শুক্রবার, ০৬ আগস্ট ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ৩১ মে, ২০২১, ০৯:৫৩:১৫

জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রায় আবারও চুরি

জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রায় আবারও চুরি

ঢাকা: অর্থবছরের শুরুতে মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৮ দশমিক ২ শতাংশ। অর্থবছরের মাঝামাঝিতে এসে সেটা একবার সংশোধন করে ৭ দশমিক ৪-এ নামিয়ে আনা হয়। এবার অর্থবছরের শেষ দিকে এসে সেই লক্ষ্যমাত্রাই আরও কমিয়ে আনছে সরকার। নতুন লক্ষ্যমাত্রা হবে ৬ দশমিক ১।

২০২০ সালের ১১ জুন জাতীয় সংসদে চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল দেশের অর্থনীতি প্রসারিত হওয়ার যে হার ঠিক করেছিলেন, সেটা ছিল ৮ দশমিক ২ শতাংশ। করোনা মহামারির তাণ্ডবের মধ্যে অনেকেই তখন এটিকে উচ্চাভিলাষী বলে অভিহিত করেছিলেন।

জিডিপি প্রবৃদ্ধির পুনর্নির্ধারিত হার চলতি অর্থবছরের বাজেটে প্রস্তাবিত প্রথম লক্ষ্যমাত্রা থেকে ২ দশমিক ১ শতাংশ এবং সংশোধিত লক্ষ্যমাত্রা থেকে ১ দশমিক ৩ শতাংশ কম।

এর আগে ২০১৯-২০ অর্থবছরেও বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ৮ দশমিক ২ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৫ দশমিক ২ শতাংশে নিয়ে আসে সরকার। তবে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) প্রাথমিক ও সর্বশেষ হিসাবে ওই অর্থবছর ৫ দশমিক ২৪ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জন হয় বলে জানা গেছে।

ওই বছর পার্শ্ববর্তী ভারতসহ অনেক দেশের অর্থনীতি সংকুচিত হয়েছে। এতে বিশ্বের মাত্র ২০টি দেশ ছাড়া কেউ ইতিবাচক প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে পারেনি। এর মধ্যে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি ৫ দশমিক ২৪ শতাংশ অর্জিত হলেও প্রবৃদ্ধির বিচারে বাংলাদেশ বিশ্বের শীর্ষ তিন দেশের মধ্যেই ছিল। বাংলাদেশের ওপরে ছিল আফ্রিকার দুটি ছোট অর্থনীতির দেশ।

চলতি অর্থবছরও ৮ দশমিক ২ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধির অর্জনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে সরকার। কিন্তু করোনার প্রথম ধাক্কায় দেশের অর্থনীতির বাস্তবতা বিবেচনায় প্রস্তাবিত বাজেট বাস্তবায়ন পর্যায়ে নেমে সেই লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে না বুঝতে পারে সরকার। দেশি-বিদেশি গবেষণা প্রতিষ্ঠানসহ দাতা সংস্থাগুলোর নিজস্ব পর্যবেক্ষণেও এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হওয়ার পূর্বাভাস দেয়া হয়।

এ পরিস্থিতিতে চলতি অর্থবছরের মাঝামাঝিতে এসে সরকার প্রস্তাবিত ৮ দশমিক ২ শতাংশ লক্ষ্যমাত্রাকে ছেঁটে ৭ দশমিক ৪ শতাংশে নামিয়ে আনে। এরপর গত এপ্রিল পর্যন্ত সেই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের পথেই এগোচ্ছিল সরকার। তবে সেখানেও বাধা হয়ে দাঁড়ায় করোনার দ্বিতীয় ঢেউ।

চলতি অর্থবছর শেষ হচ্ছে ৩০ জুন। তবে অর্থনীতির গতিপ্রকৃতি আভাস দিচ্ছে, সংশোধিত ৭ দশমিক ৪ শতাংশ লক্ষ্যমাত্রাও ছুঁতে পারবে না দেশ। সেটি সরকারের কাছেও স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।

