বুধবার, ২৭ অক্টোবর ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ১৬ আগস্ট, ২০২১, ০৬:৩৬:২৪

শিক্ষক পরিবারে ‘দুর্ভিক্ষ’, পেশা ছাড়ছেন অনেকেই

শিক্ষক পরিবারে ‘দুর্ভিক্ষ’, পেশা ছাড়ছেন অনেকেই

ডেস্ক রির্পোট:- করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে সারাদেশের মতো রংপুর নগরীসহ জেলায় দেড় বছর ধরে বন্ধ রয়েছে প্রায় ৭ শতাধিক কিন্ডার গার্টেন (কেজি) স্কুল। ফলে কর্মহীন হয়ে পড়েছেন এসব স্কুলে কর্মরত সাড়ে ৮ হাজারের বেশি শিক্ষক-কর্মচারী। বর্তমানে তারা পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। শিক্ষার্থীদের বেতন নির্ভর এসব শিক্ষক-কর্মচারীদের সহায়তায় কেউ এগিয়ে না আসায় তাদের পরিবারে চলছে নীরব দুর্ভিক্ষ। কেউ কেউ লোকলজ্জার ভয়ে পেশা পরিবর্তন করে ঢাকায় গিয়ে গার্মেন্টসে কাজ করছেন। কেউ অটোরিকশা চালক, কেউ রাজমিস্ত্রী, কেউ তরকারির দোকান, কেউ গাছ বিক্রি, কেউ মাস্ক বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করছেন। এমন তথ্যই জানান, রংপুর নগরী, গঙ্গাচড়া, মিঠাপুকুর ও সদর উপজেলার একাধিক কিন্ডার গার্টেনের শিক্ষক। গঙ্গাচড়া প্রাইম রেসিডেন্সিয়াল স্কুলের পরিচালক মুকুল মিয়া জানান, কিন্ডার গার্টেনগুলোর একমাত্র আয়ের উৎস শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে প্রাপ্ত টিউশন ফি। তাদের থেকে প্রাপ্ত আয়েই প্রতিষ্ঠানের ভবন ভাড়া, পরিবহন মিটিয়ে শিক্ষক-কর্মচারীদের মাসিক সম্মানী দেয়া হয়। সামান্য সম্মানী ও টিউশনি করে চলত এসব শিক্ষকদের পরিবারের ভরণপোষণ। কিন্তু প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় একদিকে বন্ধ রয়েছে শিক্ষার্থীদের বেতন, অপরদিকে বন্ধ রয়েছে প্রাইভেট টিউশনি। ফলে দেড় বছর থেকে বন্ধ রয়েছে তাদের উপার্জন। রংপুর নগরীর রামপুরা কটকীপাড়ার বাসিন্দা সাথে কথা হয় হযরত আলী নামের এক শিক্ষকের সাথে। তিনি জানান, ২০০৫ সালে রংপুর নগরীর রামপুরা এলাকায় ফাতাহ কিন্ডারগার্টেন প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। সেখানে শিক্ষার্থী ছিল প্রায় ২০০। করোনা পরিস্থিতিতে গত বছর থেকে অন্য সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মতো তার প্রতিষ্ঠানটিতেও তালা ঝুঁলছে। এমপিওভুক্ত স্কুলের শিক্ষকেরা বেতন-ভাতা সবই পাচ্ছেন, কিন্তু আমাদের মতো শিক্ষকদের তো বেতন নেই। তিনি বর্তমানে গাছের চারা বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করছেন। যে আয় হয় তা দিয়েই কোনোরকমে সংসার চালিয়ে নিচ্ছেন। নগরীর তামপাট এলাকার একটি কিন্ডার গার্ডেন স্কুলের শিক্ষক নুরুননাহার মুক্তা বলেন, অতিকষ্টে জীবনযাপন করছে। তার মতো দেশের কিন্ডারগার্টেন গুলোর শিক্ষক-শিক্ষিকার একই অবস্থা। সকলেই মানবেতর জীবন যাপন করছেন। এখন পর্যন্ত সরকারি-বেসরকারিভাবে কেউ আমাদের খোঁজখবর নেয়নি। রংপুর নগরীর আট নম্বর ওয়ার্ডের কিশামত কার্তিক হাজীরবাজার এলাকার বাসিন্দা তানজুল ইসলাম ও তৈয়বুর রহমান। সর্ম্পকে দুই ভাই। তারা কিন্ডার গার্ডেন স্কুলে শিক্ষকতা করেন। তারা জানান, তাদের পরিচালিত তাওহীদা কিন্ডারগার্টেনে প্রায় ২০০ জন শিক্ষার্থী ছিল। কিন্তু করোনার কারণে চরম অর্থনৈতিক সংকটে পড়ে পেশা বদলে বাধ্য হয়েছেন তিনিও তার ভাই। বর্তমানে অটো রিকশা চালিয়ে জীবকা নির্বাহ করছেন। পীরগাছা উপজেলার নব্দীগঞ্জ পাটোয়ারী কির্ন্ডার গার্ডেনের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী জানান, করোনা পরিস্থিতিতে গত বছর থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়। এতে বেকার হয়ে পড়েন এখানকার কর্মরত শিক্ষক-কর্মচারীরা। তাদের মা-বাবা, স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে গোছানো পরিবারে দেখা দেয় আর্থিক সংকট। অনেকেই পেশা বদল করে বাঁচার তাগিদে অন্য পেশায় যোগ দিচ্ছেন। এদিকে লোকলজ্জার ভয়ে এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা পারছেন না লাইনে দাঁড়িয়ে ত্রাণ নিতে। তারা অপেক্ষায় আছেন কবে স্কুল খুলবে সেই আশায়। কর্মহীন এসব শিক্ষক কর্মচারী সরকারি প্রণোদনার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। নর্থবেঙ্গল কিন্ডারগার্টেন অ্যান্ড প্রি-ক্যাডেট স্কুল সোসাইটি রংপুর মহানগর কমিটির সভাপতি গোলাম সাজ্জাদ হায়দার জানান, রংপুর নগরীসহ জেলায় প্রায় ৭০০ কিন্ডার গার্টেন রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানে সাড়ে ৮ হাজারের বেশি শিক্ষক-কর্মচারী কর্মরত ছিলেন। করোনাকালে তাদের বেশির ভাগ মানবেতর জীবনযাপন করছেন। তারা কোন সহায়তাই পাননি।

