বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারী ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

মঙ্গলবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০১৭, ০৭:০৮:০৬

খাগড়াছড়ি কলেজ রোডস্থ ৪ তলা ঝুঁকিপূর্ণ ভবনটি ভেঙ্গে ফেলার নিদের্শ দিয়েছে পৌর মেয়র

খাগড়াছড়ি কলেজ রোডস্থ ৪ তলা ঝুঁকিপূর্ণ ভবনটি ভেঙ্গে ফেলার নিদের্শ দিয়েছে পৌর মেয়র

খাগড়াছড়িঃ-খাগড়াছড়ি পৌর শহরে কলেজ সড়কের ৪ তলার একটি ভবন ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করে তা আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে অপসারণের নিদের্শ প্রদান করে রবিবার ওই বাড়ির মালিক অজিত করের কাছে পত্র পাঠিয়েছেন পৌরসভার মেয়র।
জানা গেছে, নিরাপত্তা চেয়ে পৌর মেয়রের নিকট লিখিত অভিযোগ করেছে স্থানীয় প্রতিবেশীরা। লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পরপরই নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় নিয়ে ব্যাপক তদন্ত শেষে পৌর কর্তৃপক্ষ ওই বাড়ির মালিকের কাছে ভবনটি অপসারণের জন্য পত্র প্রেরণ করেন। একই সাথে ভবনের নিচ তলায় অবস্থিত হামদর্দ ল্যাবরেটরিজ, বিআরবি ক্যাবল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, ৩য় ও ৪র্থ তলায় নতুন করে ভাড়া নেওয়ার জন্য চুক্তিবদ্ধ খাগড়াছড়ি আইডিয়েল পলিটেকনিক্যাল ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষের কাছেও ভবন অপসারণের বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া হয়।
পৌর মেয়র রফিকুল আলম স্বাক্ষরিত পত্রে বলা হয়, এটি স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন ২০০৯ দ্বিতীয় তফসিল এর ৩৫ (১) ‘ইমারত নির্মাণ ও পুনির্মাণ ধারা পরিপন্থি’। যা পৌরসভা আইন ২০০৯ দ্বিতীয় তফসিল এর ৩৭নং ‘ইমারত নিয়ন্ত্রণ’ ধারায় উক্ত ইমারতের বাসিন্দা/দখলদার/পথচারীদের জন্য বিপদজ্জনক বলে প্রতীয়মান হওয়ায় অভিজ্ঞ প্রকৌশলীর পরামর্শ নিয়ে উক্ত ভবনটি ভেঙ্গে অপসারণ করা অপরিহার্য হয়ে দাঁড়িয়েছে।
পত্র দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে খাগড়াছড়ি পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মো. জামাল হোসেন জানান, অভিযোগের আলোকে পৌর সার্ভেয়ার মো. মোস্তাফিজুর রহমান শিমুলের নেতৃতে ব্যাপক তদন্ত শেষে ভবনটি ঝূকিঁপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। যা জনস্বার্থে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে অপসারণ করার নির্দেশ দেওয়া হয়।
এদিকে, প্রতিবেশী এ.কে.এম আনিছ আলম খাঁন (সেলিম), সনত বড়ুয়া, চন্দ্র শেখর দাশ জানান, দীর্ঘদিন ধরে এ ভবনের পাশে আমরা নিরাপত্তাহীনভাবে বসবাস করে আসছি। এটি ঝূঁকিপূর্ণ হওয়ায় আমাদের জন্য মৃত্যুর ফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ভূমিকম্প কিংবা কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ হলেই আমাদেরকে বাড়ি ছেলে অন্যত্র চলে যেতে হয়। পৌর মেয়র দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ায় আমরা প্রতিবেশীরা এখন স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছি।
খাগড়াছড়ি পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মো. জামাল হোসেন আরো জানান, আলোচিত রানা প্লাজার মতো দ্বিতীয় কোনো ঘটনা আমরা খাগড়াছড়িতে প্রত্যাশা করি না। খাগড়াছড়ি পৌর এলাকার ৪ তলা ভবনটি ঝুকিপূর্ন হিসাবে চিহ্নিত করে খাগড়াছড়ির পৌর মেয়র রফিকুল আলম ভবনটি অপসারণের নির্দেশ দিয়েছে। পৌর নোটিশটি তাকে না পেয়ে ডাক বিভাগে পাঠানো হয়েছে। পৌর মেয়র ৪৮ ঘন্টা সময় সীমা বেঁধে দিয়েছে তা এখনো অপসারণ করা হয়নি। ৪ তলা ভবনের মালিক অজিৎ কুমার কর, ৩নং পৌর ওয়ার্ডের স্থায়ী বাসিন্দা এই প্রতিবেদক ভবনটির বিষয় নিয়ে কথা বলতে গেলে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তাকে পাওয়া যায়নি। পৌর সভার কার্যালয় থেকে যে নোটিশ দেওয়া হয়েছে তার স্মারক নং- খা:পৌ:/প্রকৌ:/২০১৭/২৬৫ নম্বরে এই ভবনটি মারাত্মক ঝুকিপূর্ণ। এই প্রতিবেদক ৪ তলা ভবনের পার্শ্ববর্তী বসবাসরতদের সাথে যোগাযোগ করে তারা আতঙ্কে রয়েছে বলে দাবি করেছেন। হামদার্দ ল্যাবরেটোরিজ (ওয়াক্ফ) দাবি করেছে তারা ভবনটি ভাড়া নিতে ১০ লক্ষ টাকা আগাম দিয়েছে কিন্তু এই ঝুকিপূর্ণ কারণে কর্তৃপক্ষকে এই বিষয়ে জানানো হলে ঐ বিল্ডিং ছেড়ে দেওয়ার নিদের্শনা দেয়। অনুলিপি দেওয়া হয়েছে স্থানীয় সরকার বিভাগ, সচিব বনপরিবেশ মন্ত্রণালয়, সচিব-পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়, জেলা প্রশাসক- খাগড়াছড়ি, পৌর কাউন্সিলর- ৩নং ওয়ার্ড, উপ-পরিচালক ফায়ার সার্ভিস, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা-খাগড়াছড়ি সদর থানা। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

