বৃহস্পতিবার, ২১ জুন ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ১৩ মার্চ, ২০১৮, ০৮:০০:১৫

নেইমারকে ছাড়াই বিশ্বকাপ প্রস্তুতিতে ব্রাজিল

নেইমারকে ছাড়াই বিশ্বকাপ প্রস্তুতিতে ব্রাজিল

স্পোর্টস ডেস্কঃ-ইনজুরির কারণে বিশ্রামে থাকা নেইমারকে ছাড়াই বিশ্বকাপের প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে রাশিয়া ও জার্মানির বিপক্ষে দল ঘোষণা করেছে ব্রাজিল। নেইমার না থাকায় ব্রাজিলিয়ান কোচ তিতে জাতীয় দলে নতুনদের সুযোগ দিয়েছেন। আগামী ১৪ জুন রাশিয়ায় বিশ্বকাপ মিশন শুরু করার আগে ২৩ ও ২৭ মার্চ অনুশীলন ম্যাচ দুটি খেলবে ব্রাজিল।
ফেব্রুয়ারিতে প্যারিস সেন্ট-জার্মেইর (পিএসজি) হয়ে খেলতে গিয়ে পায়ে চোট পান নেইমার। তাই চোটে আক্রান্ত নেইমারকে ছাড়াই ব্রাজিলের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি সম্পন্ন করতে হচ্ছে। নেইমারের অনুপস্থিতি কিছুটা হলেও দলের ওপর প্রভাব ফেলেছে। পুরো পরিস্থিতি আরো একটু ভালভাবে পর্যবেক্ষণ করেই তিতে দল ঘোষণায় ১০ দিন সময় নিয়েছেন। অস্ত্রোপচারের কারণে অন্তত তিন মাস নেইমারকে বিশ্রামে থাকতে হবে। সে কারণেই ২৩ জনের পরিবর্তে তিতে ২৫ জনের তালিকা ঘোষণা করেছেন।
স্প্যানিশ দল রিয়াল সোসিয়েদাদের বিপক্ষে দারুণ একটি মৌসুম কাটানোর পুরস্কারস্বরুপ ২৬ বছর বয়সী স্ট্রাইকার উইলিয়ান জোসেকে জাতীয় দলে ডাকা হয়েছে। এদিকে তুরষ্কের বেসিকটাসের হয়ে নিজেকে প্রমাণ করা টালিসকাকে ২০১৪ সালে দুটি প্রীতি ম্যাচের পরে প্রথমবারের মত দলে ডাকা হয়েছে। তবে দলে অন্যতম বড় তারকা হিসেবে অনুপস্থিত আছেন জুভেন্টাসের লেফট ব্যাক অ্যালেক্স সান্দ্রো। তার পরিবর্তে তিতের ইচ্ছে অনুযায়ী অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের ফিলিপ লুইসকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।
জার্মানির বিপক্ষে বার্লিনে খেলতে যাবার আগে রাশিয়ার বিপক্ষে মস্কোতে মুখোমুখি হবে ব্রাজিল। রোস্তভে আগামী ১৭ জুন সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।
ব্রাজিল দল  
গোলরক্ষক : এ্যালিসন, নেটো, এডারসন
ডিফেন্ডার : দানিয়েল আলভেস, ফাগনার, ফিলিপ লুইস, মার্সেলো, মিরান্ডা, মারকুইনহোস, থিয়াগো সিলভা, জেরোমেল, রদ্রিগো কাইয়ো।
মিডফিল্ডার : কাসেমিরো, ফার্নান্দিনহো, ফ্রেড, পলিনহো, রেনাটো অগাস্তো, উইলিয়ান, ফিলিপ কুতিনহো, টালিসকা।
ফরোয়ার্ড : গ্যাব্রিয়েল জেসুস, রবার্তো ফারমিনো, ডগলাস কস্তা, উইলিয়ান জোসে ও টাইসন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?