Chtnews24.com
জাতীয় পর্যায়ের দেশের শ্রেষ্ঠ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ সাইফুল ইসলাম
Sunday, 30 Jun 2019 21:19 pm
Reporter :
Chtnews24.com

Chtnews24.com

লংগদুঃ-দেশ সেরা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নির্বাচিত হলেন লংগদু’তে কর্মরত মো: সাইফুল ইসলাম। জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০১৯ এ জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় দেশের শ্রেষ্ঠ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নির্বাচিত হয়েছেন রাঙ্গামাটি জেলা’র লংগদু উপজেলায় কর্মরত উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো: সাইফুল ইসলাম।
শিক্ষা মন্ত্রী ডা: দীপু মনি গত ২৬ জুন ঢাকা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউশন এ দেশের শ্রেষ্ঠ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার হিসেবে তার হাতে সম্মাননা স্মারক ক্রেষ্ট, সার্টিফিকেট এবং মেডেল তুলে দেন।
উল্লেখ্য যে, ২০১৮ সালের জানুয়ারীতে তিনি লংগদু উপজেলায় যোগদানের পর এই অনগ্রসর পিছিয়ে পরা দূর্গম পাহাড়ি এলাকায় শিক্ষার মানোন্নয়নে নানমূখী কার্যক্রম শুরু করেন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহ নিয়মিত পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় সমস্যাগুলো চিহ্নিত করেন এবং প্রতিষ্ঠান প্রধানদের সমন্বয়ে প্রয়োজনীয় সমাধানের কার্যক্রম শুরু করেন।
তিনি লক্ষ্য করেন যে, উপজেলায় ১০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাল্টিমিডিয়া সরঞ্জামাদি থাকলেও মাল্টিমিডিয়া ব্যবহার করে ডিজিটাল কন্টেন্ট এর মাধ্যমে পাঠদান সম্পূর্ণ অনুপস্থিত। তিনি প্রতিষ্ঠান প্রধান এবং প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার চালনা করতে জানা শিক্ষকদেরকে নিয়ে শুরু করেন প্রশিক্ষণ কার্যক্রম।
শিক্ষা অফিসার মো: সাইফুল ইসলাম আরো জানায়, তিনি কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার অন্তর্গত হোসেনপুর গ্রামের আলী আহম্মদ এর সন্তান। ছাত্র জীবনে তিনি বিজ্ঞান বিভাগের মেধাবী ছাত্র হিসেবে এসএসসি ও এইচএসসিতে প্রথম বিভাগে উত্তীর্ণ হওয়া এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গণিতে অনার্সে দ্বিতীয় এবং মাস্টার্স এ প্রথম শ্রেণি পেয়েছেন। ব্যাক্তিগত জীবনে তিনি বিবাহিত। এক স্ত্রী ও দুই (এক ছেলে এক মেয়ে) সন্তানের পিতা তিনি। চাকুরী জীবনে পূর্বতন কর্মস্থল চট্টগ্রামের রাউজান এ দীর্ঘদিন কর্মরত থাকা অবস্থায় তিনি সেখানকার প্রায় ৭৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষায় তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারে অনন্য ভূমিকা রাখেন এবং রাউজান উপজেলাকে অনেকটা অঘোষিতভাবে শিক্ষায় তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারে মডেল উপজেলায় পরিণত করেন।
জানা যায় তিনি শ্রেণি কক্ষে শিখন শিখানো কার্যক্রম, পাঠদান পদ্ধতিকে বিশেষ গুরুত্ব¡ দিয়ে শিক্ষার্থীদেরকে অংশ গ্রহণমূলক করার ক্ষেত্রে বিশাল ভূমিকা  রাখেন যাতে শিক্ষার্থীরা কোন কিছু শিখার ক্ষেত্রে, বুঝার ক্ষেত্রে এবং নিজেরা যাতে সৃজনশীল কার্যক্রম অনুশীলন করে।
তিনি জানালেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র দশ উদ্যোগ এর “শিক্ষা সহায়তা কর্মসূচি” ব্রান্ডিং এর অংশ হিসেবে বাংলাদেশ বেতার, রাঙ্গামাটি কেন্দ্রে কয়েকটি আলোচনা অনুষ্ঠানে রিসোর্স পারসন হিসেবে তিনি অংশ গ্রহণ করেন। এর মধ্যে-শিক্ষা খাতে উন্নয়ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার, খেলতে খেলতে শিক্ষা, টেকসই উন্নয়নে মানসম্মত শিক্ষা (এজডিজি-৪) এবং শিক্ষায় ডিজিটালাইজেশনে করণীয় এবং প্রান্তিক অঞ্চলে শিক্ষার মানোন্নয়নে করণীয়” শীর্ষক অনুষ্ঠানে তিনি অংশ গ্রহণ করেন যা বেতারে সম্প্রচার হয়েছে।
সারা দেশে ডিজিটাল শিক্ষা অফিসার হিসেবে  খ্যাত এবং দেশে তথ্য প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করা  শিক্ষকদের আইসিটি ব্যবহারে নিয়মিত উংসাহিত করে অত্যন্ত জনপ্রিয় হওয়া এই কর্মকর্তা কাজের স্বীকৃতি হিসেবে তিনি ২০১৭ সালে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম, প্রধান মন্ত্রীর কার্যালয় এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত কক্সবাজার শিক্ষক সম্মেলনে” শিক্ষায় অসামান্য অবদান রাখার “এডুকেশন লীডারশীপ অ্যাওয়ার্ড -২০১৭” অর্জন করেন। তাছাড়া তিনি জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ -২০১৬ এবং ২০১৮ এ চট্টগ্রাম জেলা, চট্টগ্রাম বিভাগ এ শ্রেষ্ঠ উপজেলা মাধ্যমিক শিখা অফিসার নির্বাচিত হয়ে জাতীয় পর্যায়ে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেন। তিনি এডুকেশন লীডারশীপ এর উপর ফিলিপাইনে ২০১৬ সালে ১৫ দিনের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।
বর্তমানে তিনি নিয়মিত কাজের রুটিন কাজের পাশাপাশি এজডিজি-৪ বাস্তবায়নে কাজ করছেন এবং শিক্ষকদেরকে ডিজিটাল কন্টেন্ট তৈরী, ডিজিটাল কন্টেন্ট তৈরী, মুক্তপাঠ, কিশোর বাতায়ন, শিক্ষক বাতায়ন, শিক্ষা বিষয়ক ডকুমেন্টারি এবং শিক্ষা সংক্রান্ত ইনোভেটিভ আইডিয়া নিয়ে লেখালেখির মাধ্যমে সারাদেশের শিক্ষকদেরকে তিনি উৎসাহিত করছেন। শিক্ষা অফিসার মো: সাইফুল ইসলাম সকলের কাছে দোয়া কামনা করেছেন।