মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

বুধবার, ০৭ জুলাই, ২০২১, ০৬:৪৬:৫২

বন্ধ হলো ‘ওভারনাইট বান্দরবান পাঠিয়ে দেবো’ সংলাপের বিজ্ঞাপন

বন্ধ হলো ‘ওভারনাইট বান্দরবান পাঠিয়ে দেবো’ সংলাপের বিজ্ঞাপন

ডেস্ক রির্পোট:- একটি ব্যান্ডের চা পাতার বিজ্ঞাপনে ‘আমার কাজটি করে না দিলে তোমাকে ওভারনাইট বান্দরবান পাঠিয়ে দেবো’ এমন বিতর্কিত সংলাপ থাকায় তা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছিল তথ্য অধিদপ্তর। গত বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) অধিদপ্তর থেকে টেলিভিশন চ্যানেলের শীর্ষ ব্যক্তি ও জাতীয় দৈনিকের অনলাইন ভার্সনের সম্পাদকদের কাছে এ সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হয়েছে। চিঠির আলোকে টেলিভিশন চ্যানেল ও জাতীয় দৈনিকের অনলাইন ভার্সন গুলোতে বিজ্ঞাপনটি প্রচার বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ‘একাদশ জাতীয় সংসদের পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সপ্তম বৈঠকের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন সংক্রান্ত’ শিরোনামের চিঠিতে বলা হয়, গত ৩১ মার্চ একাদশ জাতীয় সংসদের পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সপ্তম বৈঠকে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিম্নোক্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়- টেলিভিশন বিজ্ঞাপন ‘আমার কাজটি করে না দিলে তোমাকে ওভারনাইট বান্দরবান পাঠিয়ে দেব’-প্রচার বন্ধে কার্যকর উদ্যোগ নিতে। চিঠিতে বলা হয়, বান্দরবান জেলা খারাপ জায়গা, দুর্গম এলাকা, বসবাসের অনুপযুক্ত ইত্যাদি চিহ্নিত হওয়ায় এ ধরনের বিজ্ঞাপন প্রচার বন্ধে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের সুপারিশ করা হয়। এমতাবস্থায় এই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিজ্ঞাপনটির প্রচার বন্ধ করার জন্য সব জাতীয় দৈনিককে (অনলাইন) অনুরোধ করা হয়েছিল। এর আগে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে টিভি বিজ্ঞাপন চিত্রটি নিয়ে আলোচনা হয়। বৈঠকে আলোচনায় বলা হয়, এ ধরনের বিজ্ঞাপনে পার্বত্য অঞ্চল বিষয়ে জনমনে বিরূপ ধারণা সৃষ্টি হয়। এতে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে পার্বত্য এলাকায় বদলি শাস্তিমূলক বদলি হিসেবে প্রতিষ্ঠা পাবে। সে কারণে এ ধরনের প্রচারণা বন্ধ হওয়া দরকার। বৈঠক সংক্রান্ত সংসদ সচিবালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৈঠকে সরকারি কোনো কর্মকর্তা ও কর্মচারীর দাফতরিক কাজের ব্যর্থতা হিসেবে পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকায় পদায়ন করা হবে, এ জাতীয় প্রচার-প্রচারণা বন্ধ করতে তথ্য মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ করা হয়। সে সুপারিশের ভিত্তিতে বিজ্ঞাপনটি বন্ধের নির্দেশ দেয়েছিল তথ্য অধিদপ্তর।

এই বিভাগের আরও খবর

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?