শনিবার, ২০ জুলাই ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ১৫ জুন, ২০১৯, ০৪:৪৩:২২

মনিকা চাকমার মতো আরো মনিকা তৈরিতে সেনাবাহিনীও কাজ করবে

মনিকা চাকমার মতো আরো মনিকা তৈরিতে সেনাবাহিনীও কাজ করবে

রাঙ্গামাটিঃ-নানিয়ারচর সেনা জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল মোঃ কাইয়ুম হোসেন পিএসসি বলেছেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের সুনাম অর্জনকারী ফুটবল খেলোয়াড় মনিকা চাকমার মতো আরো মনিকা তৈরীতে সেনাবাহিনীও কাজ করবে। পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়ন ও মানুষের জানমাল নিরাপত্তাসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় সেনাবাহিনী কাজ করে চলেছে। আর এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা বজায় থাকলে এলাকার উন্নয়ন তরান্বিত হয়।
শুক্রবার (১৪ জুন) বিকালে মাহাপুরম হীল গ্রীণ যুব সোসাইটি কর্তৃক আয়োজিত ফুটবল টুর্নামেন্ট এর সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মাহাপুরম হীল গ্রীণ যুব সোসাইটির প্রধান উপদেষ্টা সমাজ সেবক বিমল তালুকদার এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন, সাপ্তাহিক পাহাড়ের সময় এর সম্পাদক ও প্রকাশক মিলটন বড়ুয়া। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাহাপুরম হীল গ্রীণ যুব সোসাইটি এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সুনীতি আলো চাকমা। অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন ক্রীড়া সম্পাদক জীবন্ত চাকমা।
প্রধান অতিথি আরো বলেন, বিনোদনের একটি সুন্দর মাধ্য ফুটবল খেলা। আমিও সৌভাগ্যবান যে, এ টুর্নামেন্টের সমাপনীতে আসতে পেরে। ভবিষ্যতে এ ধরনের ফুটবল টুর্নামেন্ট আয়োজন করা হলে সহযোগীতার করা হবে বলে আশ্বাস দেন। তিনি এলাকার উন্নয়নে সোসাইটির প্রধান উপদেষ্টার আবেদনগুলো যতটুকু সম্ভব সহযোগীতা করা হবে বলেও উল্লেখ করেন।
অপরদিকে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পাহাড়ের সময় এর সম্পাদক ও প্রকাশক মিলটন বড়ুয়া বলেন, সরকার যেভাবে পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়ন করছে তাতে এখানকার মানুষ প্রশান্তিতে থাকতে পারে। কিন্তু প্রত্যেককেই খেয়াল রাখতে হবে এলাকার শান্তি পরিবেশটায় যাতে বিঘ্ন না ঘটে। কেননা শান্তি বিঘ্নিত হলে প্রশান্তিটা দূরে চলে যায়। তাই সকলেই মিলে শান্তিটাকে আনতে হবে। এসময় তিনি খেলায় বিজয়ী রিচিবিল বেতছড়ি দলকে ৩ হাজার ও রানার্স আপ সিকল পাড়া সমন্বয় ক্লাবকে ২ হাজার টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেন।
সভাপতির বক্তব্যে বিমল তালুকদার বলেন, রামহরি পাড়া এলাকার কিছু রাস্তা এবং একটি কালর্ভাট করা হলে স্কুল পড়ুয়া ছেলে মেয়েদের জন্য উপকার হবে সেই সাথে কৃষিপণ্যে উন্নয়ন ঘটবে। তিনি এসব উন্নয়নে সেনাবাহিনীর সহযোগীতা কামনা করেন।
খেলায় সিকল পাড়া সমন্বয় ক্লাবকে ৬-০ গোলে হারিয়ে রিচিবিল বেতছড়ি দল বিজয়ী হয়। পরে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি খেলোয়াড়দের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।
উল্লেখ্য, এ খেলায় ২৯টি দল অংশগ্রহণ করেন। গত ৩ মে খেলা শুরু হয় এবং ১৪ জুন সমাপনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শেষ হয়।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

এলডিপি সভাপতি অলি আহমদ বলেছেন, বাংলাদেশে এখন টাকা থাকলে সব রকম অন্যায় করে পার পাওয়া যায়। আপনি কি তা ঠিক মনে করেন?