বুধবার, ২১ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

সোমবার, ২৯ জুলাই, ২০১৯, ০১:০৮:৪৯

অপেক্ষার পালা শেষ হলো শ্রীলংকার

অপেক্ষার পালা শেষ হলো শ্রীলংকার

স্পোর্টস ডেস্কঃ-অবশেষে অপেক্ষার পালা ফুরালো শ্রীলংকার। সাড়ে তিন বছরের বেশি সময় পর দেশের মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ জয়ের স্বাদ নিলো লংকানরা। গতরাতে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বাংলাদেশকে ৭ উইকেটে হারায় লংকানরা। এই ম্যাচ জিতে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ জয়ও নিশ্চিত করে ফেলে শ্রীলংকা। সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ৯১ রানে জিতেছিলো দিমুথ করুনারত্নের দল।
দেশের মাটিতে শ্রীলংকার সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজ জয় ছিলো ২০১৫ সালের নভেম্বরে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে জিতেছিলো শ্রীলংকা। এরপর ছয়টি সিরিজ দেশের মাটিতে খেলে লংকানরা। কিন্তু কোনটিই জিততে পারেনি তারা। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জয়ের পর অস্ট্রেলিয়ার কাছে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৪-১ ব্যবধানে হার, বাংলাদেশের সাথে তিন ম্যাচের সিরিজ ১-১ এ সমতা, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের সিরিজের ৩-২ ব্যবধানে হার, ভারতের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৫-০ ব্যবধানে হার, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৩-২ ব্যবধানে হার এবং ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৩-১ ব্যবধানে হারে শ্রীলংকা। অশেষে অপেক্ষার পালা ফুরালো শ্রীলংকার। সাড়ে তিন বছরের বেশি সময় পর দেশের মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ জয়ের স্বাদ নিলো লংকানরা। গতরাতে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বাংলাদেশকে ৭ উইকেটে হারায় লংকানরা। এই ম্যাচ জিতে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ জয়ও নিশ্চিত করে ফেলে শ্রীলংকা। সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ৯১ রানে জিতেছিলো দিমুথ করুনারত্নের দল।
দেশের মাটিতে শ্রীলংকার সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজ জয় ছিলো ২০১৫ সালের নভেম্বরে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে জিতেছিলো শ্রীলংকা। এরপর ছয়টি সিরিজ দেশের মাটিতে খেলে লংকানরা। কিন্তু কোনটিই জিততে পারেনি তারা। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জয়ের পর অস্ট্রেলিয়ার কাছে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৪-১ ব্যবধানে হার, বাংলাদেশের সাথে তিন ম্যাচের সিরিজ ১-১ এ সমতা, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের সিরিজের ৩-২ ব্যবধানে হার, ভারতের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৫-০ ব্যবধানে হার, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৩-২ ব্যবধানে হার এবং ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৩-১ ব্যবধানে হারে শ্রীলংকা।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?