শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

শনিবার, ১৩ জুলাই, ২০১৯, ০৭:৪৫:৫৫

ভয়াবহ রূপ নিয়েছে খাগড়াছড়ির চেঙ্গী নদী, নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে বাড়ি-ঘর ও ফসলি জমি

ভয়াবহ রূপ নিয়েছে খাগড়াছড়ির চেঙ্গী নদী, নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে বাড়ি-ঘর ও ফসলি জমি

খাগড়াছড়িতে টানা বর্ষণের পর চেঙ্গী, মাঈনী ও ফেনী নদীর পানি কমতে থাকায় বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক ভাঙন দেখা দিয়েছে। এতে বিভিন্ন অফিস, স্কুল, মাদরাসা, বসতবাড়ি ও ফসলি জমি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে হচ্ছে।
এখানকার নদী তিনটি খরস্রোতা হওয়ায় টানা কয়েক ঘণ্টা বৃষ্টি হলেই পাহাড়ি ঢলে নিচু এলাকার নদী তীরবর্তী গ্রামগুলো ডুবে যায়। বৃষ্টি থামলেই নদীগুলোর স্রোতে ভাঙন সৃষ্টি হয়।
গত কয়েক দিনে দিঘীনালার মাঈনী, রামগড়ের ফেনী, পানছড়ি ও খাগড়ছড়ির চেঙ্গী নদীর ভাঙন ভয়াবহ রূপ নিয়েছে।
জানা গেছে, পানছড়ি উপজেলার দুধুকছড়া ফুট ব্রিজ ভেঙে গেছে, নদীর গর্ভে বিলীন হচ্ছে উপজেলার চেংগী ইউপি কার্যালয়। বন্ধ হয়েছে উপজেলার মুনিপুর-তারাবন সড়ক যোগাযোগ।
পানছড়িতে মোট ১১টি বসতবাড়ি নদী গর্ভে বিলীন হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। মাঈনী নদীর ভাঙনে দিঘীনালার চোংড়াছড়ি, মেরুং, বোয়ালখালীর হাসিনশরপুর এলাকায় বেশ কয়েকটি বাড়ি-ঘর ও ফসলি জমি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।
খাগড়ছড়িতে চেঙ্গী নদীর ভাঙনে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের রাবার কারখানা, পৌর বাস ট্রার্মিনালসহ বিভিন্ন স্থাপনা হুমকির মুখে পড়েছে। এছাড়াও পাহাড়ের বিভিন্ন ছোট-বড় ছড়া ও খালের ভাঙনও দেখা দিচ্ছে।

এই বিভাগের আরও খবর

  আগস্ট মাসে আসলে বঙ্গবন্ধু‘র খুনিরা বেপরোয়া হয়ে উঠে-কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

  অবৈধ সরকারের পতন ঘটিয়ে বেগম জিয়াকে কারামুক্ত করা হবে-ওয়াদুদ ভূইয়া

  খাগড়াছড়ি আধুনিক জেলা সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে সনাক- এর মতবিনিময় সভা

  খাগড়াছড়িতে গ্রেনেট হামলাকারীদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল

  খাগড়াছড়িতে ৭ হত্যাকান্ডঃ এক বছরেও শেষ হয়নি তদন্ত কার্যক্রম

  বঙ্গবন্ধুর ছিলেন অসম্প্রদায়ীক চেতনার বিশ্বাসী-নির্মলেন্দু চৌধুরী

  খাগড়াছড়িতে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী কামাল হোসেন’র অফিস দখলের চেষ্টার অভিযোগের বিরুদ্ধে মামলা

  খাগড়াছড়িতে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে কালো পতাকা মিছিল ও সমাবেশ

  রামগড়ে ফের ডাকাতি, স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতাসহ আটক-৪

  দুষ্ককৃতিকারীরা বঙ্গবন্ধুকে মেরেছে! তার স্বপ্ন মারতে পারে নাই-আলহাজ্ব কাশেম

  বঙ্গবন্ধু বাকী খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে, ফাঁসি‘র রায় কার্যকর করা প্রধান কাজ-কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?