সোমবার, ২৬ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

শনিবার, ০৮ জুন, ২০১৯, ০৭:৪০:৫৬

বাসন্তি চাকমা খাগড়াছড়ি ত্যাগ না করায় রবিবার পূর্বঘোষিত অবরোধ পূর্ণবহাল

বাসন্তি চাকমা খাগড়াছড়ি ত্যাগ না করায় রবিবার পূর্বঘোষিত অবরোধ পূর্ণবহাল

খাগড়াছড়িঃ-উগ্র সাম্প্রদায়িক বাসন্তী চাকমা (সংরক্ষিত মহিলা সাংসদ) কে পাহাড় ত্যাগ করার দাবীতে পার্বত্য অধিকার ফোরাম খাগড়াছড়ি জেলা শাখার পূর্বঘোষিত সড়ক অবরোধ বহাল রয়েছে।
তিন পার্বত্য চট্টগ্রাম নিয়ে গঠিত সংরক্ষিত ৯নং মহিলা আসনে এমপি হয়ে জাতীয় সংসদ অধিবেশনে উগ্র সাম্প্রদায়িক, সংবিধান ও রাষ্ট্রবিরোধী বক্তব্য প্রদানকারী বাসন্তী চাকমাকে পাহাড় ত্যাগ করাসহ ৪ দফা দাবীতে রবিবার (৯ জুন) খাগড়াছড়ি জেলায় সকাল-সন্ধ্যা সড়ক অবরোধ বহাল রয়েছে।
শনিবার (৮ জুন) পার্বত্য অধিকার ফোরাম, খাগড়াছড়ি জেলা শাখার দপ্তর সম্পাদক, পারভেজ আহম্মেদ এর দেয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে রবিবার খাগড়াছড়ি জেলায় সকাল-সন্ধ্যা সড়ক অবরোধ বহাল রয়েছে বলে জানান।
গত শুক্রবার (৭ জুন) সকালে খাগড়াছড়ির চেঙ্গিস্কোয়ার হতে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রদান প্রদান সড়ক প্রদক্ষিন করে মহাজন পাড়া মূল সড়ক অবরোধ করে “বাসন্তী তুই রাজাকার এইমূহুর্তে পাহাড় ছাড়, সাম্প্রদায়িক বাসন্তীর পাহাড়ে ঠাই নাই এই স্লোগানের মধ্য দিয়ে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে পার্বত্য অধিকার ফোরাম খাগড়াছড়ি জেলা শাখা ও সহেেযাগী অঙ্গ সংগঠন। অবস্থান কর্মসূচি হতে বাসন্তী চাকমা পাহাড় ত্যাগ করার জন্য শুক্রবার বিকাল ৫ আল্টিমেটাম দেওয়া হলেও পাহাড় ছেড়ে না যাওয়ায় পূর্বঘোষিত অবরোধ অব্যাহত থাকল।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, অবরোধ চলাকালে খাগড়াছড়ি জেলা হতে সকল ধরনের যানবাহন অন্য কোন উপজেলা ও জেলা শহরে উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবেনা এবং অন্য কোন জেলাসহ খাগড়াছড়ি সকল উপজেলা হতে কোন ধরনের যানবাহন জেলায় প্রবেশ করবেনা। পাশ^বর্তি উপজেলার অন্য উপজেলার যোগাযোগ বন্ধ থাকবে।  
রোগী পরিবহনকারী এ্যাম্বুল্যান্স, বরযাত্রীসহ বিয়ের গাড়ি, খবরের কাগজ কাগজের গাড়ি ও সংবাদ কাজে নিয়োজিত ব্যক্তিদের গাড়ি ব্যতিত সকল ধরনের যানবাহন চলাচল দূরপাল্লার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবেনা এবং ছেড়ে আসবেনা।
উল্লেখ্য, গত ২ মার্চ’ ১৯ ইং হতে তার বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে পার্বত্য তিন জেলায় সংবাদ সম্মেলন, মানববন্ধন, প্রতিবাদ সমাবেশ, বিক্ষোভ মিছিল কুশপুত্তলিকা দাহসহ চার দফা দাবীতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্বারকলিপি প্রদান করা হয়। সর্বশেষ শুক্রবার (৭ মার্চ) তাকে পাহাড়ে অবাঞ্চিত করা হলেও গত মঙ্গলবার (৪ মে) গোপনে পাহাড়ে প্রবেশ করে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের সাথে বিভিন্ন গোপন বৈঠকে অংশ গ্রহণ করছেন।
পূর্ব ঘোষিত চার দফা দাবী
১। বাসন্তী চাকমা কে ০৭/০৬/১৯ ইং দুপুর ১ টার মধ্যে পাহাড় ত্যাগ করতে হবে।  ২। বাসন্তী চাকমার উগ্র সাম্প্রদায়িক, মিথ্যা বক্তব্যের জন্য আনুষ্ঠানিক ভাবে সংসদে দাড়িয়ে জাতির কাছে ক্ষমা চেয়ে তার বক্তব্য প্রত্যাহার করে নিতে হবে। ৩। অসাম্প্রদায়িক আওয়ামীলীগের সদস্য হয়েও উগ্র সাম্প্রদায়িক বক্তব্য প্রদান করায়  তাকে মহিলা আওয়ামীলীগ হতে  বহিস্কার করতে হবে। ৪। একজন অসাম্প্রদায়িক নারী কে সংরক্ষিত মহিলা আসনে সংসদ হিসেবে মনোয়ন দিতে হবে।
তাই উগ্র সাম্প্রদায়িক বাসন্তী চাকমা শুক্রবার (৭ জুন) দুপুর একটার মধ্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম ত্যাগ না করায় রবিবার (৯ জুন) খাগড়াছড়ি জেলায় সকাল সন্ধ্যা অবরোধ অবরোধ পুর্ণবহাল থাকবে।
প্রসঙ্গত: ২৬শে ফেব্রুয়ারী মহান জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনের বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রামের বসবাসরত বাঙ্গালী ও সেনাবাহিনীকে নিয়ে উগ্র সম্প্রদায়িক বক্তব্যে ফলে উত্তপ্ত পরিস্থিতি বিরাজ করছে পাহাড়ে।

