সোমবার, ১৬ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ১২ আগস্ট, ২০১৭, ০৮:২৪:৫১

খাগড়াছড়িতে টানা বর্ষনঃ পাহাড় ধবসে আশংকায় নিরাপদে সরিয়ে নিচ্ছে প্রশাসন

খাগড়াছড়িতে টানা বর্ষনঃ পাহাড় ধবসে আশংকায় নিরাপদে সরিয়ে নিচ্ছে প্রশাসন

খাগড়াছড়িঃ-প্রবল বর্ষন অব্যাহত থাকায় খাগড়াছড়িতে ফের পাহাড় ধবসের আশংকায় ঝুকিপূর্ণ স্থানে বসবাসকারীদের নিরাপদে সরিয়ে নিচ্ছে প্রশাসন। পাহাড় ধবসের প্রাণহানির আশংকায় সকাল থেকে প্রশাসন ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে বসবাসকারীদের আশ্রয় কেন্দ্রে যেতে শহরে মাইকিং করছে। ভাড়ী বর্ষনের কারণে বিশেষ করে  খাগড়াছড়ি জেলা শহরের কলাবাগান, নেন্সিবাজার, শালবন, হরিনাথ পাড়া গ্যাপ, আঠার পরিবার, সবুজবাগ ও কলেজ গেইট এলাকায় আবারও পাহাড় ধবসের আশংকায়  সম্ভাব্য প্রাণ হানির আশংকায়  প্রবল হয়ে উঠেছে। তবে এখন পর্যন্ত কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।
এদিকে ভারী বর্ষন অব্যাহত থাকায় জেলায় চেংগী, মাইনী ও ফেনী নদরি পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। অতি বর্ষনের কারনে জেলা শহরের পৌর এলাকা নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।
এদিকে জেলা প্রশাসনের কাছে ঝুকিপূর্ন বসতির কোন হিসেব না থাকলেও জেলা প্রশাসক মোঃ রাশেদুল ইসলাম জানিয়েছেন, খাগড়াছড়িতে এ ধরনের ঝুঁকিপূর্ন বসবাসের সংখ্যা খুবই কম। তবুও প্রশাসন সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে বসবাসকারীদের নিরাপদে রাখার ব্যাপারে সতর্ক রয়েছেন।
অপরদিকে খাগড়াছড়িতে তিনদিনের টানা ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ি  ঢলে, শত শত বসত বাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ্য হয়েছে। ধারাবাহিক বর্ষণ অব্যাহত থাকায়  চ্ঙ্গেী নদীর তীরবর্তিসহ নিম্মাঞ্চলে বসবাসকারীর পরিবারগুলোর মাঝে পানি ওঠার আতংক বিরাজ করছে। টানা বর্ষণে জেলা সদরের মিলনপুর, আনন্দনগর, মুসলিমপাড়া, বাঙ্গালকাঠি এলাকার নিন্মাংশ, নদী তীরবর্তী গঞ্জপাড়া ও শান্তিনগর এলাকায় বসবাসরত বেশীরভাগ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়ে।  
অব্যাহত বর্ষনের কারনে পাহাড়ী ঢলে জেলার চেংগী ও মাইনী নদীর পানি বাড়তে থাকে। ফলে জেলা সদরের মুসলিমপাড়া, বাঙ্গালকাঠি এলাকার নিন্মাংশ, নদী তীরবর্তী গঞ্জপাড়া ও শান্তিনগর এলাকা প্লাবিত হয়ে পড়ে। এদিকে দুপুরের পর থেকে পানিবন্দি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো বিভিন্ন জায়গায় আশ্রয় নিতে শুরু করেছে।
খাগড়াছড়ি পৌরসভার মেয়র রফিকুল আলম জানান, পানিবন্দী পরিবারগুলোর জন্য জেলা শহরের মুসলিম পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও মিউনিসিপ্যাল প্রাথমিক বিদ্যালয় আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে খুলে দেয়া হয়েছে। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্তদের খোঁজখবর নেয়ার জন্য স্ব স্ব এলাকার কাউন্সিলরদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এছাড়া লক্ষ্মীছড়ি ও গুইমারা, দীঘিনালার উপজেলার ছোটমেরুং এলাকা নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে শতাধিক পরিবার পানি বন্দী হয়ে পড়েছে। চেঙ্গীনদীর তীরে বসবাসকারীদের মাঝে ঘরে পানি ওঠার আতংক বিরাহ করছে।

এই বিভাগের আরও খবর

  রাউজানে স্কুল ছাত্রী ও কাউখালীতে মারমা নারীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে তিন সংগঠনের বিক্ষোভ

  খাগড়াছড়ির দুই সাংবাদিককে চিকিৎসা সহায়তার অনুদানের চেক প্রদান

  দীঘিনালা জোনের সেনাবাহিনী গরীব ও দুস্থদের মাঝে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা ওষুধ বিতরণ

  রামগড়ে পুকুরে ডুবে ৯ম শ্রেণির ছাত্রের মৃত্যু

  মাদকাসক্তি ব্যক্তি সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য ক্যান্সার স্বরুপ

  বিনা ভোটের সরকার ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতে আবারও এক তরফা নির্বাচনের পাঁয়তারা করছে-ওয়াদুদ ভূঁইয়া

  খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় দেশীয় অস্ত্রসহ এক জনকে আটক করেছে যৌথবাহিনী

  মহালছড়িতে টানা বর্ষনে-মুবাছড়ি সংযোগ সড়কে ভাঙ্গণ, ভারী যান চলাচল বন্ধ

  পাহাড়ের জনগণকে জিম্মি করে শিক্ষা ও উন্নয়নের বাঁধা সৃষ্টিকারীদের ছাড় দেয়া হবে না

  পাহাড়ে উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে নারীদের কর্মসংস্থান সৃষ্টি লক্ষে কাজ করছে সরকার-কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

  খালেদা জিয়াকে বাদ দিয়ে দেশে কোন নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না-ওয়াদুদ ভূইয়ার

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?