বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ০৩ আগস্ট, ২০২১, ০৩:৪৮:০২

চলমান লকডাউন ১০ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ল

চলমান লকডাউন ১০ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ল

ডেস্ক রির্পোট:- করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে চলমান কঠোর বিধিনিষেধের মেয়াদ ১০ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) ভার্চুয়ালি আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে সচিবালয়ে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ১১ আগস্টের পর ভ্যাকসিন ছাড়া কেউ মুভমেন্ট করলে শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে। অবশ্যই ভ্যাকসিন নিতে হবে। ১৪ হাজার কেন্দ্রে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। আইন না করলেও অধ্যাদেশ জারি করে হলেও শাস্তি দেওয়ার ক্ষমতা দেওয়া হবে। ১১ আগস্টের পর ভ্যাকসিন ছাড়া কেউ মুভমেন্ট করলে শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে বলেও জানান মন্ত্রী। মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী বলেন, আগামী ১ সপ্তাহে ১ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিনেটেড করবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। ওয়ার্ড-ইউনিয়নে ৫ থেকে ৭টা কেন্দ্র করে ১ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। মানুষকে ভ্যাকসিন নিতে দৌড়াতে হবে না, আমাদের লোকজনই তাদের কাছে পৌঁছে যাবে। গত ২৩ জুলাই সকাল ৬টা থেকে ১৪ দিনের কঠোর লকডাউন দেয় সরকার। সেই লকডাউনের মেয়াদ আগামী ৫ আগস্ট রাত ১২টায় শেষ হবে। বিধিনিষেধে সব ধরনের গণপরিবহন, সরকারি-বেসরকারি অফিস বন্ধ আছে। খাদ্যপণ্য উৎপাদন-প্রক্রিয়াকরণ, চামড়া পরিবহন-সংরক্ষণ ও ওষুধ খাত ছাড়া বন্ধ রয়েছে সব ধরনের শিল্প-কারখানা। তবে ১ আগস্ট থেকে রপ্তানিমুখী শিল্প-কারখানা খুলেছে। বন্ধ রয়েছে দোকান ও শপিংমলও। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া মানুষের বাইরে বের হওয়াও নিষেধ।

এই বিভাগের আরও খবর

  চাকরি হারানো ব্যাংকারদের কাজে ফেরানোর নির্দেশ

  টাকা দিয়ে সরকার থেকে তথ্য নেওয়ার বিধান রেখে বিল পাস

  স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিবের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

  ফেসবুক ইউটিউব মনিটরিং করতে মাঠ পুলিশকে নির্দেশ আইজিপির

  স্কুল শিক্ষক হত্যা: চারজনের ফাঁসি, নয়জনের যাবজ্জীবন

  মাথাপিছু বৈদেশিক ঋণ ২৪ হাজার ৮৯০ টাকা: অর্থমন্ত্রী

  ‘জরুরি সেবা দিতে হাসপাতাল অসম্মতি জানাতে পারবে না’

  নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল,আইনের ২৭ ধারা উপেক্ষা

  সরকারের নজর এখন চাকরিজীবীদের সম্পদের দিকে

  বিচারকের এমন কর্মকাণ্ড লজ্জাজনক

  নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিন্টু বিকাশ চাকমাকে লঘুদণ্ড দিয়েছে সরকার

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?