  মাটিরাঙ্গার ইউএনও বিএম মশিউর রহমানের বিদায় সংবর্ধনা

  দীঘিনালায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে সেচ্ছাচারিতার অভিযোগ বদলী চেয়ে বেতছড়ি এলাকাবাসীর মানববন্ধন

  খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় স্কুল ক্যাম্পাসে এনজিও অফিস!

  গুইমারাতে একই দিনে দুই স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

  দৃষ্টি প্রতিবন্ধী কালাকচু চাকমার স্বপ্নপূর! নতুন ঘর দিল দীঘিনালা জোন

  খাগড়াছড়ি পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশনের দুই দিনের কর্মবিরতিঃ নাগরিক সেবাদান বন্ধ

  স্বাধীনতা যুদ্ধে পুলিশের গৌরব অক্ষুন্ন রেখে ভাবমূর্তি আরো উজ্জ্বল করতে হবে-কমিশনার ইকবাল বাহার

  খাগড়াছড়ির রামগড়ে অস্ত্র ও গুলিসহ দুই সন্ত্রাসীকে আটক করেছে যৌথবাহিনী

  নব্য মুখোশবাহিনীর হাতে নিহত ইউপিডিএফ নেতা মিঠুন চাকমার স্মরণে খাগড়াছড়িতে স্মরণসভা ও প্রদীপ প্রজ্জ্বলন

  খাগড়াছড়িতে রক্তদাতার রক্ত নিয়ে বিক্রির অভিযোগ প্রাইভেট ক্লিনিকের বিরুদ্ধে

  মিঠুন চাকমা হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবীতে খাগড়াছড়িতে ইউপিডিএফ এর বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

পুলিশের আইজিপি এ কে এম শহিদুল হক বলেছেন, ‘দেশকে জঙ্গি, মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত করতে হলে পুলিশের পাশাপাশি জনগণকে কাজ করতে হবে।’ আপনিও কি তাই মনে করেন?