বৃহস্পতিবার, ২১ জুন ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ১২ মার্চ, ২০১৮, ০৩:১৯:৩১

৪ মাসের জামিন পেলেন খালেদা জিয়া

৪ মাসের জামিন পেলেন খালেদা জিয়া

ডেস্ক রিপোর্টঃ-জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে চার মাসের জামিন দিয়েছে হাইকোর্ট। সাজার মেয়াদ, বয়স ৭৩ বছর এবং শারীরিক অসুস্থতার বিষয়টি বিবেচনা নিয়ে আদালত তার জামিন মঞ্জুর করে।
সোমবার (১২ মার্চ) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ এ আদেশ দেয়। একইসঙ্গে আপিল শুনানির জন্য মামলার পেপারবুক প্রস্তুত করতে হাইকোর্টের সংশ্লিস্ট শাখাকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।
আদালত বলেছে, নিম্ন আদালতে বিচার চলাকালে খালেদা জিয়া নিয়মিত হাজিরা দিয়েছেন। ওই সময় তিনি জামিনে ছিলেন এবং জামিনে থাকা অবস্থায় তিনি এর কোনো অপব্যবহার করেননি।
গতকাল রবিবার খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়ে আদেশ দেয়ার দিন ধার্য ছিল। তবে নির্ধারিত সময়ে নথি না আসায় আদালত আদেশের জন্য আজকের দিন ধার্য করে।
গত ৮ ফেব্রুয়ারি বিচারিক আদালতে খালেদা জিয়ার সাজার রায় হয়। দুর্নীতির দায়ে সাবেক খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেয় নিম্ন আদালত।
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। ২০১৪ সালের ১৯ মার্চ খালেদা জিয়াসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ঢাকার তৃতীয় বিশেষ জজ আদালতের বিচারক বাসুদেব রায়।

এই বিভাগের আরও খবর

  অক্টোবরে নির্বাচনকালীন সরকার গঠনের সম্ভাবনা বেশি-ওবায়দুল কাদের

  সরকার ইচ্ছাকৃতভাবে বেগম জিয়াকে সুচিকিৎসা নিতে বাধা দিচ্ছে-রিজভী

  খালেদা জিয়ার ঈদের দিন যেভাবে কাটলো

  খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করবেন না-নাসিম

  ওটা জেলখানা, কারো বাসভবন নয়-সেতুমন্ত্রী

  স্বজনদের সঙ্গে ঈদের দিন প্রায় দুই ঘণ্টা কাটল খালেদা জিয়ার

  খালেদা জিয়ার সাক্ষাৎ পেলেন না ফখরুলরা

  দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন খালেদা জিয়া-রিজভী

  ঈদের দিন খালেদার সাক্ষাৎ চান বিএনপি নেতারা

  খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে নোংরা রাজনীতি করছে সরকার-বিএনপি

  সিএমএইচকেও ‘না’ বলা উচিত হবে না খালেদা জিয়ার-সেতুমন্ত্রী

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?