সোমবার, ১৬ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ১০ জুলাই, ২০১৮, ০৪:১৭:১৩

থাই গুহা থেকে বের হচ্ছে আটকে থাকা বাকী কিশোররা

থাই গুহা থেকে বের হচ্ছে আটকে থাকা বাকী কিশোররা

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ-থাইল্যান্ডের থাম লুয়াং গুহায় আটকে থাকা চার কিশোর ও তাদের কোচ একে একে বের হয়ে আসছেন। মঙ্গলবার বিকেলে প্রথম ও তার ১৫ মিনিট পর দ্বিতীয় কিশোর গুহা থেকে বের হয়ে আসেন। উদ্ধার অভিযানের সঙ্গে যুক্ত থাই নেভি সিলের এক সদস্য সিএনএনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
গত দুই দিনের অভিযানে গুহা থেকে ৮ জনকে নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছিল। তখন বাকী ৪ কিশোর ও কোচকে সঙ্গ দিতে গুহার ভেতরেই থেকে গিয়েছিলেন এক চিকিৎসক ও থাই নেভি সিলের তিন সদস্য। আশা করা হচ্ছে খুব শিগগির তারা সবাই নিরপাদে গুহা থেকে বের হয়ে আসবেন।
মঙ্গলবার সকাল ১০ টা ৮ মিনিটে তৃতীয় দিনের মত অভিযানে যান উদ্ধারকর্মীরা। ১৯ সদস্যের একটি ডুবুরি দল এই উদ্ধার কার্যক্রমে সরাসরি অংশ নেন। অভিযানের প্রধান সমন্বয়ক ও চিয়াং রাই প্রদেশের গভর্নর নারংসাক অসোট্টানাকর্ন এসব জানান।
আগের দুই দিনের মত আজকেও উদ্ধার হওয়াদের গুহার প্রবেশমুখ থেকে অ্যাম্বুলেন্সে করে পাশের ফিল্ড হাসপাতালে নিয়ে প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন চিকিৎসকরা। তারপর তাকে হেলিকপ্টারে করে চিয়াং রাই শহরের একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হবে। আগের দুই দিনে উদ্ধার হওয়া ৮ কিশোরও ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।
প্রসঙ্গত, ২৩ জুন বেড়াতে গিয়ে উত্তরাঞ্চলীয় চিয়াং রাই এলাকার থাম লুয়াং নং নন গুহায় আটকা পড়ে ওয়াইল্ড বোয়ার ফুটবল দলের কিশোর ফুটবলাররা। তাদের বয়স ১১ থেকে ১৬ বছরের মধ্যে। ১০ কিলোমিটার দীর্ঘ গুহাটি থাইল্যান্ডের অন্যতম দীর্ঘ গুহা। এখানে যাত্রাপথের দিক খুঁজে পাওয়া কঠিন। ভারী বর্ষণ আর কাদায় থাম লুয়াংয়ের প্রবেশ মুখ বন্ধ হয়ে গেলে তারা আটকা পড়ে। নিখোঁজের পর গুহার পাশে তাদের সাইকেল এবং খেলার সামগ্রী পড়ে থাকতে দেখা যায়। নিখোঁজের নয় দিন পর সোমবার (২ জুলাই) দুইজন বৃটিশ ডুবুরি চিয়াং রাই এলাকার থাম লুয়াং নং নন গুহায় তাদের জীবিত সন্ধান পান।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?