সোমবার, ১৮ জুন ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ১৪ জুন, ২০১৮, ০৭:০৮:০১

দীঘিনালায় বন্যায় কবলিত এলাকায় উপজেলা প্রশাসনের ত্রান বিতরন

দীঘিনালায় বন্যায় কবলিত এলাকায় উপজেলা প্রশাসনের ত্রান বিতরন

সোহেল রানা দীঘিনালাঃ-খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলায় বন্যাকবলিত এলাকার বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নেয়া পরিবারের মাঝে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১৪ জুন) দুপুরে উপজেলার মেরুং ইউনিয়নের সোবহানপুর এলাকায় গিয়ে ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচি উদ্ধোধন করেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নব কমল চাকমা।
এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শেখ শহিদুল ইসলাম, ১নং মেরুং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. রহমান কবির রতন উপস্থিত ছিলেন।
ত্রাণ নিতে আসা সোবহানপুর গ্রামে সাজেদা বেগম জানান, গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টির পানিতে পুরো বসতভিটা সবকিছুই পানিতে ডুবে গেছে। রাতে পানি বাড়ায় কিছুই বাহির করতে পারিনি। এ ত্রাণ খুবই উপকারে আসবে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শেখ শহিদুল ইসলাম জানান, এভাবে কবাখালী ই্উনিয়নে ৪শত, বোয়ালখালী ইউনিয়নে ৪শত এবং মেরুং ইউনিয়নে ৩ শত জনের মাঝে এ ত্রাণ বিরতণ করা হয়েছে। ত্রাণ সহযোগিতার প্রতি প্যাকেটে ১০কেজি চাল, আধা কেজি সয়াবিন তেল, আধা কেজি ডাল, আধা কেজি লবণ এবং আধা কেজি পেয়াজ রয়েছে।
উল্লেখ্য, গত সোমবার দিবাগত রাতের আকষ্কিক পাহাড়ি ঢলে উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম বন্যার পানিতে তলীয়ে যায়। এতে ১২টি আশ্রয় কেন্দ্রে দুই হাজার ১শত পরিবার আশ্রয় নেয়।

এই বিভাগের আরও খবর

  খাগড়াছড়িতে দুর্বৃত্তের গুলিতে জেএসএস কর্মী নিহত

  দীঘিনালায় বন্যায় কবলিত এলাকায় উপজেলা প্রশাসনের ত্রান বিতরন

  খাগড়াছড়িতে বন্যার কিছুটা উন্নতি হলেও দীঘিনালায় অবনতি

  খাগড়াছড়িতে পানিবন্দী মানুষদেরকে উদ্ধার ও খাবার বিতরণে সেনাবাহিনী

  স্মরণকালের খাগড়াছড়িতে ভয়াবহ বন্যাঃ মেরুং বাজার পানির নিচে

  রামগড়ে ভারতীয় মদ জব্দ

  ধর্মপ্রাণ মুসল্লীদের জন্য রমজান মাসটি অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে-কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

  দীঘিনালায় অবৈধভাবে বালি উত্তোলন কালে বালুসহ মাহেদ্র ২টি ট্রলি জব্দ

  দীঘিনালায় অবৈধভাবে বালি উত্তোলন কালে বালুসহ মাহেদ্র ২টি ট্রলি জব্দ

  দীঘিনালা জোন বাবুছড়া ভিডিপি ক্লাবে রঙ্গিন টিভি বিতরণ

  দীঘিনালায় বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালন

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?