Chtnews24.com
বিএনপির মুখে দুর্নীতির কথা আর ‘ভুতের মুখে রাম নাম’ একই জিনিস-ওবায়দুল কাদের
Monday, 03 Jun 2019 19:27 pm
Reporter :
Chtnews24.com

Chtnews24.com

ডেস্ক রিপোর্টঃ-আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপি নেতাদের মুখে সরকারের দুর্নীতির কথা আর ভূতের মুখে রাম নাম একই জিনিস।’ তিনি বলেন, ‘যে দল ক্ষমতায় থাকাকালীন সময় দেশ তিনবার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে যাদের চেয়ারপারসন দুর্নীতির অভিযোগে বর্তমানে কারাবাস করছেন তারা কিভাবে সরকারের সমালোচনা করতে পারে!’
রবিবার দুপুরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মেঘনা টোল প্লাজা এলাকায় হাইওয়ে পুলিশ কমান্ড ও মনিটরিং সেন্টার উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ঢাকা-চট্টগাম মহাসড়কসহ দেশে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতির কারণে ইতিহাসের সবচেয়ে আরামদায়ক ও স্বস্তির ঈদযাত্রা হচ্ছে এবার। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের ফলে ঢাকা থেকে দেড় ঘণ্টায় কুমিল্লা এবং চার ঘণ্টায় চট্টগ্রামে যানবাহন পৌঁছাতে সক্ষম হয়েছে। গাজীপুর থেকে টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ সড়ক চারলেনে উন্নীত হওয়ায় উত্তর জনপদেও দুর্ভোগের অবসান হয়েছে। সড়ক-মহাসড়কের জন্য বাংলাদেশের কোথাও কোনও যানজট হচ্ছে না।’
এ সময় হাইওয়ে পুলিশের ডিআইজি আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও অংশ নেন ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি মো. হাবিবুর রহমান, সড়ক ও জনপথ বিভাগের ঢাকা বিভাগীয় অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আব্দুস সবুর খান, মুন্সীগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম(বার), নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ ও হাইওয়ে পুলিশের পুলিশ সুপার সফিকুল ইসলাম, গজারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান নেকি খোকনসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।
মন্ত্রী বলেন, ‘হাইওয়ে পুলিশের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল মহাসড়কগুলোতে মনিটরিং ও বিশ্রামের জন্য সেন্টার নির্মাণ করার। সেই প্রতীক্ষিত হাইওয়ে পুলিশের কমান্ড অ্যান্ড মনিটরিং কন্ট্রোল সেন্টার নির্মিত হয়েছে মেঘনা টোলপ্লাজায়। এখান থেকে মহাসড়কের যানজটসহ সার্বিক পরিস্থিতি মনিটরিং করা যাবে। পর্যায়ক্রমে দেশের সব মহাসড়কে হাইওয়ে পুলিশের জন্য মনিটরিং অ্যান্ড কমান্ড ভবন নির্মাণ করা হবে।’
মন্ত্রী বলেন, ‘মহাসড়কের যানবাহনের চালকদের বিশ্রামের জন্য বিশ্রামাগার নির্মাণ করা হবে।’ তিনি এজন্য মালিক-শ্রমিক নেতাদের মহাসড়কের পাশে জায়গা নির্বাচন করার আহ্বান জানান।
জঙ্গি হামলার শঙ্কা প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘জঙ্গিবাদ বৈশ্বিক সমস্যা। হলি আর্টিজানের ঘটনার পর জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় আমরা সক্ষমতা অর্জন করেছি। আসন্ন ঈদের জামাতকে কেন্দ্র করে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না। তবে আমাদের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তা মোকাবিলা করার জন্য তৎপর রয়েছে।’
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদী আবার ক্ষমতায় আসায় আগের চেয়ে বেশী শক্তি নিয়ে কাজ করতে পারবেন তিনি। তার এই মেয়াদেই তিস্তাসহ অভিন্ন সব নদীর পানি প্রবাহ ও বাবি সমস্যাগুলোর সমাধান হবে।’
আসন্ন ঈদে ঈদ যাত্রা ভোগান্তিমুক্ত হবে আশা করে মন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমানে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক দিয়ে গড়ে প্রায় প্রতিদিন চল্লিশ হাজার গাড়ি চলাচলের পর যানজট সৃষ্টি হচ্ছে না। হবার আশংকাও নেই।’
তিনি বলেন, ‘চার লেন সেতুর সুফল পাচ্ছে দেশবাসী।’ দুর্ঘটনা রোধে চালকদের সচেতন হয়ে গাড়ি চালানোর পরামর্শ দেন তিনি। এছাড়া সম্প্রতি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের গজারিয়া অংশের জামালদী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় কর্তব্যরত অবস্থায় বিপিএম পদকপ্রাপ্ত হাইওয়ে পুলিশ কনস্টেবল পারভেজ মিয়া সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হওয়া ও চিকিৎনাধীন অবস্থায় তার পা কেটে ফেলার খবরে দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি।
পরে মহাসড়কটির গজারিয়া অংশের জামালদী, ভবেরচর ও বাউশিয়া পাখির মোড়ে তিনটি ফুট ওভার ব্রিজ নির্মাণের ঘোষণা দেন মন্ত্রী।