Chtnews24.com
বান্দরবানের পুলিশ সুপারের কাছ থেকে সফলতার স্বীকৃতি পেলেন মোঃ সাদ্দাম হোসেন
Monday, 09 Jul 2018 20:21 pm
Reporter :
Chtnews24.com

Chtnews24.com

বান্দরবানঃ-বান্দরবান পার্বত্য জেলার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় জেলা পুলিশ দিন-রাত অপ্রাণ চেষ্টা করে আসছে। যার ফলে বান্দরবান জেলা শান্তি ও সম্প্রতির বান্দরবানে পরিণত হয়েছে। জেলার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য মাঠ পর্যায়ে কর্মরত পুলিশ সদস্যরা নানা ধরনের প্রযুক্তিগত সহায়তা নিচ্ছে।
তারই ধারাবাহিকতায় পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার এর নির্দেশনায় বান্দরবান সদর থানার সহকারী পুলিশ পরির্র্দশক (এসআই) অজয় দেব শীল ও বান্দরবান পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের আইসিটি শাখায় কর্মরত কনষ্টেবল/১৫৯৮ মোঃ সাদ্দাম হোসেন তার প্রযুক্তিগত দক্ষতা ব্যবহার করে ও অপারেশনে সক্রিয় অংশ গ্রহন করে বান্দরবান সদর থানার মামলা নং-১১, তাং-২২/০৬/২০১৭ খ্রিঃ, ধারা-৪৫৪/৩৮০ গত ১৭/০৫/২০১৮ খ্রিঃ সন্ধিগ্ধ আসামী মোঃ হাসানকে খাগড়াছড়ি দীঘিনালা থানার বোয়ালখালী ইউনিয়নের গুরু বাজার এলাকা হতে অত্র মামলার চোরাইকৃত HUAWEI মোবাইল সেট, যার মডেল নং-Y611 উদ্ধার পূর্বক গ্রেফতার করা হয়।
উক্ত আসামীর দেওয়া তথ্য মতে অপর সন্ধিগ্ধ আসামী মোঃ সোলাইমানকে খাগড়াছড়ি সদর থানাধীন চেঙ্গিস স্কয়ার মোড় থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরবর্তীতে আসামীদ্বয়দের সম্পূর্কে জানা যায় তাদের বিরুদ্ধে খাগড়াছড়ি জেলার সদর থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।
আজ সোমবার সকালে বান্দরবান পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত অপরাধ সভায় পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার এসআই/ অজয় দেব শীল ও কনষ্টেবল/ মোঃ সাদ্দাম হোসেনের কাজে খুশি হয়ে পুরস্কৃত করেন এবং ভবিষ্যতে আরো ভালো কাজ করার জন্য উৎসাহিত করেন।
বান্দরবান পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের আইসিটি শাখায় কর্মরত কনষ্টেবল/১৫৯৮ মোঃ সাদ্দাম হোসেন বলেন, আমি মামলাটা রুজু হওয়ার পরপরই যখন পুলিশ অফিসে আইসিটি শাখায় সদর থানা থেকে প্রেরণ করা হয়। মামলাটি আমার হাতে আসার পর আমি এটি বিভিন্ন প্রযুক্ত ব্যবহারের মাধ্যমে গুরুত্বসহকারে কললিষ্ট এনালাইসেস্ করে আসামীর অবস্থান নিশ্চিত করে বান্দরবান সদর থানা সহকারী পুলিশ পরিদর্শক অজয় দেব শীল’র সাথে খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা উপজেলা বোয়ালখালী ইউপির গুরু বাজার এলাকা হতে অত্র মামলার চোরাইকৃত HUAWEI এন্ড্রয়েড মোবাইল সেট, যার মডেল নং-Y611 উদ্ধার করি এবং আসামীকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তিনি আরো বলেন, যে কোন ধরনের অপরাধের রহস্য উদ্ঘাটনে প্রযুক্তিগত সহযোগিতা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে।
বান্দরবান সদর থানার তথ্যেমতে মামলা নং-১১, তাং-২২/০৬/২০১৭ খ্রিঃ, ধারা-৪৫৪/৩৮০ মামলাটি রুজু হয়েছিল।