শিরোনাম
পাহাড়ে ৬ মাসে ১১ খুন বান্দরবানে কেএনএফের আস্তানায় যৌথ বাহিনীর অভিযান, নিহত ৩ রাঙ্গামাটির লংগদুতে সন্ত্রাসীদের হামলায় নিহত ২ মরদেহ রাঙ্গামাটি সদর হাসপাতালে স্কুলে ভর্তির টাকা সরকারি কোষাগারে জমা দেয়ার নির্দেশনা,ব্যাপক প্রতিক্রিয়া বিকল্প চিন্তা শেখ হাসিনার প্রতি নরেন্দ্র মোদির অবিরাম সমর্থনে বাংলাদেশ ক্ষুব্ধ অর্থনীতিকে ধারণ করার সক্ষমতা হারাচ্ছে ব্যাংকিং খাত : ফাহমিদা খাতুন ২৬ কোম্পানির বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা রাঙ্গামাটিতে ইউপিডিএফ সদস্যসহ ২ জনকে হত্যার প্রতিবাদে ২০ মে জেলায় অর্ধদিবস সড়ক ও নৌপথ অবরোধের ডাক রাঙ্গামাটির লংগদুতে সন্তু গ্রুপ কর্তৃক ইউপিডিএফ সদস্যসহ ২ জনকে গুলি করে হত্যার নিন্দা ও প্রতিবাদ রাঙ্গামাটিতে ব্রাশ ফায়ারে ইউপিডিএফের সদস্যসহ দুইজন নিহত

খাগড়াছড়ির রামগড় চা বাগান খরায় পুড়ছে , বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত শ্রমিকরা

রিপোর্টার
  • আপডেট সময় বুধবার, ১ মে, ২০২৪
  • ২৯ দেখা হয়েছে

খাগড়াছড়ি:- খাগড়াছড়ি রামগড় উপজেলা সদরের উপকণ্ঠে অবস্থিত রামগড় চা বাগানে প্রচণ্ড খরা ও পোকার আক্রমণে উৎপাদন কমে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা। প্রচণ্ড দাবদাহের কারণে গুণগতমান বজায় রেখে চা উৎপাদনও অনেকটা দুরূহ হয়ে পড়বে।

অন্যদিকে অতি গরমে চা শ্রমিকরা অসুস্থ হয়ে পড়ছেন বলে জানা গেছে। কৃত্রিমভাবে পানি ছিটিয়ে গাছ বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা করা হলেও প্রয়োজনের তুলনায় তা খুবই অপ্রতুল।
আবার খরচও বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রাকৃতিকভাবে বৃষ্টিপাতের যে উপকার, কৃত্রিম ব্যবস্থায় তা পূরণ হওয়ার নয়।

বাগানের বিভিন্ন সেকশনে গিয়ে দেখা গেছে, কচি পাতা শুকিয়ে লাল হয়ে গেছে। পাতায় পোকার আক্রমণও দেখা গেছে।
পানির অভাবে নতুন পাতা গজাতে বিলম্ব হচ্ছে। কোনো কোনো জায়গায় পাতা শুকিয়ে একেবারে জ্বলে গেছে।

চা শ্রমিক নেতা মদন রাজগর বলেন, দীর্ঘদিন বৃষ্টি না হওয়ায় বাগানের বড় ধরনের ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। চা উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছনো কঠিন হবে।
এই সময়টায় চা গাছের জন্য প্রচুর বৃষ্টিপাত প্রয়োজন । অথচ বৃষ্টি নেই। কৃত্রিম উপায়ে পানির চাহিদা মেটানো সম্ভব নয়।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য সুমন বলেন, রৌদ্রের তাপে চা গাছ ঝলসে লাল হয়ে মরে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। শ্রমিকরা গরমজনিত নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন।
বাগানের বিভিন্ন সেকশনে পাতা শুকিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি পোকার আক্রমণ হওয়ায় চা উৎপাদন ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাগানের একজন স্টাফ জানান, অতি খরার কারণে এবার সাড়ে আট লাখ কেজি চা উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছনো সম্ভব হবে না।

বিশিষ্ট টি প্লান্টার জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী (রামগড় চা বাগানের সাবেক ব্যবস্থাপক) বলেন, খরার কারণে উৎপাদন কমবে, গুণগত মান ঠিক থাকবে না। পোকার আক্রমণ বাড়বে। রেড স্পাইডারসহ (মাকড়সা) নানা কীটপতঙ্গের উপদ্রবে বাগান ভীষণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। শ্রমিকরা পেটের পীড়া, ডায়রিয়া, মাথা ঘোরাসহ বমির উপসর্গে ভুগছে। কৃত্রিমভাবে পানি দিয়ে প্রাকৃতিক পানির চাহিদা মেটানো কোনোভাবেই সম্ভব নয়।

পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো
© All rights reserved © 2023 Chtnews24.net
Website Design By Kidarkar It solutions