শনিবার, ২৫ নভেম্বর ,২০১৭

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ০৩ নভেম্বর, ২০১৭, ০৮:১৪:৪৫

জমজমাট লড়াইয়ের আশায় শনিবার শুরু বিপিএলের পঞ্চম আসর

জমজমাট লড়াইয়ের আশায় শনিবার শুরু বিপিএলের পঞ্চম আসর

স্পোর্টস ডেস্কঃ-বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) পঞ্চম আসর শুরু হচ্ছে শনিবার। এদিন সিলেট স্টেডিয়ামে শুরু হবে ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক এই টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট। দেশ বিদেশের তারকা ক্রিকেটারের উপস্থিতিতে জমজমাট হয়ে ওঠবে বিপিএল, এমনটিই আশা করছেন সবাই।
শনিবার শুরুর পর থেকে সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে ১১ নভেম্বর পর্যন্ত মোট ৮টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। এরপর ঢাকার শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ৮ দিনে হবে ১৬টি ম্যাচ। ঢাকায় প্রথম দফায় খেলা শেষ হওয়ার পর বিপিএল যাবে চট্টগ্রামে। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ২৯ নভেম্বর পর্যন্ত হবে ১০টি ম্যাচ। ২ ডিসেম্বর পর্যন্ত ঢাকায় দ্বিতীয় দফায় ফিরবে বিপিএল। ফাইনালসহ বাকি ম্যাচগুলো শেরে বাংলা স্টেডিয়ামেই অনুষ্ঠিত হবে।
উদ্বোধনী দিনে দুটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। বিকেল ৪টায় সিলেট সিক্সার্সের মুখোমুখি হবে ঢাকা ডায়নামাইটস। আর রাত ৮টায় দ্বিতীয় ম্যাচে রাজশাহী কিংস খেলবে রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে।
রংপুর রাইডার্স অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা দুর্দান্ত এক টুর্নামেন্ট আশা করছেন। বিপিএলের পঞ্চম আসরকে সামনে রেখে সিলেটে সংবাদ মাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘সিলেট সবসময়ই আমার প্রিয় ভেন্যুর মধ্যে একটি। কারণ পারিপার্শ্বিকতা মিলিয়ে জায়গাটি সুন্দর। ঘোরার মতো জায়গা আছে। সুন্দর হোটেল আছে। স্টেডিয়ামটা দেখতেও বিদেশি স্টেডিয়ামের মতো। যেটা আমার কাছে মনে হয় আমাদের দেশের জন্য অনন্য। সব মিলিয়ে খুব ভাল পরিবেশ।’
এদিন সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হন ঢাকা ডায়নামাইটস অধিনায়ক সাকিব আল হাসান এবং খুলনা টাইটান্স অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও।
৫ নভেম্বর ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ খুলনা টাইটান্সের। দলটির কোচ শ্রীলঙ্কার সাবেক লিজেন্ড ব্যাটসম্যান মাহেলা জয়াবর্ধনে। সবমিলিয়ে এই ম্যাচকে সামনে রেখে তিনি বলেন, ‘নতুন করে শুরু করতে হবে এই টুর্নামেন্ট। এখন শুধু চিন্তা করছি দল হিসেবে আমরা কতটা ভালো খেলতে পারি। কতটা উন্নতি করতে পারি। মাহেলা কোচ হিসেবে দারুণ। তাঁর সঙ্গে কাজ করে আমরা অনেক খুশি। সবাই জানি তাঁর ক্রিকেটীয় মস্তিষ্ক কতটা অসাধারণ। আশা করি, অনেক কিছু শিখতে পারব, জানতে পারব। ভবিষ্যতে যেটা কাজে লাগবে।’

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

পুলিশের আইজিপি এ কে এম শহিদুল হক বলেছেন, ‘দেশকে জঙ্গি, মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত করতে হলে পুলিশের পাশাপাশি জনগণকে কাজ করতে হবে।’ আপনিও কি তাই মনে করেন?