বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

রবিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৭, ০২:০১:৫৬

ভয়াবহ হয়ে উঠছে ‘টমাস ফায়ার’, দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়া জুড়ে আতঙ্ক

ভয়াবহ হয়ে উঠছে ‘টমাস ফায়ার’, দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়া জুড়ে আতঙ্ক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ-ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ার বিস্তীর্ণ এলাকা। বাড়ি ছাড়তে বাধ্য হচ্ছেন স্থানীয়রা। জানা গেছে, সোমবার থেকে এখন পর্যন্ত ভেঞ্চুরা সংলগ্ন ১.১৫ লক্ষ একর জঙ্গল গ্রাস করেছে ‘টমাস ফায়ার’।
এ ব্যাপারে দমকলকর্মীরা জানান, সান্টা আনা থেকে আসা শুষ্ক ও শক্তিশালী হাওয়ার জেরে ক্রমশ বেড়েই চলেছে তার তীব্রতা। এ দিন ভোরের দিকে ফের বাড়তে থাকে আগুন। তখন বাড়ি থেকে পালাতে গিয়ে গাড়িতে পিষ্ট হন এক ব্যক্তি। আহত হয়েছেন এক দমকলকর্মীও। দাবানল এখনও নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। আগুন দ্রুত ছড়াচ্ছে বলে জানান এক দমকল কর্মী।
এদিকে, ভেঞ্চুরা ও সান্টা পাওলা কাউন্টিতে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। এলাকার ৭৫০০ বাড়ি খালি করে দিতে বলা হয়েছে।
এখন পর্যন্ত ২৭ হাজার মানুষকে নিরাপদে অন্যত্র পাঠানো গেছে বলে জানা গেছে।
আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, রবিবার পর্যন্ত নিজের গতি বাড়াতে থাকবে এই শুষ্ক হাওয়া। ফলে আগামী ক’দিনে পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
উল্লেখ্য, দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ায় এখন কাবু করে রেখেছে মোট ছয়টি দাবানল। টমাস ফায়ার, ক্রিক ফায়ার, রাই ফায়ার, লাইল্যাক ফায়ার, স্কারবল ফায়ার ও লিবার্টি ফায়ার।  জানা গেছে, এদের মধ্যে সব চেয়ে বড় ‘টমাস ফায়ার’।

এই বিভাগের আরও খবর

  রোহিঙ্গাদের জন্য সহায়তা দ্বিগুণ করলো যুক্তরাষ্ট্র

  ভারতে গণেশ বিসর্জনে ১৮ জনের প্রাণহানি

  মিয়ানমারের সার্বভৌমত্বে হস্তক্ষেপের অধিকার জাতিসংঘের নেই-সেনা প্রধান

  আহভাজ হামলার প্রতিশোধ নেওয়ার প্রতিজ্ঞা রেভুলিউশনারি গার্ডের

  পাকিস্তানে সন্ত্রাস বিরোধী অভিযানে সৈন্যসহ নিহত-১৬

  নাইজেরিয়ায় কলেরা মহামারীতে ৯৭ জনের মৃত্যু

  ইরানে সামরিক কুচকাওয়াজে হামলায় নিহত-২৪

  তানজানিয়ায় ফেরি ডুবিতে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে-১৩৬

  ভারতের উত্তর প্রদেশে অজ্ঞাত জ্বরে’ উত্তর প্রদেশে দেড় মাসে ৮৪ মৃত্যু

  রোহিঙ্গাদের সংকটে বিশ্ব বসে থাকবে না-সু চিকে ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  ফিলিপাইনে ভূমিধসে নিহত ৩, মাটির নিচে চাপা ১০ বাড়ি

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে চালু হওয়া ‘না’ ভোট একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ সংশোধনের উদ্যোগের মধ্যে পুনঃপ্রবর্তনের প্রস্তাব করেছে নাগরিক সংগঠন সুজন। আপনি কি তা সমর্থন করেন?