বুধবার, ২৭ অক্টোবর ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১১:৫৭:২৪

ব্রোকেন ফ্যামিলিতে বড় হওয়া, বিয়েতে ভয়

ব্রোকেন ফ্যামিলিতে বড় হওয়া, বিয়েতে ভয়

বিনোদন ডেস্ক:- টিউমার হয়েছিল অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তীর। গত বছর অপারেশনও হয়েছে। কিছুটা সুস্থ হয়ে শুটিং শুরু করেছিলেন। কিছুদিন পর ব্যথা বাড়তে থাকে। এই বছর মার্চে ফের অপারেশন করাতে হয়। চিকিৎসকের পরামর্শে শুরু হয় ছয় মাসের বিশ্রাম। এর মধ্যে পেয়ে বসে ডিপ্রেশন। মানসিকভাবে ভাঙাচোরা সময় কাটাচ্ছিলেন ঋতাভরী। সেই সময় এক ‘ডাক্তার বন্ধু’র আগমন। পাশাপাশি থেকে বন্ধুর চেয়েও বেশি জীবনসঙ্গী হয়ে উঠেছেন তিনি। এখন বিয়ের কথা ভাবছেন ঋতাভরী। হবু বর পেশায় মনোবিদ। নাম তথাগত চট্টোপাধ্যায়। ঋতাভরীর মতে, বাঙালি ছেলের সঙ্গে প্রেম করতে আরাম আছে। বাংলায় কথা বলা যায়। সেই সঙ্গে রুচি, শিল্পবোধ এসবের মিল তো রয়েছেই। এর আগে যাঁর সঙ্গে প্রেম করতেন, তিনি ছিলেন মুম্বাইয়ের। বাংলায় কথা বলতে পারতেন না। ঋতাভরী আর তথাগতর প্রেমের বয়স খুব বেশি দিনের নয়। আর ওই সময়টা ঋতাভরী ছিলেন শয্যাশায়ী। ভারতীয় গণমাধ্যমকে ঋতা বলেন, ‘দ্বিতীয় সার্জারির পরে ও আমার বাড়িতে আসত দেখা করতে। খুব তাড়াতাড়ি আমরা কাছাকাছি এসেছিলাম। ধীরে ধীরে অনুভব করতে শুরু করলাম, আমিও কারও ওপর নির্ভর করতে পারি।’ বিয়েতে ভয় পান ঋতাভরী। কারণ, ঋতাভরীর বেড়ে ওঠা একটা ব্রোকেন ফ্যামিলিতে। তা ছাড়া হুট করে কেউ যদি এসে খবরদারি শুরু করেন, মেনে নিতে পারেন না। তবে তথাগত নাকি ব্যতিক্রম। ঋতাভরী বলেন, ‘সত্যি বলতে, এর আগে কাউকে দেখে মনে হয়নি, তার সঙ্গে সংসার করতে পারব। তবে আমার কিছু বলার আগে হঠাৎ একদিন ও-ই বলল, তুমি পাশে থাকলে তোমার প্রতি কেমন বউ বউ ফিলিং আসে।’ ঋতাভরীর একটাই শর্ত ছিল, যাকে বিয়ে করব, বিয়ের আগে তার সঙ্গে কিছুদিন থাকতে চাই। জানতে চাই দুজনকে। তাই ঠিক হলো, এ বছর ডিসেম্বরে এনগেজমেন্ট করে একসঙ্গে থাকবেন কিছুদিন। করোনা পরিস্থিতি ঠিক হলে জাঁকজমক করে বিয়ে করবেন। নিজেদের বোঝাপড়াটা নাকি বেশ ভালো মনে হচ্ছে। তাই ঋতাভরী এখন নিজেকে গোছাচ্ছেন বিয়ের জন্য। ‘ওগো বধু সুন্দরী’ ধারাবাহিকের মূল চরিত্রে অভিনয় দিয়ে টিভি সিরিয়ালে যাত্রা শুরু ঋতাভরীর। তাঁর অভিনীত ছবি ‘এফআইআর’ মুক্তি পাচ্ছে সামনে পূজায়। এ ছাড়া অনুরাগ কাশ্যপের প্রযোজনায় একটি হিন্দি ছবি হাতে রয়েছে। ‘মায়া মৃগয়া’ নামে আরেকটা ছবির শুটিং শুরু করবেন। অংশুমান প্রত্যুষের নাম ঠিক না হওয়া একটি ছবিও পাকাপাকি হয়ে আছে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?