মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ৩১ আগস্ট, ২০২১, ০৪:০৭:২৪

বান্দরবানের রুমায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার অগ্রগতি নিয়ে মতবিনিময়

বান্দরবানের রুমায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার অগ্রগতি নিয়ে মতবিনিময়

বান্দরবান:- বান্দরবানে রুমা উপজেলার ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহারে নির্মাণাধীন গৃহ দৃশ্যমান নিয়ে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা করেছেন উপজেলা প্রশাসন। আজ মঙ্গলবার সকালে উপজেলা চেয়ারম্যান’র কক্ষে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সভায় উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান উহ্লাচিং মারমা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। একই সাথে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের পুরুষ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো: আলী নূর(জয়), ইউনিয়ন চেয়ারম্যান উহ্লামং মারমা ও শৈউসাই মারমা, রুমা প্রেস ক্লাবের সভাপতি শৈহ্লাচিং ও সাধারন সম্পাদক চনুমং মারমাসহ প্রিন্ট এবং ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ। বান্দরবানে রুমা উপজেলা হচ্ছে একটি প্রত্যন্ত অঞ্চল ও এ উপজেলার প্রায় সকল জনবসতি সুউচ্চ পাহাড়ে বসবাস করে। ঐ পরিপ্রেক্ষিতে এ প্রত্যন্ত অঞ্চলেই বাস্তবায়ন হতে চলেছে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মাঝে গৃহদান কর্মসূচির আওতায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার দেওয়া প্রথম পর্যায়ের ৭০টি ও দ্বিতীয় পর্যায়ের ২২০টি সহ মোট ২৯০টি ঘর। বর্তমানে ৩৪টি পাড়ায় ২৯০টি ঘর নির্মিত হচ্ছে। যা একে একে দৃশ্যমান হচ্ছে। যা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের অধীনে এ গৃহ নির্মাণ বাস্তবায়ন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলার নিবার্হী কর্মকর্তা মো: ইয়ামিন হোসেন। তার পাশাপাশি তিনি অতিরিক্ত পরিবহন খরচের জন্য বান্দরবান জেলা প্রশাসকের কাছে চাহিদা পত্র প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, প্রতিটি ঘরের জন্য বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছিল প্রথম পর্যায়ে এক লক্ষ একাত্তর হাজার ও দ্বিতীয় পর্যায়ের এক লক্ষ নব্বই হাজার টাকা। যা রুমা উপজেলার জন্য বর্তমানে নির্মাণ সামগ্রীর বাজার মূল্যের বিপরীতে বরাদ্ধ অপ্রতুল বলে মন্তব্য করেছেন। এ বিষয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো: আলী নূর এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বর্তমান বাজার মূল্যের ভিত্তিতে এ বরাদ্দে অত্র উপজেলার গৃহ নির্মাণ করা সম্ভব নয়। উপজেলা চেয়ারম্যান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ঘর পেয়ে তারা অনেক খুশি। তারা প্রধানমন্ত্রীসহ স্থানীয় প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানান এবং তারা বলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে যদি বরাদ্দ দেয়া না হত তাহলে আজকে টিনশেড বিল্ডিং এর ঘর পাওয়া সম্ভব হতো না এমনকি ২.০০ শতক জায়গার মালিকও হতে পারত না।

এই বিভাগের আরও খবর

  বান্দরবানে ভ্রমণের ক্লান্তি ভোলায় মুরুং ঝর্ণা

  দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার নান্দনিক পর্যটন স্পটের নাম বান্দরবান জেলা

  বান্দরবানে রাতের আঁধারে ৪ হাজার ফলদ চারা নষ্ট গ্রেপ্তার-২

  বান্দরবানে পর্যটকবাহী গাড়িতে গুলি,কেএসমং মারমাকে প্রধান আসামি করে ২৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

  রাঙ্গামাটি,খাগড়াছড়ি ও বান্দরবানে এখন পর্যন্ত আশানুরূপ পর্যটক আসছেন না

  বৃহস্পতিবার থেকে ১১ দিন বান্দরবান থাকবেন পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর

  বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে ৫ কোটি টাকার ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার-১

  বান্দরবানে উদযাপিত হচ্ছে শুভ মধুপূর্ণিমা

  বান্দরবানে যাত্রীবাহী গাড়িতে বন্দুকধারীদের হামলা, যা জানা গেল

  পাহাড়ে পাহাড়ে সোনালি ধানের ঝিলিক

  নিখোঁজ কৃষ্ণাতি ত্রিপুরার খোঁজ মেলেনি ৫ দিনেও

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?