মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ০৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ০৩:০৭:২৭

সবুজ পাহাড় সেজেছে শ্বেতশুভ্র মেঘমালায়,অতিথি বরণে মুখিয়ে আছে পাহাড়ি বিনোদন কেন্দ্রগুলো

সবুজ পাহাড় সেজেছে শ্বেতশুভ্র মেঘমালায়,অতিথি বরণে মুখিয়ে আছে পাহাড়ি বিনোদন কেন্দ্রগুলো

রাঙ্গামাটি:- এই শরতে সুবজ পাহাড় যেন সেজেছে শ্বেত শুভ্র মেঘমালায়। পাহাড়ের ভাঁজে ভাঁজে রোদ মেঘ আর বৃষ্টির খেলা। করোনার কারণে মানুষের চলাচল সীমিত হওয়ায় প্রকৃতি ফিরেছে যেন নব সৌন্দর্যে। হাতছানি দিচ্ছে সবুজ পাহাড়, আর পাহাড়ি ঝর্ণাগুলো। অরণ্য, পাহাড়, ঝর্ণা আর হ্রদ এখন পুরোদমে প্রস্তুত পর্যটকদের বরণে। সাড়া মিলছে প্রকৃতিপ্রেমী আর ভ্রমণপিপাসু মানুষের। মহামারীর কারণে সাড়ে চার মাসেরও বেশি সময় বন্ধ থাকার পর ১৯ আগস্ট খুলেছে পাহাড়ের পর্যটন কেন্দ্রের দুয়ার। খুলে দেওয়া হলো হোটেল, মোটেল, রেস্টুরেন্টসহ পর্যটন এলাকার বিনোদন কেন্দ্রগুলোও। এতে সারাদেশের মতো পাহাড়ি জেলা রাঙ্গামাটি,খাগড়াছড়ি, ও বান্দরবানের পর্যটন শিল্প সংশ্লিষ্টদের মাঝেও স্বস্তি ফিরে এসেছে। এই শরতে পার্বত্য অঞ্চলের মনোমুগ্ধকর পর্যটন স্পটগুলো হাত বাড়িয়ে আছে পর্যটককে স্বাগত জানাতে। যারা সবুজ পাহাড়, আকাশের পুঞ্জ পুঞ্জ মেঘমালা, জলে ভরপুর জলপ্রপাতগুলোর গড়িয়ে পড়া জলরাশির স্পর্শ পেতে চান তাঁদের জন্য রাঙ্গামাটি, বান্দরবান ও খাগড়াছড়ি ঘুরে বেড়ানোর এটাই ভালো সময়। না মেঘ, না বৃষ্টি এখন পাহাড়ে। প্রকৃতির রূপ উপভোগ করার উপযুক্ত সময়। কোথাও পাহাড়ের বুক ভরে ফসলের খেত। জুম চাষের ফসলে পাহাড়ের রূপ এখন বদলে গেছে। পাহাড়ের গায়ে জুম ধানের সোঁদা গন্ধ। এই সময়টাতে সহজে চলে যাওয়া যাবে সাজেকে। যেখানে ক্ষণে ক্ষণে প্রকৃতি তার রূপ বদলায়। কখনো মেঘ এসে ঢেকে দিচ্ছে চারপাশ। শরীরে মেঘের স্পর্শ শিহরণ জাগায়। সাজে যেন মেঘের উপত্যকা। নিজেকে মনে হবে মেঘের রাজ্যের বাসিন্দা। সাজেকে কটেজ-রিসোর্ট আছে ১০৬টির মত। রাঙ্গামাটি শহরে বেসরকারি ৫০টি হোটেল-মোটেল রয়েছে। যেতে পারেন বগালেক, কেওক্রাডং এর চূড়ায়। এছাড়াও কাপ্তাই লেক, জাদু মন্দির, লামার মিরিঞ্জা পাহাড়, আলীকদমের গিরি পাহাড়ের এখানে ওখানে ঝরঝর বয়ে যাওয়া জলপ্রপাতের ঠান্ডা জলে গা ভেজানো, মাতামুহুরী ও শঙ্খ নদের পানিতে ভেসে ভেসে দুপাড়ের বৈচিত্র্যময় এলাকা ঘুরে দেখা। থানচিতে গিয়ে নৌকোয় চড়ে পানিতে ডুবে থাকা বড় বড় পাথর দেখা ও রেমাক্রি জলপ্রপাতের ছুটে চলার দৃশ্য দেখা যাবে এখানে। আর বগালেক যাবার রাস্তাতো এখন সুনসান। গাড়িতে চড়ে কিংবা মোটরবাইক নিয়ে সোজা চলে যেতে পারবেন বগালেক। বান্দরবানের আরও দর্শনীয় ট্যুরিস্ট স্পটগুলো হচ্ছে মেঘলা, নীলাচল, চিম্বুক, নীলগিরি, প্রান্তিক লেক, স্বর্ণমন্দির, নীলদিগন্ত, ন্যাচারাল পার্ক, বিজয় পাহাড় চূড়া, রিজুক ঝর্ণা, তিনাফ সাইতার ঝর্ণা, জাদীপাই ঝর্ণা, থানচির নীলদিগন্ত, রেমাক্রি, নাফাকুম ঝর্ণা, অমিয়কুম ঝর্ণা, বাদুরগুহা, বড়পাথর, দেবতা পাহাড়, আলীকদমের দামতোয়া ঝর্ণা, পোয়ামুহুরী ঝর্ণা, আলীর সুরঙ্গপথ, রোয়াংছড়ির দেবতাকুম, শীলবাঁধা ঝর্ণা, শিপ্পি পাহাড় চূড়া, রামজাদী বৌদ্ধমন্দির, লামার মিরিঞ্জা পর্যটন স্পট, নাইক্ষ্যংছড়ি উপবন পর্যটন স্পট, কুমির খামার, সদরের শৈলপ্রপাত ঝর্ণা, আমতলী ঝর্ণা, ঝুরঝুড়ি ঝর্ণা বা রূপালী ঝর্ণা, জলপ্রপাতের মতো দৃষ্টিনন্দন দর্শনীয় স্থানগুলো খুলে দিয়েছে প্রশাসন। এছাড়াও বান্দরবানের উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থানগুলো হলো- শুভ্র নীলা, জীবন নগর পাহাড়, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি সাংস্কৃতিক ইন্সটিটিউট ও জাদুঘর, বাকলাই জলপ্রপাত, রিজুক জলপ্রপাত, চিংড়ি ঝিরি জলপ্রপাত, জিংসিয়াম সাইতার জলপ্রপাত, পাতাং জারি জলপ্রপাত, ফাইপি জলপ্রপাত, প্রান্তিক লেক, মিরিঞ্জা পর্যটন কমপ্লেক্স, কেওক্রাডাং পাহাড়, তাজিনডং পাহাড় প্রভৃতি। বান্দরবানে রয়েছে অনেকগলো হোটেল-মোটেল ও রিসোর্ট নৈসর্গিক লীলাভূমি পাহাড়ি জনপদ রাঙ্গামাটি যেন শিল্পীর হাতে আঁকা নিখাদ জীবন্ত ছবি। তার সান্নিধ্য পেতে ছুটে আসেন প্রকৃতিপ্রেমীরা। রাঙ্গামাটিতে পর্যটকদের মূল আকর্ষণ কাপ্তাই হ্রদ,৩৩৫ ফুট দৈর্ঘের মনোরম ঝুলন্ত সেতু ঘিরেই। তাই পর্যটকরা প্রথমেই ছুটে যান পর্যটন কমপ্লেক্স এলাকায়। এছাড়া শহরের পুলিশের ‘পলওয়েল পার্ক’, জেলা প্রশাসনের ‘রাঙ্গামাটি পার্ক’, সেনাবাহিনীর ‘আরণ্যক’, বরকল উপজেলা প্রশাসনের ‘শুভলং ঝর্ণা’, জেলা পুলিশের সুখী নীলগঞ্জ এবং রাজবন বিহার এলাকায় প্রতিনিয়ত ভিড় জমান বেড়াতে যাওয়া পর্যটকরা। অসংখ্য ঝর্ণা আর বুনো পাহাড় মিলিয়ে এক জানা-অজানা রহস্যের নাম খাগড়াছড়ি। প্রকৃতি অকৃপণভাবে সাজিয়েছে খাগড়াছড়িকে। সৌন্দর্যের ঐশ্বর্যময় অহংকার খাগড়াছড়ি শহরের প্রবেশ পথ আলুটিলা। আগ্রহী পর্যটকরা চাইলে এখানে রাতে থাকতে পারবেন। আলুটিলা পর্যটন কেন্দ্রে আছে প্রাকৃতিক গুহা যা এই কেন্দ্রের মূল আকর্ষণ।

