শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ২০ জুলাই, ২০২১, ০২:১৩:৫৯

দুই নায়িকাকে দিয়ে পর্নো ছবি করাতেন শিল্পার স্বামী

দুই নায়িকাকে দিয়ে পর্নো ছবি করাতেন শিল্পার স্বামী

বিনোদন ডেস্ক:- বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে পর্নো ছবি তৈরির অভিযোগে গ্রেফতার করেছে মুম্বাই পুলিশ। তাকে গ্রেফতারের পরই নানা চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে। মুম্বাই পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, শিল্পার স্বামীর হাত ধরেই নাকি অ্যাডাল্ট দুনিয়ায় পা রেখেছেন বলিউড অভিনেত্রী পুনম পাণ্ডে ও শার্লিন চোপড়া। খোলামেলা সাহসী দৃশ্যের জন্য বলিউডে বেশ আলোচিত শার্লিন ও পুনম। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মাঝেমধ্যেই ছবি ও ভিডিও পোস্ট করেন তারা। অনেক আগেই নাকি রাজ কুন্দ্রার এই কাজের তথ্য মহারাষ্ট্রের সাইবার সেলকে দিয়েছিলেন দুই অভিনেত্রী। তারও আগে রাজের পর্নো প্রজেক্টে কাজ করেছিলেন শার্লিন-পুনম। জানা যায়, প্রতিটি কাজের জন্য শার্লিন ৩০ লাখ রুপি পেতেন। এমন ১৫ থেকে ২০টি প্রজেক্টে কাজ করেছেন তিনি। রাজ কুন্দ্রা ছাড়াও আরও কয়েকজন এসব প্রজেক্টের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন বলে দাবি অভিনেত্রীর। মুম্বাই পুলিশ বলছে, চলতি বছরের শুরুর দিকে রাজের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া যায়। এরপর মামলা দায়ের হয়। গতকাল সোমবার (১৯ জুলাই) তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়। এরপর রাতেই তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। রাজের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি ভারতে তৈরি অ্যাপের মাধ্যমে পর্নো কনটেন্ট বিদেশের একটি ওয়েবসাইটে আপলোড করতেন। এ কাজে উঠতি অভিনেত্রী-মডেলদের জড়ানো হতো। প্রতি প্রজেক্টের জন্য আড়াই লাখ রুপি পর্যন্ত দেয়া হতো। ২০০৯ সালে বলিউডের অভিনেত্রী শিল্পা শেঠি বিয়ে করেন শিল্পপতি রাজ কুন্দ্রাকে। বিলাসবহুল জীবনযাপন তাদের। তাদের সংসারে দুই সন্তান রয়েছে। এর মধ্যে ২০১২ সালে ছেলে ভিয়ান ও ২০২০ সালে মেয়ে সামিশা জন্ম হয়। ব্যবসায়ী রাজ কুন্দ্রা জে এল স্ট্রিম অ্যাপের মালিক। আইপিএল দল রাজস্থান রয়্যালসেও তার মালিকানা রয়েছে। ২০১৩ সালে মৃত গ্যাংস্টার ইকবাল মির্চির সঙ্গে অর্থ পাচার কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অভিযোগ ছিল শিল্পার স্বামীর বিরুদ্ধে। বিয়ের পর অভিনয় থেকে অনেকটাই দূরে রয়েছেন শিল্পা। স্বামী-সন্তান নিয়ে সংসারে ব্যস্ত থাকলেও এখনও ফোকাস ধরে রেখেছেন এ অভিনেত্রী।

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?