Chtnews24.com
খাগড়াছড়িতে গণধর্ষনের ত্রিপুরা কিশোরী মৃত্যুঃ আদালতে ৩ যুবকের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি, জেল হাজতে প্রেরণ
Wednesday, 15 May 2019 20:09 pm
Reporter :
Chtnews24.com

Chtnews24.com

খাগড়াছড়িঃ-খাগড়াছড়িতে উপজাতীয় যুবকদের গণধর্ষনের ধনিতা ত্রিপুরা (১৭) নামে এক কিশোরীর মৃত্যুর ঘটনায় গ্রেফতার ৩ যুবক আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। বুধবার (১৫মে) দুপুরে খাগড়াছড়ি অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট রোকেয়া আক্তারের আদালতে কম্বল ত্রিপুরা (১৯), রুমেন ত্রিপুরা (২২) ও কিরণ ত্রিপুরা (২০) এ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।
আদালত বিরতীহীনভাবে দুপুর ১২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ৫ ঘন্টা ধর্ষকদের জবানবন্দি গ্রহন শেষে আসামীদের জেল হাজতে প্রেরণের নিদের্শ প্রদান করেন।
এর আগে সোমবার (১ মে) দিবাগত রাতে খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার ভাইবোন ছড়ার বড় পাড়া গ্রামে মা-বাবার অনুপস্থিতিতে সুযোগে তিন যুবকের গণধর্ষণের ধনিতা ত্রিপুরার মৃত্যু হয়। পরের দিন দুপুরে পুলিশ ঐ কিশোরীর লাশ উদ্ধার করে। এলাকাবাসীর সহযোগিতায় ৩ ধর্ষককে পুলিশ গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। এ ঘটনায় কিশোরী মা স্বরলেখা ত্রিপুরা বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেন।
খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাহাদাৎ হোসেন টিটো জানান, কিশোরী ধনিতা ত্রিপুরাকে বাসায় একা রেখে নল মোহন ত্রিপুরা ও স্বরলেখা ত্রিপুরা সোমবার (১৩ মে) জুম চাষের জন্য দীঘিনালা যায়। সে সুযোগে ঐদিন রাত সাড়ে ৮টায় তিন যুবক মদ্যপ অবস্থায় বাসায় যায় এবং ধর্ষক কমল ত্রিপুরা কিশোরীর মা স্বরলেখা ত্রিপুরাকে ফোন করে মেয়েকে তার কাছে বিয়ে দেয়াার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ফোন কেটে দেয় এবং রাত ১২টার দিকে ৩ যুবক একে একে কিশোরীকে ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে কিশোরী মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লে ধর্ষকরা পালিয়ে যায়।
মঙ্গলবার (১৪ মে) ৯টার দিকে প্রতিবেশীরা খোঁজ নিতে গিয়ে ধনিতা ত্রিপুরার লাশ বিছানার উপর পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।
স্বরলেখা ত্রিপুরা জানান, দীর্ঘদিন থেকে এলাকার কিছু বখাটে কম্বল ত্রিপুরার সাথে তার কিশোরী মেয়ে ধনিতা ত্রিপুরার বিয়ে দেওয়ার চাপ দিয়ে আসছিল।