এই বিভাগের আরও খবর

  বান্দরবানে ভ্রমণের ক্লান্তি ভোলায় মুরুং ঝর্ণা

  সম্ভাবনাময় ঝরনা কেন্দ্রিক পর্যটন গড়ে তোলার জন্য প্রাকৃতিক ঝরনা রক্ষা করতে হবে

  করোনার মধ্যেও দেশীয় পর্যটকের সংখ্যা দুই কোটিতে পৌঁছেছে: বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

  দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার নান্দনিক পর্যটন স্পটের নাম বান্দরবান জেলা

  খাগড়াছড়ির পর্যটন অর্থনীতির বিকাশ,মাসে লেনদেন ১০ কোটি টাকা

  আজ ‘বিশ্ব পর্যটন দিবস’

  প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি রাঙ্গামাটির ন" কাটা ও মোপ্পাছড়া ঝর্ণা

  রাঙ্গামাটি,খাগড়াছড়ি ও বান্দরবানে এখন পর্যন্ত আশানুরূপ পর্যটক আসছেন না

  পার্বত্য চট্টগ্রামের দার্জিলিং খ্যাত সাজেক এখন আলোয় আলোকিত

  রাঙ্গামাটির ঝুলন্ত সেতু এখন পানির নিচে

  সবুজ পাহাড় সেজেছে শ্বেতশুভ্র মেঘমালায়,অতিথি বরণে মুখিয়ে আছে পাহাড়ি বিনোদন কেন্দ্রগুলো

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?