রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ০৫ আগস্ট, ২০২১, ০৫:০১:১৬

ইজ্জতের মূল্য ১০ হাজার টাকা, অত:পর বিয়ে

ইজ্জতের মূল্য ১০ হাজার টাকা, অত:পর বিয়ে

ডেস্ক রির্পোট:-১৩ বছর আগের কথা। সরাইলের পল্লী এলাকা পাকশিমুল ইউনিয়নের বড়ইচড়া গ্রামে বেড়ে ওঠা মেয়েটির বয়স তখন ২০ বছর। দরিদ্র পিতা মাতা বিয়ে দিয়েছিলেন মেয়েটিকে। টিকেনি দাম্পত্য জীবন। ২-৩ বছর পরই ভেঙে যায় সংসার। মারা যান পিতা মাতা। কিছুটা মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে মেয়েটি। ছোট দু’চালা একটি টিনের ঘরে কোন রকমে জীবন-যাপন করছে। মানুষের মালপত্র মাথায় বা হাতে করে স্থানান্তর ও ঘরের কাজ করেই চলছিল তার জীবন। এতিম ওই মেয়েটির বয়স এখন (৩৩), তার উপর কু-নজর পড়ে একই গ্রামের রহমত আলীর ছেলে ৩ সন্তানের জনক নূর আলীর (৪৮)। ঘরে স্ত্রী রেখেও নূর আলী পিছু ওই নারীর। কৌশলে এক সময় নারীকে ধর্ষণ করে নূর আলী। পরে দেখায় বিয়ের প্রলোভন। অসহায় অক্ষর জ্ঞানহীন নারীটি নূর আলীর পাতানো ফাঁদে পা দেয়। এক সময় সে গর্ভবতী হয়ে যায়। সটকে পড়েন ধর্ষক নূর আলী। চিকিৎসকের শরনাপন্ন হন ভুক্তভোগী। মেডিকেল রিপোর্টে দেখা যায় গর্ভের বাচ্চার বয়স ৫ মাসেরও বেশী। ওই নারী বলেন, ‘আমার পেটের বাচ্চাটি নূর আলীর। বাচ্চা আসার আগে আমাকে বলেছে তোরে বিয়ে করুম। তোর লগে যাওয়া আসা করুম। এখন সে পালিয়ে গেছে বিয়ে করছে না।’ তাই আপন ভাইকে বিষয়টি জানান ধর্ষিতা। আইনি সহায়তা নেয়ার চেষ্টা করে ভাই বোন কিন্তু পারেনি। নূরাকে বাঁচাতে ওঠে পড়ে লেগে যায় একটি মহল। তারা অর্থ ও জায়গার লোভ দেখিয়ে মেয়েটির গর্ভের বাচ্চাটি নষ্ট করার প্রস্তাব দেয়। গত সোমবার থানায় আসার কথা থাকলেও তারা আসতে পারেননি। প্রভাবশালী এক জনপ্রতিনিধির লোকজন তাদেরকে আটকিয়ে সরাইল সদরের পাঠান পাড়ায় এক বাড়িতে সালিশ বৈঠকে বসেন। দীর্ঘ সময় তাদেরকে বিভিন্ন লোভ লালসা দেখিয়ে গ্রাম্য সালিস সভার মাধ্যমে ঘটনাটি নিষ্পত্তি করতে রাজি করায়। পরে থানায় না এসে তারা চলে যায় গ্রামে। ওই সভায় প্রথমেই ভুক্তভোগীর ইজ্জতের মূল্য নির্ধারণ করা হয় ১০ হাজার টাকা। পরে নূর আলীর সাথে ওই নারীর বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ করার সিদ্ধান্ত হয়। এটা হবে নূর উদ্দিনের তৃতীয় বিয়ে। এ সভায় নূর আলীর বর্তমান (প্রথম স্ত্রী) স্ত্রী উপস্থিত ছিলেন না। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই গ্রামের একাধিক ব্যক্তি ও সালিসকারক বলেন, এটা চরিত্রহীন নূর আলীর ধর্ষণের ঘটনাটিকে ধামাচাপা দেওয়ার সাজানো নাটক। কিছুদিন পর বাচ্চাটি নষ্ট করে নির্যাতনের মাধ্যমে স্বামীর সংসার ছাড়াতে মেয়েটিকে বাধ্য করা হবে। অতীতে নূর আলীর এমন একাধিক ঘটনা আমরা দেখেছি। গ্রামের একাধিক সূত্র জানায়, দেড় বছর আগে আরেকবার নূরা জোর পূর্বক এই মেয়েটিকেই ধর্ষণের চেষ্টা করেছিল। এ ঘটনায় থানায় মামলাও হয়েছিল। তখনও ওই গ্রামের এই সালিসকারকরাই মেয়েটির ইজ্জতের মূল্য নির্ধারণ করেছিল ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা। রাত ৮টার পর পূর্বপাড়ায় নূর আলীর প্রবেশে জারি করা হয়েছিল নিষেধাজ্ঞা। ভুক্তভোগীর ভাই বলেন, আমরা দুর্বল। তাই অত্যাচারিত হচ্ছি বারবার। সালিসে নূর আলীর লোকজনই রায় করেছেন। আমার কোন লোক ছিল না। নিকাহ নিবন্ধনকারীর মাধ্যমে ৪ লাখ টাকার দেন মোহরে বুধবার বিয়ে হবে। এর ব্যতিক্রম হলে আমি মানব না। সরাইল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. হোসনে মোবারক বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় শান্তি-শৃঙ্খলার লক্ষ্যে গ্রামবাসী বসে বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ৪ লাখ টাকা দেনমোহরে বিয়ের আয়োজন চলছে।

এই বিভাগের আরও খবর

  কক্সবাজারে বেড়াতে গিয়ে ‘অতিরিক্ত মদপানে’ ২ ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু

  মিডিয়া প্রতিনিধিদের সাথে ডিজিটাল সিটিজেনশিপ শিক্ষা নিয়ে কর্মশালা

  ৬৬ শতাংশ শিক্ষিত বেকার, প্রশ্নের মুখে সরকার!

  সব বান্ধবীর বিয়ে হয়ে গেছে, ক্লাসে একা নার্গিসের চোখমুখে আতঙ্ক

  পুলিশের স্ত্রীকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা, গ্রেপ্তার ৪

  আজ বিশ্ব আত্মহত্যা প্রতিরোধ দিবস

  নায়ক মান্নার স্ত্রীর রিট: কপিরাইট আইনের চারটি ধারা নিয়ে রুল

  কুমিল্লায় চিকিৎসক দম্পতিকে শ্বাসরোধে হত্যা, পুত্রবধূসহ আটক ৩

  বাংলাদেশ-ভারত বিমান চলাচল কাল শুরু

  তামাকের কারণে প্রতিবছর প্রায় ১ লক্ষ ২৬ হাজার মানুষ মৃত্যু বরণ করেন-প্রজ্ঞা

  দুই লাখ টাকার ঋণে ১৪ লাখ পরিশোধ, তবু দেনা ১১ লাখ!

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?