রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ২০ জুলাই, ২০২১, ১২:৪১:৪৯

চাঁদপুরের ৪০ গ্রামে উদযাপিত হচ্ছে ঈদ

চাঁদপুরের ৪০ গ্রামে উদযাপিত হচ্ছে ঈদ

ডেস্ক রির্পোট:-চাঁদপুরে প্রায় ৪০টি গ্রামের মানুষ আজ মঙ্গলবার ঈদুল আজহা উদযাপন করছে। দীর্ঘ কয়েক যুগ ধরে সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে তারা ঈদ উদযাপন করে আসছেন। চাঁদপুরে সকাল থেকেই ছিল বৃষ্টি। বৃষ্টি মাথায় করে ঈদ জামাতে অংশ নেন স্থানীয়রা। একদিন আগে ঈদ উদযাপনের ব্যাখ্যাও দিয়েছেন সাদ্রা পীর মরহুম মাওলানা ইসহাক খানের পুত্র মাওলানা জাকারিয়া আল মাদানী। তিনি বলেন, সারাদেশে বর্তমানে প্রায় কোটি মুসলিম সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে ঈদ উৎসব পালন করছে। শুধু সাদ্রা পীরের অনুসারী নয়, দেশে এখন বিভিন্ন হুজুরের অনুসারীরাও সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে ঈদ উদযাপন করছেন। চাঁদপুরে আগাম ঈদ উদযাপন করা গ্রামগুলো হলো হাজীগঞ্জ উপজেলার সাদ্রা, বলাখাল, মনিহার, অলিপুর, বড়কুল, শমেশপুর, ঝাঁকনি, রামচন্দ্রপুর, প্রতাপুর, বেলচোঁ, উভারামপুর, সুরঙ্গচাল ও গোবিন্দপুর। ফরিদগঞ্জ উপজেলার - শাচনমেঘ, বিঘা, বাছপাড়া, খিলা, ওড়তলী, বালিথুবা, শোল্লা, রূপসা, গোয়ালভাওর, কড়ইতলী, নোয়ারহাট, বাশারা, ফনিসাইর, কামতা, পাইকপাড়া, কাইতারা, টোরামুন্সীরহাট, মূলপাড়া, বদরপুর, তেলিসাইর। মতলব উপজেলার আশ্বিনপুর, নায়েরগাঁও, পাঁচানী, দশানী, মোহনপুর, এখলাসপুর ও বেলতলী এবং শাহারাস্তী ও কচুয়ার কয়েকটি গ্রাম। উল্লেখ্য, সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে একদিন আগে ঈদ পালন করে আসছেন সাদ্রা পীর মরহুম মাওলানা ইসহাক খানের অনুসারীরা। ১৯৩১ সালে প্রথম হাজীগঞ্জ উপজেলার ৭নং বড়কুল ইউনিয়নের সাদ্রা গ্রামে তিনি এই রীতি চালু করেন।

এই বিভাগের আরও খবর

  নরেন্দ্র মোদিকে ৭১টি লাল গোলাপ পাঠালেন শেখ হাসিনা

  প্রতিদিন ওমরাহ করতে পারবেন ৭০ হাজার মানুষ

  আখেরি চাহার সোম্বা ৬ অক্টোবর

  স্ত্রী ডিভোর্স দিলেই কি দেনমোহর বাতিল হয়ে যায়?

  সৌদি নারী বিয়ে করলেই পেনশন

  হিল্লা বিয়ের ফতোয়া দিয়ে কারাগারে গেলেন দুই মাতবর

  “অনুমতি ছাড়া ধর্মীয় স্থাপনা নয়” ডিসিদের কাছে মন্ত্রণালয়ের চিঠি

  মসজিদ, মাদরাসা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান স্থাপনের সুযোগ শর্তমুক্ত রাখার আহ্বান

  ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে রাজারবাগে ৬৩ দিনব্যাপী মাহফিল শুরু হচ্ছে

  হেফাজতের নতুন আমির মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী

  জন্মাষ্টমীতে শোভাযাত্রা-মিছিল নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সরকার

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?