সোমবার, ২৩ এপ্রিল ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

শনিবার, ০৪ নভেম্বর, ২০১৭, ০৮:২৯:৩৯

রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া মিয়ানমারকেই শুরু করতে হবে-যুক্তরাষ্ট্র

রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া মিয়ানমারকেই শুরু করতে হবে-যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ-মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের জনসংখ্যা, শরণার্থী ও অভিবাসন বিষয়ক ভারপ্রাপ্ত সহকারী মন্ত্রী সাইমন হেনশ বলেছেন, মিয়ানমারকেই রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু করতে হবে। এটাই সংকটের সর্বোত্তম সমাধান।
শনিবার (৪ নভেম্বর) রাজধানীর গুলশানে আমেরিকান ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। বাংলাদেশ সফররত এক প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে রয়েছেন ভারপ্রাপ্ত এই সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী। ঢাকার সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র হিথার নওয়ার্ট ও ঢাকায় দেশটির রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট উপস্থিত ছিলেন।
সাইমন হেনশ বলেন, রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে নেপিদোর ওপর চাপ অব্যাহত রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র। মিয়ানমার এ বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে আলোচনার উদ্যোগ নিচ্ছে। যা খুব গুরুত্বপূর্ণ। রাখাইনের এই সমস্যা একটি জটিল ও মারাত্মক পরিস্থিতি তৈরি করেছে। দুই মাসে ছয় লাখ মানুষ বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে। বাংলাদেশ এই মানুষগুলোকে আশ্রয় দিয়েছে।
তিনি বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনের নির্দেশনা অনুযায়ী রোহিঙ্গাদের পরিস্থিতি দেখতে আমরা এখানে এসেছি। সামগ্রিকভাবে রোহিঙ্গা পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনা করছে যুক্তরাষ্ট্র।
বাংলাদেশ সফর শেষে মার্কিন প্রতিনিধিদলটি একইভাবে মিয়ানমার সফর করবে। দেশটির কর্তৃপক্ষের কাছে তারা রাখাইনে শর্তহীনভাবে ত্রাণ সংস্থা ও সংবাদকর্মীদের প্রবেশের অনুমতি চাইবে। এছাড়া বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের সসম্মানে ও নিরাপদে রাখাইনে প্রত্যাবাসন-প্রক্রিয়া নিয়ে মিয়ানমারের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলবেন তারা।
উল্লেখ্য, গত ২৪ আগস্ট রাতে মিয়ানমারের রাখাইনে পুলিশ ফাঁড়িতে অজ্ঞাত বিদ্রোহীদের হামলার ঘটনায় মিয়ানমার সরকার সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের দায়ী করে। তাদের ওপর নির্যাতন ও গণহত্যা চালাতে থাকে। পরে জীবন বাঁচাতে ৬ লাখের বেশি রোহিঙ্গা সেখান থেকে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়।

এই বিভাগের আরও খবর

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

সাবেক সিইসি কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ বলেছেন, নির্বাচনে ‘লেভেল প্লেইং ফিল্ড’ প্লেটে তুলে দেওয়া যায় না; রাজনৈতিক দলগুলো মাঠে নামলে খেলতে খেলতেই সবার জন্য সমান সুযোগ তৈরি হয়। আপনি কি তা মনে করেন?