মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৭, ০৭:০৫:২৬

গুইমারাতে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার

গুইমারাতে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার

খাগড়াছড়িঃ-খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজলার ছনখোলাপাড়া এলাকার একটি পরিত্যক্ত ঘর থেকে দু’টি দেশীয় তৈরি এলজি, তিন রাউন্ড গুলি, চাঁদা আদায়ের রশীদ বই, নোটবুক এবং চোলাই মদ উদ্ধার করেছে সেনাবাহিনী। বুধবার গভীর রাতে গুইমারা রিজিয়নের আওতাধীন সিন্ধুকছড়ি জোনের সেনা সদস্যরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে এসব অস্ত্র উদ্ধার করে।
জানা যায়, নাশকতা ও চাঁদাবাজির উদ্দেশ্যে গুইমারা উপজেলার ছনখোলাপাড়া এলাকায় একটি পরিত্যক্ত ঘরে সন্ত্রাসীরা অবস্থান নিয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে সিন্ধুকছড়ি জোনের ক্যাপ্টেন মুফতি মাহমুদ জয় ও লে. তানজিল এর নেতৃত্বে ১৪ ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারী সিন্দুকছড়ি জোনের সেনা সদস্যরা অভিযান চালায়। এসময় সেনাবাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে পুরো এলাকায় সন্ত্রাসীদের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে পরিত্যক্ত ঘরে তল্লাশি চালিয়ে দু’টি দেশীয় তৈরি এলজি, তিন রাউন্ড কার্তুজ, চাঁদা আদায়ের রশীদ বইসহ চোলাই মদ উদ্ধার করে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে উদ্ধারকৃত অস্ত্র-গুলি ও মালামাল গুইমারা থানায় পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

  পাহাড়ি জনপদ খাগড়াছড়ি জেলাকে মাদকমুক্ত করা হবে-পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামান

  মাটিরাঙ্গায় স্কুল ছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

  নিজের ভাগ্য পরিবর্তন করতে পারলে জাতিগোষ্ঠী ও দেশের পরিবর্তন আনা সম্ভব-কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

  খাগড়াছড়ির মহালছড়িতে ব্রিজ ভেঙ্গে ট্রাক পানিতে, ৪ জনকে উদ্ধার, নিহত-১

  রামগড়ে অজ্ঞাত যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

  দীঘিনালায় ব্যাটারি চালিত টমটমে পথচারীরা অতিষ্ঠ

  দীঘিনালা মোবাইল কোর্টে জরিমানা

  কবাখালী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সততা স্টোর উদ্বোধন

  দীঘিনালায় মাইনী নদীতে বন্ধুর সাথে গোসল করতে গিয়ে স্কুল ছাত্র নিখোঁজ

  এই ধরনের অগ্নিকান্ড যাতে পুনরাবৃত্তি না হয় তার জন্য সকলকে সর্তক থাকতে হবে-কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

  পাহাড়ি-বাঙ্গালির সম্মিলিত উন্নয়নে সম্পৃক্তির মাধ্যমে এখানকার দারিদ্র্য বিমোচনের পথ সুগম হবে-নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে চালু হওয়া ‘না’ ভোট একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ সংশোধনের উদ্যোগের মধ্যে পুনঃপ্রবর্তনের প্রস্তাব করেছে নাগরিক সংগঠন সুজন। আপনি কি তা সমর্থন করেন?