মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

বুধবার, ০৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ০৬:০২:৪২

দীঘিনালায় বিদ্যুতের লাইন মেরামতের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল

দীঘিনালায় বিদ্যুতের লাইন মেরামতের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল

আব্দুল্লাহ আল মামুন, খাগড়াছড়ি:- খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় বিদ্যুৎ এর লাইন মেরামতের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী। বুধবার(৮ সেপ্টেম্বর) সকালে উপজেলার কবাখালী বাজার থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু হয়ে বঙ্গবন্ধু চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। এসময় বিক্ষোভকারীরা দীঘিনালা-সাজেক সড়ক অবরোধ করে। এক ঘন্টা পর ক্ষতিগ্রস্ত বিদ্যুতের লাইন মেরামত করতে গেলে সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার করে বিক্ষোভকারীরা। গত শুক্রবার রাতে উপজেলার কবাখালী ইউনিয়নের মুসলিমপাড়া গ্রামের বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের উপর গাছ হেলে পরলে লাইন ক্ষতিগ্রস্ত হয়। লাইন মেরামতের জন্য এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বার বার বলা হলেও বিদ্যুৎ বিভাগ কর্ণপাত করেনি। এব্যাপারে কবাখালী ইউনিয়নের ইউপি সদস্য মো. সুমন জলিল জানান, গত শুক্রবার ভারি বর্ষণে বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের উপর গাছ ভেঙ্গে পরে বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বিদ্যুৎ বিভাগকে বার বার বলার পরও মেরামত করনি। পরে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল করে সড়ক অবরোধ করে। এব্যাপারে দীঘিনালা বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র বোর্ডের আবাসিক প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলাম জানান, ঘটনাস্থলে ক্ষতিগ্রস্ত বিদ্যুতের লাইন মেরামতের জন্যে লোকজন পাঠানো হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

  সম্ভাবনাময় ঝরনা কেন্দ্রিক পর্যটন গড়ে তোলার জন্য প্রাকৃতিক ঝরনা রক্ষা করতে হবে

  খাগড়াছড়ির পর্যটন অর্থনীতির বিকাশ,মাসে লেনদেন ১০ কোটি টাকা

  পার্বত্য চট্টগ্রামে পর্যটনশিল্পের অমিত সম্ভাবনা

  খাগড়াছড়ি পরিবহণ সেক্টরে নৈরাজ্যে ৭২ঘন্টার আল্টিমেটাম

  খাগড়াছড়িতে পাথর বোঝাই ট্রাকের ধাক্কায় ট্রাক্টর চালকসহ আহত-৬

  খাগড়াছড়িতে জাতীয় পার্টির দ্বি-বার্ষিক মহিলা কাউন্সিল সম্পন্ন

  খাগড়াছড়ির দীঘিনালার লারমা স্কয়ারে যানজট, ভোগান্তিতে সাজেকগামীরা

  খাগড়াছড়ির গুইমারায় বাল্যবিয়ে নিয়ে দু’দিনব্যাপী কর্মশালা

  খাগড়াছড়ির মানিকছড়িতে মদ্যপ যুবককে ৩ মাসের কারাদন্ড

  দীঘিনালায় বাবা-মা'র সামনে মাল্টিপ্লাগে আঙুল দিয়ে শিশুর মৃত্যু

  রাঙ্গামাটি,খাগড়াছড়ি ও বান্দরবানে এখন পর্যন্ত আশানুরূপ পর্যটক আসছেন না

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?