সোমবার, ১১ ডিসেম্বর ,২০১৭

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০১৭, ০২:৪৫:৫৯

শান্তি চুক্তির ২০ বছর পূতি উপলক্ষে সেনা বাহিনীর উদ্যোগে জুরাছড়িতে প্রীতি ভলিবল ম্যাচ

শান্তি চুক্তির ২০ বছর পূতি উপলক্ষে সেনা বাহিনীর উদ্যোগে জুরাছড়িতে প্রীতি ভলিবল ম্যাচ

সুমন্ত চাকমা, জুরাছড়িঃ-পার্বত্য চট্টগ্রামের সেনা বাহিনী পাহাড়ীদের বিরুদ্ধে কাজ করে না। তারা বিরাজমান অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজদের প্রতিরোধে কাজ করে যাচ্ছে। এছাড়া পিছেয়ে পরা জনগোষ্ঠীর আত্ম সামাজিক উন্নয়নে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ ও প্রতিটি ক্যাম্পে ফ্রি মেডিক্যাল সেবা দিচ্ছে সেনা বাহিনী।
শনিবার জুরাছড়ি উপজেলায় সেনা বাহিনীর উদ্যোগে পার্বত্য শান্তি চুক্তির ২০ বছর পূতি উপলক্ষে প্রীতি ভলিবল ম্যাচে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জোন অধিনায়ক লেঃকর্ণেল কেএম ওবায়দুল হক একথা বলেন।
এ সময় তিনি আরো বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামকে একটি বিছিন্ন করার কিংবা সংবিধানের পরিপন্তি শায়িত্ত শাসনের দাবী কোন অবস্থাতে মেনে নেওয়ার নয়।
এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান উদয় জয় চাকমা বলেন, পার্বত্য শান্তি চুক্তি যাথাযথ ভাবে বাস্তবায়িত না হওয়াই জুম্ম জনগণ আজ উদ্বিগ্ন। পার্বত্য এলাকায় স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে শান্তি চুক্তি পুনাঙ্গ বাস্তবায়নের বিকল্প নেই।
উপজেলা কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত প্রীতি ভলিবল ম্যাচে উপজেলা পরিষদ একদশ ও সেনা বাহিনী একাদশ অংশগ্রহন করে। খেলায় দুই একে সেনা বাহিনীকে পরাজিত করে উপজেলা পরিষদ একদশ। তাদের মাঝে পুরুস্কার তুলে দেন জোন অধিনায়ক লেঃকর্ণেল কেএম ওবায়দুল হক। এ সময় জোন উপ অধিনায়ক মেজর মাহামুদুল হাসান, মেজর মীর তৈয়বুর রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান রিটন চাকমা, জুরাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান ক্যানন চাকমা, দুমদুম্যা ইউপি চেয়ারম্যান শান্তি রাজ চাকমাসহ স্থানীয় হেডম্যান-কার্ব্বারীগণ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য পার্বত্য শান্তি চুক্তির ২০ বছর পূতি উপলক্ষে সকালে বনযোগীছড়া ইউনিয়নে বণাঢ্য র‌্যালী, আলোচনা সভা এবং সন্ধ্যায় সকলের উম্মুক্ত চলচিত্র প্রদর্শনী করা হয়।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

পুলিশের আইজিপি এ কে এম শহিদুল হক বলেছেন, ‘দেশকে জঙ্গি, মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত করতে হলে পুলিশের পাশাপাশি জনগণকে কাজ করতে হবে।’ আপনিও কি তাই মনে করেন?