রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ০৯ নভেম্বর, ২০১৭, ০৬:৫৫:০৮

প্রতিহিংসামূলক ও বৈরি আচরণ সত্ত্বেও শেখ হাসিনাকে ক্ষমা করে দিচ্ছি-আদালতে খালেদা

প্রতিহিংসামূলক ও বৈরি আচরণ সত্ত্বেও শেখ হাসিনাকে ক্ষমা করে দিচ্ছি-আদালতে খালেদা

ডেস্ক রিপোর্টঃ-বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া বলেছেন, আমি প্রতিহিংসায় নয়, ক্ষমায় বিশ্বাস করি। আমার এবং পরিবারের সদস্যদের প্রতি শেখ হাসিনার প্রতিহিংসামূলক ও বৈরি আচরণ সত্ত্বেও তাকে ক্ষমা করে দিচ্ছি। আমি তার প্রতি কোনো প্রতিহিংসাপ্রবন আচরণ করবো না।
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থন করে বৃহস্পতিবার (৯নভেম্বর) দুপুরে আদালতে বক্তব্য দিতে গিয়ে খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, আমি তাকে (শেখ হাসিনা) আহ্বান করেছিলাম, আসুন রাজনীতিতে শোভন সহিঞ্চু আচরণ গড়ে তুলি। দেশের গণতন্ত্রের জন্য খুবই প্রয়োজন। ভবিষ্যত প্রজন্ম যেন আমাদের কাছ থেকে কিছু শিখতে পারে।
খালেদা বলেন, অবৈধ মঈন উদ্দীন ও ফখরুদ্দীন সরকার শেখ হাসিনাকে গ্রেফতার করলে আমি গৃহবন্দি থেকে তার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছিলাম এবং বিবৃতি দিয়ে তার মুক্তি দাবি করেছিলাম। কেউ কেউ ইতিহাস থেকে শিক্ষা নেন। কেউ শিক্ষা নেন না।   কিন্তু যারা শিক্ষা নেন তারা সম্মানিত হন।
আর যারা শিক্ষা নেন না তাদের জায়গা হয় ইতিহাসের আস্তাকুড়ে। চাইলে আমি তখন চুপ করে থাকতে পারতাম। অন্যায়কে আমি মেনে নিইনি। গৃহবন্দি অবস্থা থেকেই প্রতিবাদ করেছিলাম।

এই বিভাগের আরও খবর

  বিএনপি ক্ষমতায় আসলে কেউ ঘরে থাকতে পারবেন না-ওবায়দুল কাদের

  ঐক্যবদ্ধ থাকলে আগামী নির্বাচনেও বিজয়ী হবো-সেতুমন্ত্রী

  আগেও ইভিএমের পক্ষে ছিলাম না এখনো নাই-এরশাদ

  মানুষের মুখ বন্ধ করতেই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পাস-রিজভী

  আইনি পথে খালেদা জিয়ার মুক্তি ভুলে যান-মওদুদ

  আগামী এক মাসে অনেক কিছুর পরিবর্তন ঘটবে-মওদুদ

  মেডিকেল বোর্ডের প্রতিবেদন ‘ম্যানুফ্যাকচারিং’-বিএনপি

  খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা ঝুঁকিপূর্ণ নয়-মেডিকেল বোর্ড

  জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে নির্বাচন চায় বিএনপি

  ঢাকা জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে বিএনপি

  রাজপথে নেমে আসুন, ধৈর্যহারা হবেন না-মির্জা ফখরুল

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে চালু হওয়া ‘না’ ভোট একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ সংশোধনের উদ্যোগের মধ্যে পুনঃপ্রবর্তনের প্রস্তাব করেছে নাগরিক সংগঠন সুজন। আপনি কি তা সমর্থন করেন?