বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ০৩:৫৭:৫২

এলিটার ছাড়পত্র নিয়ে চিন্তায় বাফুফে

এলিটার ছাড়পত্র নিয়ে চিন্তায় বাফুফে

ডেস্ক রির্পোট:- সাফে খেলার ছাড়পত্র এখনো পাননি এলিটাসাফে খেলার ছাড়পত্র এখনো পাননি এলিটা। ছবি: বাফুফে যেকোনো টুর্নামেন্টের আগে সংবাদ সম্মেলন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) এক অলিখিত রীতি। এই সংবাদ সম্মেলনে সাধারণত মূল দলটাও ঘোষণাটাও এই রীতির এক অংশ। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে খেলতে যাওয়ার আগে দল ঘোষণার রীতিটা এবার ভাঙল। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে খেলতে আগামীকাল মালদ্বীপে যাচ্ছে বাংলাদেশ দল। আজ দুপুরে ফেডারেশন ভবনে সংবাদ সম্মেলনে সাফের ২৩ সদস্যের দল ঘোষণার কথা থাকলেও সেই ঘোষণাটা আপাতত সন্ধ্যায় অনুশীলন পর্যন্ত পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফিফার ছাড়পত্র না পাওয়ায় এলিটা কিংসলেকে সাফের চূড়ান্ত দলে রাখা হবে কিনা তা নিয়ে এখনো দ্বিধায় বাফুফের জাতীয় দল কমিটি। এই বছরের মাঝামাঝি সময়ে নাইজেরিয়ার নাগরিকত্ব ছেড়ে বাংলাদেশের পাসপোর্ট পাওয়ার পর থেকেই এলিটাকে জাতীয় দলে পাওয়ার স্বপ্ন দেখছে বাফুফে। মাঝে ক্লাব বসুন্ধরা কিংসের হয়ে এএফসি কাপে খেলতে মালদ্বীপে গিয়েও এএফসির ছাড়পত্র না পাওয়ায় খেলতে পারেননি এলিটা। এই সমস্যা এবার সাফের আগে বাফুফের ঘাড়ে সওয়ার। এএফসি ছাড়পত্র দিল কিনা কিংবা বাফুফের কূটনীতির জোর আসলে কতটা শক্তিশালী তাঁর প্রমাণ পাওয়া যাবে আজ সন্ধ্যার পর। আজ-কালের মধ্যে এএফসির ছাড়পত্র না পেলেও এলিটাকে নিয়ে মালদ্বীপে যেতে চায় বাংলাদেশ। ১ অক্টোবর শ্রীলঙ্কা ম্যাচের আগের দিন অর্থাৎ ৩০ সেপ্টেম্বর প্রাথমিক দল থেকে যে কাউকে মূল দলে অন্তর্ভুক্ত করা যাবে বলে জানিয়েছেন সাফে জাতীয় দলের ম্যানেজার সত্যজিৎ দাস রুপু। তবে শ্রীলঙ্কা ম্যাচের আগে যদি এএফসির ছাড়পত্র না পান এলিটা তাহলে সাফের দল থেকেও বাদ পড়ে যাবেন সাবেক এই আফ্রিকান ফরোয়ার্ড। এলিটা মালদ্বীপে যাচ্ছেন কিনা সেটা জানা আজ সন্ধ্যায় দল ঘোষণার পর। দল ঘোষণার দেরি হওয়ার পেছনে আরেকটি কারণের কথা জানালেন সত্যজিৎ দাস রুপু। আজ ফুটবলারদের করোনা পরীক্ষা করানো হয়েছে। করোনা পরীক্ষার ফলাফলের ওপর ভিত্তিতে দল সাজানোর কথা জানালেন সত্যজিৎ দাস রুপু।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?