এমন পরিস্থিতিতে চলতি অর্থবছরের বাজেটে প্রস্তাবিত হার এবং এর পরের সংশোধিত লক্ষ্যমাত্রা আরও কাঁটছাঁট করে চলতি অর্থবছরের জন্য ৬ দশমিক ১ জিডিপি প্রবৃদ্ধির নতুন লক্ষ্যমাত্রা পুনর্নির্ধারণের প্রস্তাব করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক, মুদ্রা ও মুদ্রা বিনিময় হার-সংক্রান্ত অর্থনৈতিক কো-অর্ডিনেশন কাউন্সিল।

সূত্র জানিয়েছে, আগামী দুই-এক দিনে হিসাবনিকাশ পরিবর্তন না হলে অর্থমন্ত্রীর আগামী ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেট বক্তব্যে চলতি অর্থবছরের জন্য ৬ দশমিক ১ জিডিপি প্রবৃদ্ধির নতুন লক্ষ্যমাত্রা পুনর্নির্ধারণের ঘোষণা থাকবে।

গত ২৮ এপ্রিল এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (এডিবি) তার ‘এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট আউটলুক’ শীর্ষক সর্বশেষ প্রতিবেদনে পূর্বাভাস দিয়ে বলেছে, বাংলাদেশে চলতি অর্থবছর মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি হতে পারে ৫ দশমিক ৫ শতাংশ থেকে ৬ শতাংশ পর্যন্ত। যদিও এর আগে এই সংস্থাটি বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি নিয়ে আরও একটি পূর্বাভাস দিয়েছিল। সংস্থাটির ওই পূর্বাভাসে দাবি করা হয়েছিল এবার ৬ দশমিক ৮ শতাংশ জিডিপি অর্জন করতে পারে বাংলাদেশ।

গত ৫ এপ্রিল আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) পূর্বভাস দিয়ে বলেছে, চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরে বাংলাদেশের মোট দেশজ উৎপাদন বা জিডিপির প্রবৃদ্ধি হবে ৫ শতাংশ।

আর চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধে (গত অক্টোবর) বিশ্ব ব্যাংক বলেছে, মহামারির ধাক্কায় ২০২০-২১ অর্থবছরে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি ১ দশমিক ৬ শতাংশে নেমে আসতে পারে।

তবে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল দাতা সংস্থাগুলোর এসব পূর্বাভাস গ্রহণ করেননি। তিনি দাবি করে বলেছেন, ‘বাংলাদেশের অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়িয়েছে। সবগুলো সূচকই এখন ভালো। আসলে সে পথেই হাঁটছিল বাংলাদেশ। কিন্তু করোনার দ্বিতীয় ঢেউ সব কিছু ওলট-পালট করে দিয়েছে। যে কারণে জিডিপি প্রবৃদ্ধির হারও নামিয়ে আনতে হচ্ছে।’

 

এই বিভাগের আরও খবর

  খাগড়াছড়ির পানছড়িতে অস্ত্রসহ ইউপিডিএফ সদস্য গ্রেপ্তার

  ‘মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকারী ম্যাজিস্ট্রেটদের প্রশিক্ষণ দরকার’

  করোনায় রেকর্ড ২৬৪ মৃত্যু, শনাক্ত ১২,৭৪৪

  খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় নারীর ভাসমান মরদেহ উদ্ধার

  কাউখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ্যাম্বুলেন্স প্রদান

  জুলাই মাসে ১৮১ নারী ও কন্যা শিশু নির্যাতনের শিকার,১৭ জনের রহস্যজনক মৃত্যু

  ৬৩ শতাংশ সরকারি প্রতিষ্ঠানের তথ্য প্রদান সন্তোষজনক নয়

  দেশে করোনা আক্রান্তদের ৯৮ শতাংশই ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট

  নানিয়ারচরসহ দুর্গম পার্বত্য এলাকায় মানুষ করোনা টিকা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে

  করোনায় আরও ২৪১ মৃত্যু, শনাক্ত ১৩ লাখ ছাড়াল

  রাঙ্গামাটিতে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত শিল্পীদের জেলা পরিষদের আর্থিক অনুদান



আজকের প্রশ্ন