মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

শুক্রবার, ২৬ জানুয়ারী, ২০১৮, ০৩:১৩:২৪

১ ফেব্রুয়ারি এসএসসি পরীক্ষাঃ আজ থেকেই সকল কোচিং সেন্টার বন্ধ, ‘প্রশ্ন ফাঁসের প্রমাণ মিললেই পরীক্ষা বাতিল’

১ ফেব্রুয়ারি এসএসসি পরীক্ষাঃ আজ থেকেই সকল কোচিং সেন্টার বন্ধ, ‘প্রশ্ন ফাঁসের প্রমাণ মিললেই পরীক্ষা বাতিল’

ডেস্ক রিপোর্টঃ-শুক্রবার (২৬ জানুয়ারী) থেকেই সকল কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে। মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষায় নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। বৃহস্পতিবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত এক সভায় মন্ত্রী এমন কথা বলেন।
শিক্ষা মন্ত্রী বলেন, যদিও এসএসসি পরীক্ষা শুরুর তিন দিন আগে সকল কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল কিন্তু বিশেষ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সাত দিন আগে থেকেই সকল কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবস্থা নেয়ারও পরামর্শ দেন তিনি।
মন্ত্রী বলেন, সারাদেশে প্রথমবারের মতো অভিন্ন প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। কোথাও প্রশ্ন ফাঁসের প্রমাণ পাওয়া গেলে সকল পরীক্ষা বাতিল করা হবে। পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগেই পরীক্ষার্থীদের নিজ আসনে বসতে হবে। এরপর আর কোনোভাবেই কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেয়া হবেনা।
মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব সোহরাব হোসেন বলেন, পরীক্ষা শেষের পরেও যদি প্রমাণিত হয় প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে তবে সে পরীক্ষা বাতিল করা হবে। অভিন্ন প্রশ্নপত্র দিয়ে সারাদেশে পরীক্ষা আয়োজনের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে আমরা একটি বড় চ্যালেঞ্জ নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছি। সকল স্থানে মানের বিষয়টি নিশ্চিত করতে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধ করে সুষ্ঠুভাবে এসএসসি পরীক্ষা সম্পন্ন করাটাই এখন বড় লক্ষ্যমাত্রা। তিনি বলেন, আমাদের দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। কোনো ধরনের আপস করতে রাজি নই। কেউ যদি দায়িত্বে অবহেলা বা কোনো ধরনের অনিয়ম করেন তাকেই অপরাধী বলে গণ্য করা হবে।
সভায় উপস্থিত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) যুগ্ম কমিশনার নাজমুল আলম বলেন, পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ট্রেজারি থেকে নিয়ে যাওয়ার সময় অনেক বড় গাফিলতি হয়। সেখান থেকে প্রশ্নপত্র ফাঁসের সুযোগ রয়েছে। এ বিষয়ে আরো সচেতন হওয়া প্রয়োজন। তিনি বলেন, ইতিমধ্যে ফেসবুকে প্রশ্নপত্র বিক্রির বিজ্ঞাপন পাওয়া গেছে। আমরা তা নিয়ে কাজ করছি।
এ ছাড়াও প্রশ্নপত্র বিতরণের সময় অনেক কেন্দ্র সচিব উপস্থিত না হয়ে তাদের প্রতিনিধিদের পাঠান। এটি বন্ধ করে কেন্দ্র সচিবের উপস্থিতি নিশ্চিত, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে নিয়োজিত রাখা, ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশের বিষয়ে অধিক প্রচারণসহ বিভিন্ন বিষয়ে পরামর্শ দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট দফতর, সংস্থা ও বিভাগের কর্মকর্তারা।

এই বিভাগের আরও খবর

  জনগণের জীবনমানে গুণগত পরিবর্তন এনেছে সরকার-রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন

  তরুণ প্রজন্মের জন্য নিজের বর্তমানকে উৎসর্গ করেছেন প্রধানমন্ত্রী

  সংসদের শেষ অধিবেশনের পর নির্বাচনী প্রক্রিয়া-প্রধানমন্ত্রী

  জনগণ উন্নয়ন চাইলে ফের নৌকায় ভোট দেবে-প্রধানমন্ত্রী

  বাংলাদেশ কনস্যুলেট ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী

  নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে সংসদ নির্বাচনের তফসিল-ইসি

  বাংলাদেশে বিনিয়োগ বাড়াতে সৌদি ব্যবসায়ীদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান

  এইচ টি ইমাম অসুস্থ, হেলিকপ্টারে আনা হলো ঢাকায়

  প্রধানমন্ত্রী সৌদি আরব পৌঁছেছেন

  গ্রহণযোগ্য নির্বাচন আয়োজনে সব করা হবে-সিইসি

  সম্প্রচার কমিশন গঠনে আইনের খসড়া অনুমোদন

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, গুজব সনাক্তকরণে যে সেল করা হয়েছে, তা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মতপ্রকাশ নিয়ন্ত্রণ বা সোশ্যাল মিডিয়া পুলিশিং করবে না। আপনি কি এতে আশ্বস্ত?