সোমবার, ২২ অক্টোবর ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

শুক্রবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৮, ০৩:০৮:১২

সাংবাদিক কল্যাণ তহবিলে ২০ কোটি টাকা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

সাংবাদিক কল্যাণ তহবিলে ২০ কোটি টাকা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্টঃ-বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট তহবিলে আরো ২০ কোটি টাকা অনুদান দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সাংবাদিকদের প্রয়োজনে তাদের আর্থিক সহায়তা প্রদানের জন্য বর্তমান সরকার সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট তহবিল গঠন করে।
প্রধানমন্ত্রী বৃহস্পতিবার তার সরকারি বাসভবন গণভবনে এক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি মোল্লা জালালের হাতে উক্ত টাকার চেক হস্তান্তর করেন।
প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, তথ্য সচিব আবদুল মালেক, পিআইবির মহাপরিচালক শাহ আলমগীর, বাসসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান সম্পাদক এবং বিএফইউজের সাবেক সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা (পিআইও) কামরুন নাহার, বিএফইউজের মহাসচিব শাবান মাহমুদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) সভাপতি আবু জাফর সূর্য ও সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৫ কোটি টাকা সিডমানি দিয়ে ২০১৪ সালে ট্রাস্ট তহবিল গঠনের উদ্যোগ নেন। পরে বিগত চার বছরে বিভিন্ন বেসরকারি মিডিয়া থেকে দেয়া টাকায় তহবিল ১৫ কোটি টাকায় উন্নীত হয়। গত ১৯ সেপ্টেম্বর এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী আরো ২০ কোটি টাকা দেয়ার আশ্বাস দেন। বাসস

এই বিভাগের আরও খবর

  তরুণ প্রজন্মের জন্য নিজের বর্তমানকে উৎসর্গ করেছেন প্রধানমন্ত্রী

  সংসদের শেষ অধিবেশনের পর নির্বাচনী প্রক্রিয়া-প্রধানমন্ত্রী

  জনগণ উন্নয়ন চাইলে ফের নৌকায় ভোট দেবে-প্রধানমন্ত্রী

  বাংলাদেশ কনস্যুলেট ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী

  নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে সংসদ নির্বাচনের তফসিল-ইসি

  বাংলাদেশে বিনিয়োগ বাড়াতে সৌদি ব্যবসায়ীদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান

  এইচ টি ইমাম অসুস্থ, হেলিকপ্টারে আনা হলো ঢাকায়

  প্রধানমন্ত্রী সৌদি আরব পৌঁছেছেন

  গ্রহণযোগ্য নির্বাচন আয়োজনে সব করা হবে-সিইসি

  সম্প্রচার কমিশন গঠনে আইনের খসড়া অনুমোদন

  ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের সংশোধন চেয়ে রাস্তায় সম্পাদকরা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, গুজব সনাক্তকরণে যে সেল করা হয়েছে, তা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মতপ্রকাশ নিয়ন্ত্রণ বা সোশ্যাল মিডিয়া পুলিশিং করবে না। আপনি কি এতে আশ্বস্ত?