সোমবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ০৮ অক্টোবর, ২০১৮, ০৭:৩৬:৩১

খালেদা জিয়ার প্রধান শারীরিক সমস্যা গেটে বাত-মেডিকেল বোর্ড

খালেদা জিয়ার প্রধান শারীরিক সমস্যা গেটে বাত-মেডিকেল বোর্ড

ডেস্ক রিপোর্টঃ-কারাবন্দি বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শারীরিক প্রধান সমস্যা গেটে বাত। চিকিৎসা শুরু হতে আরো অন্তত দুই সপ্তাহ সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন মেডিকেল বোর্ডের সদস্য অধ্যাপক ডা. সৈয়দ আতিকুল হক।
সোমবার দুপুর ১টার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) খালেদা জিয়ার কেবিনে যান মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা।
পরে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান বোর্ডের সদস্য হাসপাতালের রিউম্যাটোলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. সৈয়দ আতিকুল হক।
ডা. সৈয়দ আতিকুল হক বলেন, ‘খালেদা জিয়ার মূল চিকিৎসা শুরুর আগে আমাদের দুই সপ্তাহ প্রাথমিক পরীক্ষা করা লাগবে। আমরা এরই মাঝে কিছু পরীক্ষা দিয়েছি। সেগুলোর রিপোর্ট আসার পর মূল চিকিৎসা শুরু হবে। তবে ডায়াবেটিস না কমলে তাঁর মূল চিকিৎসা শুরু করা যাবে না। তাই দুই সপ্তাহ পরই যে চিকিৎসা শুরু হবে সেটি এখনো বলা যাচ্ছে না। যে সমস্যাগুলো আছে সেগুলোর নিয়ন্ত্রণ এলে তখন মূল চিকিৎসা শুরু হবে।’
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছর কারাদণ্ড পেয়ে গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে বন্দি রয়েছেন খালেদা।

এই বিভাগের আরও খবর

  নির্বাচনে কয়েকটি বড় দলের অংশ না নেয়া হতাশাজনক-সিইসি

  বিএনপি একটি জনবিচ্ছিন্ন দল হয়ে গেছে-হানিফ

  বিএনপি ও জামায়াতের চিন্তা-চেতনা একই-সেতুমন্ত্রী

  প্রধানমন্ত্রী চাইলেই মুক্তি পাবেন খালেদা জিয়া-রিজভী

  নারী আসনে মনোনয়নপত্র জমা ৪৯ প্রার্থীর

  খালেদা জিয়ার পা ফুলে গেছে, চোখেও প্রচণ্ড ব্যথা-রুহুল কবির রিজভী

  বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার কারাবাসের এক বছর

  বিএনপি নিজেদেরকে নিয়েই সন্দিহান-তথ্যমন্ত্রী

  সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা শেষে এরশাদ দেশে ফিরেছেন

  নিরীহ মানুষও দুদকের মিথ্যা মামলা থেকে রেহাই পাচ্ছে না-রুহুল কবির রিজভী

  গণভবনে না গিয়ে বিএনপি আলোচনার একটি সুযোগ হারিয়েছে-হানিফ

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিদায়ী সরকারের অধিকাংশ মন্ত্রীকে বাদ দিয়ে সরকার গঠন ‘স্বাভাবিক হয়নি’ মন্তব্য করে বিএনপি নেতা খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, ‘অস্বাভাবিক’ নির্বাচনের পর এই ‘অস্বাভাবিক’ সরকার বেশি দিন টিকবে না। আপনি কি তা মনে করেন?