ২৫ দিন পর পাহাড়ে মিলল ৩ বন্ধুর লাশ

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় পাত্রী দেখতে এসে অপহরণের শিকার তিন বন্ধুর মরদেহ ২৫ দিন পর পাহাড়ি এলাকা থেকে উদ্ধার করেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। বুধবার (২৪ মে) দুপুরে উপজেলার দমদমিয়া পাহাড়ি এলাকা থেকে মরদেহগুলো উদ্ধার করা হয় বলে জানান টেকনাফ থানার ওসি মো. আবদুল হালিম। নিহতরা হলেন- কক্সবাজারের ঈদগাঁও জালালাবাদ সওদাগর পাড়া এলাকার মোহাম্মদ ইউছুপ, চৌফলদÐী ইউনিয়নের রুবেল এবং কক্সবাজার শহরের নুনিয়াছড়া এলাকার ইমরান। পরিবারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, তিন বন্ধু ২৮ এপ্রিল টেকনাফে পাত্রী দেখতে আসেন। পরে তারা সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে ফিরে যাচ্ছিলেন। অটোরিকশা থামিয়ে পথ থেকে তাদের অপহরণ করে গহীন জঙ্গলে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা।

মিয়ানমারে মানুষ বন্ধক রেখে ইয়াবা বাণিজ্য

মিয়ানমারের ডিলারের কাছে ‘মানুষ বন্ধক’ রেখে বাংলাদেশে ইয়াবা আনা এক মাদক কারবারিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এ সময় তার এক সহযোগীকেও ৪০ হাজার ইয়াবাসহ আটক করা হয়। তারা হলেন- টেকনাফ সদর ইউনিয়নের হাজমপাড়া এলাকার মৃত সালেহ আহমদের ছেলে জাকির আহমেদ জকির (৩৯) ও তার সহযোগী মো. ইসমাইল (৩৫) একই এলাকার নুরুল বসরের ছেলে। মঙ্গলবার (১৬ মে) মধ্যরাতে কক্সবাজার ঈদগাঁও উপজেলার ঈদগাঁও ইউনিয়নের আলমাছিয়া ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসার মসজিদের সামনের রাস্তা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেন র‌্যাব-১৫’র সিনিয়র সহকারী পরিচালক (গণমাধ্যম) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আবু সালাম চৌধুরী।

ট্রলারে ভেসে এলো ১০ মরদেহ

জলদস্যু সন্দেহে ১০ জনকে বরফ ভাঙার মুগুর, বাঁশ ও লাঠি দিয়ে প্রথমে পেটানো হয়। ঘটনা ধামাচাপা দিতে ১০ জনকেই কোল্ড স্টোরেজে আটকে রেখে সাগরে বোট ডুবিয়ে দেয়া হয়। আর এ মিশনে অংশ নিয়েছিল ৪টি ট্রলারের অন্তত ৫০ মাঝি-মাল্লা। অবশ্য তার আগে সাগরে ট্রলার লক্ষ্য করে ৩ ঘণ্টা গুলিবর্ষণও হয়েছিল। এ ঘটনার প্রেক্ষিতে হওয়া মামলায় গ্রেফতার ৩ আসামির জবানবন্দির পাশাপাশি স্বজনদের মাধ্যমে বের হয়ে এসেছে এসব চাঞ্চল্যকর তথ্য। ট্রলারে ১০ জনের মরদেহ উদ্ধার মামলায় আসামি ‘বাইট্টা কামাল’ ও করিম সিকদারকে ৫ দিনের রিমান্ড শেষে আদালতে নেয়া হয়।

তদন্ত সূত্র জানায়, যে আটজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তারা হলেন- কামাল হোসেন ওরফে বাইট্টা কামাল, করিম শিকদার, গিয়াস উদ্দিন, ফজল মাঝি, আবু তৈয়ব, দেলোয়ার হোসেন, খায়ের হোসেন ও ইমাম হোসেন। ডাকাতদের সাগরে হত্যা করা হয় ৯ এপ্রিল। পরে ২৩ এপ্রিল ট্রলারটি ১০ জনের মরদেহ নিয়ে ভেসে আসে উপক‚লে। নিহতরা কক্সবাজারের মহেশখালী ও চকরিয়ার বাসিন্দা।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পুড়ল ২ হাজার বসতি

কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালীর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় প্রায় দুই হাজার ঘর ভস্মীভ‚ত হয়েছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে বেগ পেতে হয়েছে চারটি দমকল বাহিনীর ৯টি ইউনিটকে। রোববার (৫ মার্চ) বিকেল সোয়া ৩টার দিকে ক্যাম্পের ডি-১৫ বøকের একটি ঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত।

কক্সবাজার শরণার্থী ত্রাণ ও পুনর্বাসন কমিশনার (আরআরআরসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত সময় লেগেছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসতে। ঘটনা তদন্তে জেলা প্রশাসনের পক্ষে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) আবু সুফিয়ানকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

