Chtnews24.com
প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনায় বাঘাইছড়িতে মুনিরিয়া তবলীগ কমিঠির মানবন্ধনঃ রাউজান জুড়ে বর্বরতা বন্ধের দাবী
Monday, 22 Jul 2019 12:33 pm
Reporter :
Chtnews24.com

Chtnews24.com

বাঘাইছড়িঃ-চট্রগ্রাম জেলার রাউজানে তিন মাস ধরে চলা নারকীয় সন্ত্রাস, কাগতিয়া মাদরাসার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র বন্ধ করা এবং ষড়যন্ত্রমুলক মিথ্যা মামলা প্রত্যহার অযথা হয়রানি অবসানের ব্যাপারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি হস্তক্ষেপ কামনা করে মানববন্ধন করেছে মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটির উদ্যোগে বাঘাইছড়ি মারিশ্যা ১৪৩ নং শাখা।
সোমবার (২২জুলাই) সকালে বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদের সামনে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন,বাঘাইছড়ি ছাত্রসেনা প্রতিষ্টাতা সভাপতি হাজি মুহাম্মদ ইউছুফ, বাঘাইছড়ি মারিশ্যা ১৪৩ নং শাখার কৃষকলীগ সভাপতি ও মুনিরিয়া তবলীগ কমিটির সভাপতি মোঃ ওসমান গনি। সভা সমাপ্তি ঘোষনা করেন, বাঘাইছড়ি সহকারী কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা মো আবদুল হালিম।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বিগত তিন মাস ধরে রাউজান জুড়ে যে বর্বরতা চলছে সেটা যেন পাকিস্তানি হানাদারদের নতুন অভিপ্রায়। বাড়ী ঘর লুটপাট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ধ্বংস, নিরীহ মানুষকে শারীরিক ও মানসিকভাবে লাঞ্চিত করা- কি হচ্ছে না এখন রাউজানে।
এই তান্ডবলীলার জন্য সাধারণ মানুষ আজ গৃহহারা। মিথ্যা মামলার কারণে শতশত মানুষ পরিবার-পরিজনকে ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে অথচ তাদের বিরুদ্ধে আগে একটি জিডিও ছিলনা।
স্থানীয় এমপি ফজলে করিমের নির্দেশে চলমান এ নৈরাজ্য দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে। মানুষের জানমালের নেই কোন ধরণের নিরাপত্তা। যে রাউজানের ইতিহাস স্মরণ করলে মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়ত সেই রাউজানকে যে মহান মনিষী আধ্যাত্মিক ক্ষমতায় এবং চোখের জলের বিনিময়ে শান্ত করেছেন, আজ অত্যন্ত দুখের বিষয় হল- উনার দরবার শরীফ এবং মাদরাসার বিরুদ্ধে হচ্ছে গভীর ষড়যন্ত্র। এ ষড়যন্ত্রের মূল কারণ স্পষ্ট- যুবকেরা যখন দলে দলে দরূদ পড়তে লাগল তখন অনেকের মন খুব খারাপ হয়ে গেল, কারণ অন্যের সন্তানের কাঁধে অস্ত্র তুলে দিয়ে নিজের আধিপত্য বিস্তার করার সুযোগটা কমে গেল। রাউজানে কার ইতিহাস কি তা সবাই জানে? এখন কৌশল পাল্টিয়ে কারা মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি হিসাবে নিজেকে দাঁড় করাচ্ছে তা সবাই জানে। বক্তারা আরো বলেন, স্থানীয় এমপির ঔদ্ধত্য আজ সহ্যসীমার বাইরে। এত অত্যাচার নির্যাতন চলছে কিন্তু মিডিয়াতে তা আসতে দিচ্ছেনা, গণমাধ্যমের কোন কর্মীকে রাউজানে যেতে দিচ্ছেনা। এমনকি থানা পুলিশ ও আদালত মামলা নিচ্ছেনা তার প্রভাবে। অথচ যারা নৈরাজ্য সংঘটিত করছে তাদের মিথ্যা মামলা গ্রহণ করা হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর যে মিশন-ভিশন তাকে যেন রাউজানে গলা টিপে হত্যা করা হচ্ছে।
এছাড়াও প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট রাউজানে শান্তি-শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করার দাবি জানানো হয়।