এই বিভাগের আরও খবর

  সাংবাদিক কামালের হত্যান্ডের ১ যুগ পার হলো

  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সকল সম্প্রদায়কে নিয়ে উন্নত বাংলাদেশ আমরা গড়ব-কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

  ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জন্মষ্টমী উপলক্ষে দীঘিনালায় মঙ্গল শোভাযাত্রা

  যে এলাকায় বিদ্যুৎ নেই সেই এলাকায় সোলার প্যানেল দ্বারা বিদ্যুতের চাহিদা মেটানো হবে-কংজরী চৌধুরী

  খাগড়াছড়ির গুইমারায় নবাগত ইউএনও তুষার আহম্মেদ এর যোগদান

  আগস্ট মাসে আসলে বঙ্গবন্ধু‘র খুনিরা বেপরোয়া হয়ে উঠে-কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

  অবৈধ সরকারের পতন ঘটিয়ে বেগম জিয়াকে কারামুক্ত করা হবে-ওয়াদুদ ভূইয়া

  খাগড়াছড়ি আধুনিক জেলা সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে সনাক- এর মতবিনিময় সভা

  খাগড়াছড়িতে গ্রেনেট হামলাকারীদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল

  খাগড়াছড়িতে ৭ হত্যাকান্ডঃ এক বছরেও শেষ হয়নি তদন্ত কার্যক্রম

  বঙ্গবন্ধুর ছিলেন অসম্প্রদায়ীক চেতনার বিশ্বাসী-নির্মলেন্দু চৌধুরী

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?