মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ,২০১৭

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ৩০ অক্টোবর, ২০১৭, ১২:৫৯:৩৭

উখিয়ার রোহিঙ্গা শিবিরের পথে খালেদা

উখিয়ার রোহিঙ্গা শিবিরের পথে খালেদা

কক্সবাজারঃ-উখিয়ায় রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের উদ্দেশে রওয়ানা হয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। কক্সবাজার সার্কিট হাউজ থেকে সোমবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে উখিয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন তিনি। তার সঙ্গে কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দসহ গণমাধ্যম কর্মীদের গাড়িবহরও রয়েছে।
বিএনপি সূত্রে জানানো হয়েছে, দলের পক্ষ থেকে ক্যাম্পের দায়িত্বে থাকা সেনাবাহিনীর কাছে ৪৫ ট্রাক ত্রাণ সামগ্রী হস্তান্তর করা হয়েছে। খালেদা জিয়া রোহিঙ্গাদের তিনটি ক্যাম্পে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করবেন।
এর আগে রোহিঙ্গা শিবিরে ত্রাণ বিতরণের উদ্দেশে গত শনিবার চারদিনের সফর শুরু করেন বিএনপি খালেদা জিয়া। ওইদিন তিনি চট্টগ্রামে পৌঁছে সেখানে সার্কিট হাউজে রাত্রিযাপন করেন। রবিবার রোহিঙ্গাদের মাঝে ত্রাণ বিতরণের জন্য কক্সবাজার গিয়ে সেখানে রাত যাপন করবেন।
সেখান থেকেই আজ তিনি কক্সবাজারের বালুখালি ১ ও ২, বোয়ালখালি ও জামতলিতে অবস্থিত রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির পরিদর্শন করবেন ও ত্রাণ সামগ্রী বিরতরণ করবেন। বিএনপি চেয়ারপারসন সেখান থেকে ত্রাণ বিতরণ শেষে ঢাকায় ফিরবেন।
খালেদা জিয়া সর্বশেষ ২০১২ সালে কক্সবাজারে গিয়েছিলেন। ৫ বছরের বেশি সময় পর আবারো যাচ্ছেন। তখন রামুর বৌদ্ধ মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনাস্থল পরিদর্শনে করেছিলেন। তখন একটি জনসভায় অংশ নিয়েছিলেন। তবে এবার তিনি কোনো জনসভা বা পথসভায় বক্তব্য রাখেননি।

এই বিভাগের আরও খবর

  সরকার সমঝোতায় না এলে রাজপথে আন্দোলন-মওদুদ আহমেদ

  দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত বিএনপির

  রংপুরে সহিংসতা হলে ভোট বন্ধ-সিইসি

  নির্বাচন হতে হলে সংসদকে ভেঙ্গে দিতে হবে-মির্জা ফখরুল

  এদেশে ভোটারবিহীন নির্বাচন আর হবে না-রিজভী

  বিএনপি বিপজ্জনক রাজনৈতিক সংগঠন-তথ্যমন্ত্রী

  মামলায় যত জর্জরিত হচ্ছি, তত মানুষের সহানুভূতি পাচ্ছি-খালেদা জিয়া

  শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে যাবে না ২০ দলীয় জোট

  শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন করতে দেব না-মোশাররফ

  নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি-সিইসি

  যারা বেশি দুর্নীতি করে তারাই বেশি নীতির কথা বলে-সেতুমন্ত্রী

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

পুলিশের আইজিপি এ কে এম শহিদুল হক বলেছেন, ‘দেশকে জঙ্গি, মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত করতে হলে পুলিশের পাশাপাশি জনগণকে কাজ করতে হবে।’ আপনিও কি তাই মনে করেন?