বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

বৃহস্পতিবার, ১২ এপ্রিল, ২০১৮, ০৮:৪০:৫০

আলজেরিয়ায় সামরিক বিমান বিধ্বস্তঃ নিহতের সংখ্যা বেড়ে-২৫৭

আলজেরিয়ায় সামরিক বিমান বিধ্বস্তঃ নিহতের সংখ্যা বেড়ে-২৫৭

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ-আলজেরিয়ায় একটি সামরিক বিমান বিধ্বস্ত হয়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৫৭ জনে দাঁড়িয়েছে। গতকাল বুধবার দেশটির রাজধানী আলজিয়ার্সের কাছে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। বিমানে আরোহীদের বেশিরভাগই সেনা কর্মকর্তা ও তার পরিবারের সদস্য। খবর সিএনএন ও ডেইলি মেইলের
বিমানটির আলজিয়ার্স এবং ব্লিদা শহরের মাঝের বোউফেরিক বিমানবন্দরে নামার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই বিপর্যয় ঘটে। এতে ২৫৭ জন আরোহী নিহত হয়েছে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।
আলজেরিয়ার টেলিভিশনে সম্প্রচার হওয়া ছবিতে দেখা যায়, দুর্ঘটনাস্থল প্রবল ধোঁয়ায় ঢেকে গেছে। গোটা এলাকা সামরিক বাহিনী ঘিরে রেখেছে। মনে করা হচ্ছে বিমানে যারা ছিল তাদের কেউই হয়তো বেঁচে নেই। সেনা কর্মকর্তা ও তাদের পরিবারের সদস্য ছাড়া বিমানটিতে দশজন ক্রু ছিল।
কী কারণে বিমান দুর্ঘটনা ঘটেছে তা এখনো স্পষ্ট নয়। বিমানটির ভেঙে পড়া অংশবিশেষ একটি গাছে আটকে রয়েছে। ভেঙে পড়া বিমানটি সোভিয়েত আমলের নকশায় তৈরি ইলিউশিন২-৭৬ এর বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে। সেটি সেনাবাহিনীর পণ্য পরিবহণের জন্য ব্যবহৃত মাঝারি পাল্লার বিমান।
তবে মার্কিন ন্যাটো বাহিনীর বিশেষ প্রিয় এই বিমান। এর সাংকেতিক নাম ‘ক্যানডিড’। সেনাবাহিনীর জন্য মাঝারি মানের ব্যাটেল ট্যাংক, প্যারাট্রুপার ও মালপত্র পরিবহণের জন্য এই বিমান বিশেষ উপযোগী। এর আগে ২০১৪ সালে বিমান দুর্ঘটনায় আলজেরিয়ায় শতাধিক মানুষ নিহত হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

  নওয়াজের সঙ্গে দেখা করতে না পেরে সিনেটর ও আইনজীবীদের বিক্ষোভ

  ওয়াজ-মরিয়মের জামিন আবেদনের শুনানি স্থগিত

  ভারতে মাদার তেরেসার সকল ‘চাইল্ডকেয়ার হোম’ পরিদর্শনের নির্দেশ সরকারের

  জেলে দ্বিতীয় শ্রেণির বন্দীর মর্যাদা পাচ্ছেন নওয়াজ শরিফ

  কোচসহ ১২ কিশোর ফুটবলারকে নিরাপদে উদ্ধার

  থাই গুহা থেকে বের হচ্ছে আটকে থাকা বাকী কিশোররা

  চূড়ান্তে ধাপে অভিযান শুরু, ভেতরে এখনো ৪ ফুটবলার ও কোচ

  জাপানে বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে-১২৬

  দ্বিতীয় দিনের অভিযান শেষ, থাই ‍গুহা থেকে আরও চারজন উদ্ধার

  থাই ‍গুহা থেকে ষষ্ঠ কিশোর উদ্ধার

  ভয়ঙ্কর রূপ নিয়েছে জাপানের বন্যা, মৃতের সংখ্যা বেড়ে শতাধিক

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?