রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ০৯ অক্টোবর, ২০১৭, ০৭:১০:৩৩

নয়াদিল্লীতে দীপাবলির সময়ে আতসবাজি ফোটানো নিষিদ্ধ

নয়াদিল্লীতে দীপাবলির সময়ে আতসবাজি ফোটানো নিষিদ্ধ

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ-ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লীতে হিন্দুদের সবচেয়ে জমকালো উৎসব দীপাবলিকে সামনে রেখে আতসবাজি ফোটানো নিষিদ্ধ করেছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। আদালত বলেছে, সবচেয়ে দূষিত বায়ুর শহরগুলো মধ্যে অন্যতম দিল্লীর এতে বায়ুর মানের উন্নতি হয় কী না সেটা পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।
নভেম্বরের ১ তারিখ পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে, ১৮ অক্টোবর দীপাবলি অনুষ্ঠিত হবে। উত্তর ভারতে হিন্দুদের সবচেয়ে বড় উৎসব দীপাবলি, পটকা ফুটিয়ে দ্বীপ জ্বেলে মন্দের উপর ভালোর বিজয় উদযাপন করা হয়। ২০১৬ সালের নভেম্বরে দিল্লিতে পটকা ফোটানোর উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয় যা নভেম্বরে প্রত্যাহার করা হয়। সেই সময় সুপ্রিম কোর্ট বলেছিল, পূর্ণাঙ্গ নিষেধাজ্ঞা হবে অনেক বড় সেই নিষেধাজ্ঞা পুনরায় বহাল করার জন্য বেশ কয়েকটি পিটিশনের প্রেক্ষিতে সু্প্রিম কোর্ট এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করল।
ভারতের কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো এই নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল হোক সেটা চেয়েছিল। তবে ইতিমধ্যে যারা আতসবাজি কিনে ফেলেছেন তারা সেটি ফোটাতে পারবেন। গত বছর দীপাবলির পরে দিল্লির বায়ু দূষণের মাত্রা বিপর্যয় পর্যায়ে চলে যায়। ধোয়ার কারণে তিনদিন স্কুল বন্ধ রাখতে হয়। বিবিসি।

এই বিভাগের আরও খবর

  ইরানে সামরিক কুচকাওয়াজে হামলায় নিহত-২৪

  তানজানিয়ায় ফেরি ডুবিতে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে-১৩৬

  ভারতের উত্তর প্রদেশে অজ্ঞাত জ্বরে’ উত্তর প্রদেশে দেড় মাসে ৮৪ মৃত্যু

  রোহিঙ্গাদের সংকটে বিশ্ব বসে থাকবে না-সু চিকে ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  ফিলিপাইনে ভূমিধসে নিহত ৩, মাটির নিচে চাপা ১০ বাড়ি

  কারাগার থেকে মুক্ত হলেন নওয়াজ শরিফ

  রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আলোচনা করতে মিয়ানমারে ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  কারাদণ্ডাদেশ স্থগিত, নওয়াজকে মুক্তির নির্দেশ

  রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আইসিসিতে তদন্ত শুরু

  ঘূর্ণিঝড় মাংখুতের আঘাতে চীনে বাস্তুচ্যুত ৩০ লাখ মানুষ

  সেনাবাহিনীর পক্ষে সাফাই গাওয়া বন্ধ করা উচিত ছিল সু চির

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে চালু হওয়া ‘না’ ভোট একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ সংশোধনের উদ্যোগের মধ্যে পুনঃপ্রবর্তনের প্রস্তাব করেছে নাগরিক সংগঠন সুজন। আপনি কি তা সমর্থন করেন?