পেকুয়ায় শেখ হাসিনা সাবমেরিন ঘাঁটির যাত্রা

দেশের নৌবাহিনীতে যুক্ত হয়েছে দুইটি শক্তিশালী সাবমেরিন। আর এনিয়ে কক্সবাজারের পেকুয়াতে উদ্বোধন হলো দেশের প্রথম পূর্ণাঙ্গ সাবমেরিন ঘাঁটি বানৌজা শেখ হাসিনা।

সোমবার (২০ মার্চ) দুপুরে গণভবন থেকে কক্সবাজারের পেকুয়াতে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় পেকুয়ার সাবমেরিন ঘাঁটি থেকে যুক্ত ছিলেন নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ শাহীন ইকবাল। ২০১৭ সালের ১২ মার্চ চীন থেকে আনা বানৌজা ‘নবযাত্রা’ ও ‘জয়যাত্রা’ নামের সাবমেরিন দুটির কমিশনিং করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সে সময় সাবমেরিনের এই ঘাঁটি নির্মাণের ঘোষণা দেন সরকার প্রধান।

পিকআপ চাপায় ৬ ভাইয়ের মৃত্যু

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারায় সড়কে পিকআপ ভ্যানের চাপায় ছয় ভাইয়ের মৃত্যুর ঘটনায় চালক সাইদুল ইসলাম সিফাতকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। রোববার (১১ জুন) দুপুরে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. ইসমাঈল এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় আসামি সাইদুল ইসলাম আদালতে উপস্থিত ছিলেন। ওই ঘটনায় নিহতরা হলেন- অনুপম সুশীল (৪৬), নিরুপম সুশীল (৪০), দীপক সুশীল (৩৫), চম্পক সুশীল (৩০) ও স্মরণ সুশীল (২৯) নিহত হন, রক্তিম সুশীল (৩২)। তারা সবাই আপন ভাই।

যৌন নির্যাতনের প্রতিশোধ নিতে আ’লীগ নেতা সাইফুদ্দিনকে খুন

যৌন নির্যাতনের প্রতিশোধ নিতেই কক্সবাজারের আ’লীগ নেতা সাইফুদ্দিনকে (৪৫) ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। এ হত্যাকাÐের ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত হাফেজ আশরাফুল ইসলামকে (১৮) সোমবার (২১ আগস্ট) রাত সাড়ে ১২টায় টেকনাফের হোয়াইক্যং থেকে গ্রেফতারের পর পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে সে হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে এ তথ্য জানায়। কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মাহফুজুল ইসলাম বলেন, প্রতিশোধপরায়ণ হয়েই তরুণটি এই হত্যাকাণ্ডটি সংঘটিত করেছে। নিহত সাইফুদ্দিন (৪৫) শহরের ঘোনারপাড়া ৯নং ওয়ার্ডের অবসরপ্রাপ্ত আনসার কমান্ডার আবুল বশরের ছেলে ও কক্সবাজার পৌর আ’লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন।

চকরিয়ায় সাঈদীর গায়েবানা জানাজা নিয়ে সংঘর্ষ, নিহত ১

মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর গায়েবানা জানাজাকে কেন্দ্র করে কক্সবাজারের চকরিয়া ও পেকুয়ায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে একজন নিহত হন। মঙ্গলবার (১৫ আগস্ট) বিকেল ৪টার দিকে চকরিয়া পৌর শহরের চিরিঙ্গা এবং পেকুয়ার বারবাকিয়া বাজারে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা জানান, নিহত ব্যক্তি জামায়াত কর্মী ফোরকানুল ইসলাম (৬৫)। তিনি চকরিয়া পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত আবুল ফজলের ছেলে। নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেন চকরিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শোভন দত্ত। তিনি বলেন, ‘একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। পরীক্ষা করে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়েছে।’

বন্যায় ৬০ হাজার কৃষকের ক্ষতি ১১১ কোটি টাকা

উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল থেকে সৃষ্ট বন্যায় কক্সবাজারের কৃষকদের ১১১ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বন্যার পানিতে রোপা আমন, গ্রীষ্মকালীন সবজিসহ অন্যান্য ফসল নষ্ট হয়ে কপাল পুড়েছে ৬০ হাজার কৃষকের। বন্যা-পরবর্তী সময়ে ২ হাজার কৃষকের জন্য ১০ মেট্রিক টন বি-আর ২৩ বীজ ধান বরাদ্দ দিয়েছে সরকার। ফলে ফসলের ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১১১ কোটি ২৬ লাখ টাকা।

মোট ফসলী জমির ক্ষতির হার শতকরা ১৮ দশমিক ২১ শতাংশ এবং মোট ক্ষতিগ্রস্ত জমির পরিমাণ ৫৪ হাজার ৪৪ দশমিক ৬ হেক্টর। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে জেলা কৃষি স¤প্রসারণ অধিদফতর। আগস্ট মাসের শুরুতে টানা প্রায় এক সপ্তাহের ভারি বর্ষণে সৃষ্ট বন্যায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয় কক্সবাজারজুড়ে।

