সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

বুধবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২১, ১১:০৫:৫৫

বান্দরবানের থানচি প্রধান ফটক থেকে ছাংদাক পাড়া সড়কের কার্পেটিং শেষ হবে কবে?

বান্দরবানের থানচি প্রধান ফটক থেকে ছাংদাক পাড়া সড়কের কার্পেটিং শেষ হবে কবে?

বান্দরবান:- থানচি সদরের প্রধান ফটক এলাকার রাস্তায় কার্পেটিং অসমাপ্ত থাকায় বৃষ্টিতে হেঁটে চলাচলও কঠিন হয়ে পড়ে। সম্প্রতি তোলা ছবি।থানচি সদরের প্রধান ফটক এলাকার রাস্তায় কার্পেটিং অসমাপ্ত থাকায় বৃষ্টিতে হেঁটে চলাচলও কঠিন হয়ে পড়ে। সম্প্রতি তোলা ছবি। ছবি: আজকের পত্রিকা বান্দরবানের থানচি সদরে প্রবেশের প্রধান ফটক থেকে ছাংদাক পাড়া সড়কের ২০০ গজ রাস্তা অসমাপ্ত থাকায় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ওই সড়কেই থানা, কৃষি ব্যাংক, সোনালী ব্যাংক ও ব্র্যাক কার্যালয়ে যেতে হয়। ফলে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা পর্যটকেরা শহরে সরকারি সেবা নিতে চাইলে এই পথ পারি দিতে হয়। সামান্য বৃষ্টি হলে এই পথে হেঁটে যেতে ভোগান্তি পোহাতে হয়। কয়েক মিনিট দূরত্বের এই পথ অনেক সময় আধ ঘণ্টাও লাগে বলে জানান এলাকাবাসী। জানা যায়, উপজেলা প্রবেশে প্রধান সড়ক থেকে ছাংদাক পাড়া পর্যন্ত সড়কে কার্পেটিংয়ের উদ্যোগ নেয় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)। এ কাজের প্রায় ২০০ গজের কাজ অসমাপ্ত রেখে গত এপ্রিল দিকে চলে যায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। পরে মে থেকে আগস্ট পর্যন্ত বৃষ্টিপাতে ওই অংশে কাদামাটি জমে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। থানচি কৃষি ব্যাংক ব্যবস্থাপক আসিফ হাসান বলেন, বয়স্ক ও বিধবা ভাতার সুবিধাভোগীসহ আমাদের গ্রাহকদের পায়ে কাদামাটি নিয়েই ব্যাংকে প্রবেশ করতে হয়েছে। আমরা ও অল্পটুকু রাস্তা চরম কষ্ট পাচ্ছি। সোনালী ব্যাংক ব্যবস্থাপক মো. হান্নান শিকদার বলেন, ‘বাসা থেকে ব্যাংকে যেতে যে কষ্ট হয় তাতে মাঝে মাঝে বলি বাসায় কাজ করি, কিন্তু গ্রাহকেরা তো তা মানবেন না। তাই ব্যাংকে যেতেই হয়।’ থানচি থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সূদ্বীপ রায় বলেন, ‘উপজেলা সদরে প্রধান ফটকের ২০০ গজের রাস্তায় পুলিশের জিপ, মোটরসাইকেল চলাচল করার অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে। জরুরি কাজে কষ্ট করে জিপ নেওয়া হলে ৫-৬ দিনে চাকা, ব্রেক সু, বদলাতে হয়েছে। প্রতিদিন দুই-তিনবার করে ধুতে হয়েছে। এমন ভোগান্তি অন্য কোনো থানা হয়নি।’ এলজিইডির প্রকৌশলী মো. নিজাম উদ্দিন বলেন, ঠিকাদারকে বলছি জরুরিভাবে রাস্তা কাজ বাকি করে ফলতে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আতাউল গনি ওসমানী বলেন, ‘আমি উপজেলা প্রকৌশলীকে বারবার বলেছি, ঠিকাদার সংস্থা দিয়ে দ্রুত কাজ করার জন্য। না করলে বিল বন্ধ করে অন্যজনকে নিয়োগ দেব।’

এই বিভাগের আরও খবর

  বান্দরবানে শিক্ষার্থীদের টিকাদান শুরু

  বান্দরবানের রুমার তিনটিতে নৌকা ও একটিতে বিদ্রোহী প্রার্থীর জয়লাভ

  বান্দরবানের রুমা ও আলীকদমে আজ রাত ১২টা থেকে ২৮ নভেম্বর রাত ১২টা পর্যন্ত পর্যটকদের ভ্রমণ নিষিদ্ধ

  পাহাড়ি কলা যাচ্ছে সারা দেশে

  বান্দরবানে দুর্বৃত্তদের ব্রাশফায়ারে নিহত ১ গুলিবিদ্ধ ১

  বান্দরবানে ইউপি নির্বাচন,প্রথমবারের মতো নারী প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে

  বান্দরবানে শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সম্মিলিত প্রয়াসের আহ্বান

  বান্দরবানের লামার দুই প্রার্থীর সমান ভোট আবার নির্বাচন

  বান্দরবানে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের মহা পিণ্ডদান সম্পন্ন

  বান্দরবানের লামায় গলায় ছুরি ধরে স্কুলছাত্রী ধর্ষণ

  বান্দরবানে জাতীয় মাউন্টেন বাইক প্রতিযোগিতা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?