শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

মঙ্গলবার, ১১ জুলাই, ২০১৭, ০৩:৪০:০৪

গ্রহাণুর ধাক্কায় বিলুপ্ত হতে পারে পৃথিবীর মানব সভ্যতা!

গ্রহাণুর ধাক্কায় বিলুপ্ত হতে পারে পৃথিবীর মানব সভ্যতা!

ডেস্ক রির্পোটঃ-প্রকাশ্যে এল সমুদ্রের তলায় থাকা বিভিন্ন প্রজাতির বিলুপ্তির কারণ। পৃথিবীর ইতিহাসের পাতায় চোখ রাখলে দেখা যাবে পৃথিবীর সঙ্গে প্রায়ই ধাক্কা লাগে মহাকাশে থাকা বিভিন্ন পাথরের।
প্রায় ৪.৫বিলিয়ন বছর ধরেই এহেন একটি ঘটনায় আজ বিলুপ্তির পথে সমুদ্রের তলায় থাকা নানা সামুদ্রিক প্রজাতি।
গবেষকেরা জানিয়েছেন, প্রায় বেশিরভাগ গ্রহানুগুলির আয়তন প্রায় ১কিলোমিটার। কিন্তু বর্তমানে এই গ্রহাণুগুলির আয়তন মাত্র ১৪০মিটার। এগুলি পৃথিবীর জন্য বিপর্যয় নেমে আসতে পারে। ১০০মিলিয়ন বছরে এই ঘটনাটি একবার হয়। কিন্তু পরবর্তীকালে এই ঘটনাটি ঘটলে ধ্বংস হয়ে যেতে পারে মানবসভ্যতা। সেই প্রভাব যেকোনও মুহূর্তে হতে পারে বলে জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা৷
বিশেষজ্ঞরা আরও জানিয়েছেন, এই ধরনের ঘটনার বিরুদ্ধে নিজেদেরকে প্রতিরক্ষা করার কোনও ব্যবস্থা নেই পৃথিবীতে। যার ফলে এই ধরনের ঘটনায় মৃত্যু অবশ্যম্ভাবী। তবে, এই বিষয়টিকে রোধ করতে গেলে রাজনীতিবিদ এবং স্পেস এজেন্সীর সহযোগিতা প্রয়োজন। কারণ এটি প্রতিরোধ করতে গেলে খরচ করতে হবে প্রায়৩০০ থেকে ৪০০মিলিয়ন ইউরো।

এই বিভাগের আরও খবর

  আগস্ট মাসে আসলে বঙ্গবন্ধু‘র খুনিরা বেপরোয়া হয়ে উঠে-কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

  ভগবান শ্রীকৃষ্ণের শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে রাঙ্গামাটি জেলা পুলিশের নিরাপত্তা বিষয়ক মতবিনিময় সভা

  বান্দরবানে বর্ণাঢ্য আয়োজনে সনাতন ধর্মালম্বীদের শ্রী শ্রী জন্মাষ্টমী উৎসবের উদ্বোধন

  চার শর্ত পূরণ হলে মিয়ানমারে ফিরবে রোহিঙ্গারা

  অবৈধ সরকারের পতন ঘটিয়ে বেগম জিয়াকে কারামুক্ত করা হবে-ওয়াদুদ ভূইয়া

  কেপিএমে গ্যাসের পূর্ণ সংযোগ দিয়ে কাগজ উৎপাদন সচল করতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

  খাগড়াছড়ি আধুনিক জেলা সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে সনাক- এর মতবিনিময় সভা

  উন্নয়নের সুফল তৃণমূল পর্যায়ে পৌছে দিতে নিরাপত্তার প্রয়োজন-জোনায়েত কাউসার

  পার্বত্য চট্টগ্রামকে নিয়ে দেশ ও দেশের বাইরে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে-সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার

  ২১ আগস্ট নৃশংস গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে বান্দরবানে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ

  খাগড়াছড়িতে গ্রেনেট হামলাকারীদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল



 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন