Chtnews24.com
কাকে দেখতে চান থানচিবাসী উপজেলা চেয়ারম্যান
Tuesday, 08 Jan 2019 18:23 pm
Reporter :
Chtnews24.com

Chtnews24.com

শহিদুল ইসলাম (শহিদ), থানচিঃ-জাতীয় সংসদ নির্বাচন শেষে এবারে শুরু হচ্ছে উপজেলা নির্বাচন। আর সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী মার্চে নির্বাচন অনুষ্টিত হওয়ার কথা শোনা যাচ্ছে। এদিকে বান্দরবানের থানচি উপজেলা বিভিন্ন চায়ের দোখানে চায়ের কাপের চুমুকে আড্ডার ফাঁকে চলছে কথা কে হবে থানচি উপজেলা চেয়ারম্যান। কাকে ভোট দিলে বর্তমান সরকারের কোটি কোটি টাকা উন্নয়ন প্রকল্পের বাস্তবায়নে ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে এই নিয়ে বহু হিসাব নিকাশ চলছে সাধারণ জনগন ও আওয়ামীলীগ বিএনপি নেতা কর্মীদের মাঝে।
সুত্রে জানা যায়, বলিপাড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান প্রয়াত শৈহ্লাপ্রু হেডম্যানের পুত্র, বলিপাড়া বাজার চৌধুরী এবং বর্তমান হেডম্যান ও সাবেক বলিপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি বাশৈচিং হেডম্যান ১৯৯০ দশকের সময় উপজেলা নির্বাচনে বিপুল ভোটে ব্যবধানে জয়ী হলেও তৎকালিন এরশাদ সরকার ৩৬২নং হেডম্যান হ্লাফসুকে বিজয়ী ঘোষনা করে বলে জানা যায়। অপর দিকে জানা যায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে ২০০৯ সালে বিপুল ভোটে ব্যবধানে নির্বাচনের ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে বিজয়ী হলেন অলসেন ত্রিপুরা, দীর্ঘ পাঁচ বছর জনগনের সেবা পেয়ে ২০১৪ সালে স্বতন্ত্রভাবে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করলে সে ৪জন প্রার্থী মধ্য থেকে তৃতীয় স্থানে অধিষ্টিত হয় সে সময় আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী বর্তমান বান্দরবান জেলা পরিষদের সদস্য ও আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক থোয়াইহ্লামং মারমা ৪র্থ স্থানে হয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমা নিকট হেরে যায়।
 অন্যদিকে ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রভাশালী হেভিওয়েট প্রার্থী মংথোয়াইম্যা মারমা (রনি) সরে দাঁড়ান সে সময় বিএনপি মনোনীত প্রার্থী  খামলাই ম্রো বিজয়ী হন উনার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বর্তমান চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমা অল্প ভোটের ব্যবধানে হেরে যান।
আর এ বিষয়ে আওয়ামীলীগের প্রবীণ নেতা স্বপন কুমার বিশ্বাস জানান, দল যাকে মনোনয়ন দিবে তার পক্ষে কাজ করব। আর উপজেলা বিএনপি সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান খামলাই ম্রো উপজেলা সদরে না থাকায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হইনি। তবে বিএনপি নেতা জসিম উদ্দিন থেকে জানতে চাইলে তিনি জানান, নির্বাচনে আমাদের খামলাই বাবু অংশ নিবেন কিনা তা এখনো নিশ্চিত নই।
তবে সুত্রে যানা যায়, বাশৈচিং হেডম্যান আর অলসেন ত্রিপুরা দুইজনের মধ্যে যে কেউ প্রার্থী হলে ১৯/২০ অবস্থানে থাকবে, বর্তমানে আওয়ামীলীগের দুই নেতা রয়েছে তাদেরকে যদি মনোনয়ন দেয় নির্বাচনে অংশ নিবেন কিনা জানতে চাইলে ফোনে যোগাযোগ করা হলে বাশৈচিং হেডম্যান জানান, ১৮ বছর ধরে দলের দুঃসময়ে আমি ছিলাম এখন ও আছি ভবিষ্যতে ও থাকবো। উপজেলা নির্বাচনে যদি তৃণমূল পর্যায়ের নেতারা মনে করেন নির্বাচন করলে আমি শতভাগ নিশ্চিত ভোটে বিজয়ী হবো তাহলে আমি নির্বাচনে প্রার্থী হবো।
উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও মন্ত্রী প্রতিনিধি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী মংথোয়াই ম্যা (রনি) এর সাথে ফোনে যোগাযোগ করতে চাইলে সংযোগ ব্যস্ত থাকায় তার মন্তব্য নেওয়া সম্ভব হইনি। তবে কথা যাই হউক যেই প্রার্থী উপজেলার জনসাধারনের মন জয় করতে পারবে সেই হবে আগামীর থানচি'র উপজেলা চেয়ারম্যান।