হামুনের তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড কক্সবাজার, ৩ জনের মৃত্যু

ঘূর্ণিঝড় হামুনের আঘাতে অচল হয়ে পড়ে কক্সবাজার। ছিল না বিদ্যুৎ, মোবাইল নেটওয়ার্ক। একই সঙ্গে সড়ক-উপসড়কে গাছ পড়ে বন্ধ ছিল যানবাহন চলাচল। দেয়াল ও গাছ চাপায় প্রাণ গেছে তিন জনের। আহত হয়েছেন কমপক্ষে শতাধিক মানুষ। জেলার ৯টি উপজেলার ৭০টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৮০ হাজার মানুষ, বিধ্বস্ত হয় ৩৮ হাজার ঘর। মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) রাত ৭টার পরই ঘূর্ণিঝড় হামুন আঘাত হানে। মারা যাওয়া ব্যক্তিরা হলেন- কক্সবাজার শহরের পাহাড়তলী এলাকার আবদুল খালেক (৪০), মহেশখালী এলাকার হারাধন দে (৪৫) ও চকরিয়া বদরখালী এলাকার আসকর আলী (৪৭)।

রেললাইনে ঢাকার সাথে যুক্ত হলো কক্সবাজার

বহুল প্রতীক্ষিত ১০২ কিলোমিটার দীর্ঘ দোহাজারি-কক্সবাজার রেললাইন ও কক্সবাজার আইকনিক রেলস্টেশন উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার (১১ নভেম্বর) দুপুরে তিনি রেলপথ ও স্টেশন উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নতুন এই রেল যোগাযোগ পর্যটন, শিল্পায়ন, ব্যবসা ও বাণিজ্য বাড়ানোর সাথে সাথে দেশের অর্থনীতিকে শক্তিশালী ভিতের ওপর দাঁড় করানোর নতুন আশার সঞ্চার করেছে।

কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতের কাছে ঝিলংজা ইউনিয়নের চান্দের পাড়ায় ঝিনুক আকৃতির দৃষ্টিনন্দন ছয়তলাবিশিষ্ট আইকনিক রেলস্টেশন নির্মিত হয়েছে।’ ২৯ একর জমির ওপর গড়ে ওঠা এই আইকনিক রেলস্টেশন ভবনটি ১ লাখ ৮৭ হাজার ৩৭ বর্গফুটের। রেলস্টেশনটিতে রয়েছে তারকা মানের হোটেল, শপিংমল, রেস্তোরাঁ, শিশুযতœ কেন্দ্র, লাগেজ রাখার লকারসহ অত্যাধুনিক সুবিধা।

আপিলেও টিকলোনা নৌকার প্রার্থী সালাহ উদ্দিন

ঋণখেলাপির অভিযোগে প্রার্থিতা বাতিলের বিরুদ্ধে কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সালাহ উদ্দিন আহমদের রিট খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। বুধবার (২০ ডিসেম্বর) হাইকোর্টের বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমান ও বিচারপতি মো. বশির উল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী ওয়াজি উল্লাহ। জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ৪৭ কোটি টাকার ঋণখেলাপি হওয়ায় সালাহ উদ্দিন আহমদের মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। জনতা ব্যাংক থেকে ‘ফিস প্রিজারভারস’ নামে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের বিপরীতে সালাহ উদ্দিন আহমদসহ অন্য পরিচালকরা প্রায় অর্ধশত কোটি টাকা ঋণ নিয়েছিলেন। যা পরবর্তী সময়ে খেলাপি হয়। সালাহ উদ্দিন আহমদ বলেন, আমি কিছু ঋণের জামিনদার ছিলাম। যা পরে খেলাপি ছিল। কিন্তু আদালতের মাধ্যমে আমি জামিনদার থেকে অব্যাহতি পেয়েছি। সব কাগজপত্র সঙ্গে দেওয়া আছে। তারপরও রিটার্নিং কর্মকর্তা মনোনয়ন বাতিল করলেন।

সাংসদ জাফরকে আ’লীগ থেকে অব্যাহতি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে ‘অসৌজন্যমূলক বক্তব্য’ দেওয়ার অভিযোগে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলা আ’লীগের সভাপতি সংসদ সদস্য জাফর আলমকে পদ থেকে সাময়িক অব্যাহতি দিয়েছে জেলা আওয়ামী লীগ। বুধবার (২০ ডিসেম্বর) জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয় ‘পেকুয়ার একটি নির্বাচনী সভায় চকরিয়া উপজেলা আ’লীগের সভাপতি জাফর আলম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে অসৌজন্যমূলক বক্তব্য দিয়ে ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন। দলের পদে থেকে তিনি এমন বক্তব্য দিতে পারেন না। এ জন্য তাঁকে পদ থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। জানা যায়, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে সংসদ সদস্য জাফর আলম স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। তাঁর প্রতীক ট্রাক।

পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো
© All rights reserved © 2023 Chtnews24.net
Website Design By Kidarkar It solutions