এই বিভাগের আরও খবর

  কর্মস্থলে উপস্থিতি বাধ্যতামূলক উপজেলা চেয়ারম্যানদের,দেওয়া হবে বিশেষ নির্দেশ

  ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দ্বিতীয় ধাপে ভোট ছাড়াই ৮১ চেয়ারম্যান

  মন্দিরে হামলা মামলা,আসামি প্রতিবন্ধী,বাদী বলছেন আ.লীগ সভাপতি জোর করে করিয়েছেন

  কুমিল্লার ঘটনায় সেই যুবক কক্সবাজারে গ্রেপ্তার,সামনে ইকবাল পেছনে কে

  দুর্ঘটনায় ১৯ সালে মারা গেছে ৪৩৫৮ আহত ৭২৪০ জন,গত নয় মাসে ক্ষতি ২৯ হাজার ৭৮০ কোটি টাকা

  সংখ্যালঘু সম্প্রদায় ও ভিন্ন ভাষা-ভাষী জাতিসত্তাসমূহের জানামাল রক্ষার্থে সরকার ব্যর্থ-ইউপিডিএফ

  সংখ্যালঘুদের ওপর হামলার তদন্ত চায় জাতিসংঘ

  এবার রংপুরের জেলে পল্লীতে আগুন, ফেনী ও নোয়াখালীতে নিরাপত্তা জোরদার

  ১০০ কোটি টাকা খরচের পর বাতিল ঢাকা-চট্টগ্রাম এক্সপ্রেসওয়ে

  ঢাকা-চট্টগ্রাম এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্প বাতিল

  সারাদেশে দুর্গাপূজায় তাণ্ডবের প্রতিবাদে কর্মসূচি ঘোষণা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?