সোমবার, ২৬ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

শুক্রবার, ০৯ আগস্ট, ২০১৯, ০২:৫২:২৮

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবসে রাঙ্গামাটিতে পাহাড়ি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের শোভাযাত্রা ও সমাবেশ

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবসে রাঙ্গামাটিতে পাহাড়ি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের শোভাযাত্রা ও সমাবেশ

ইশতিয়াক কামাল মুন্না, রাঙ্গামাটিঃ-আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস উপলক্ষে রাঙ্গামাটিতে পাহাড়ি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির মানুষের সমাবেশ ও বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শুক্রবার (৯ আগষ্ট) সকালে রাঙ্গামাটি পৌরসভা প্রাঙ্গণে সমাবেশ শেষে বের করা হয় বর্নাঢ্য শোভাযাত্রা। এতে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির পাহাড়ি নারী-পুরুষরা ঐতিহ্যগত পোশাক, ব্যানার ও প্লেকার্ড হাতে নিয়ে বিভিন্ন আদিবাসী সংগঠনের নেতাকর্মীরা পরে মিছিল ও শ্লোগান নিয়ে র‌্যালিতে অংশ নেন। শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে শিল্পকলা একাডেমিতে গিয়ে শোভাযাত্রা শেষ হয়।
এর আগে সকালে আদিবাসী ফোরাম পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চল শাখার উদ্যোগে রাঙ্গামাটি পৌরসভা প্রাঙ্গণে আয়োজিত সমাবেশ ও বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা পায়রা উড়িয়ে উদ্বোধন করেন রাঙ্গামাটির সাবেক সংসদ সদস্য ঊষাতন তালুকদার।
আদিবাসী ফোরামের সভাপতি প্রকৃতি রঞ্জন চাকমার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক কমিটির সভাপতি গৌতম দেওয়ান, রাঙ্গামাটি জেলা আইনজীবি সমিতির সভাপতি এডভোকেট দীন নাথ তংচঙ্গ্যা, সিএইচটি হেডম্যান নেটওর্য়াকের সাধারণ সম্পাদক শান্তি বিজয় চাকমা, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্ঠান ঐক্য পরিষদের রাঙ্গামাটি জেলা সভাপতি ডাঃ শিবু প্রসাদ মিশ্র, নারী নেত্রী নেলী প্রু মার্মা এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন ।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, আদিবাসীদের বঞ্চনার মাত্রা মাতৃভাষার বিপন্নতা থেকে শুরু করে ভূমি অধিকার এমনকি বেঁচে থাকার অধিকার পর্যন্ত বিস্তৃত হয়েছে। স্বাধীনতার ৪৮ বছর পেরিয়ে গেলেও দেশের ৩০ লক্ষাধিক আদিবাসী জনগণ মানবাধিকার ও মৌলিক স্বাধীনতা থেকে বঞ্চিত রয়েছে। সম্পূর্ণ এক অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে আদিবাসী ভাষা, সংস্কৃতি ও জীবনধারাকে ঠেলে দেওয়া হয়েছে। আদিবাসীদের মানবিক মর্যাদা প্রতিষ্ঠা তো দূরের কথা এখন আত্ম-পরিচয়, মাতৃভাষা ও নিজস্ব সংস্কৃতি নিয়ে অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখাই কঠিন হয়ে পড়েছে। তার পরও আদিবাসী জনগণ অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য সংগ্রাম অব্যাহত রেখেছে।
বক্তারা আরো বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির ২১ বছর অতিবাহিত হলেও চুক্তির মৌলিক বিষয়সমূহ বাস্তবায়িত হয়নি। পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া শুধু ধীরগতি নয়, অনেকটা থমকে আছে আর পাহাড়ের মানুষ সম্পূর্ণ অনিশ্চয়তা ও নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে দুর্বিসহ জীবনযাপনে বাধ্য হচ্ছে। সমতল অঞ্চলের আদিবাসীদের অবস্থা আরও সংকটাপন্ন। সরকার বার বার সমতলের জন্য পৃথক ভূমি কমিশন গঠনের প্রতিশ্রুতি দিলেও বাস্তবায়ন করছে না। এই বিষয়ে ন্যুনতম পদক্ষেপ গ্রহণের কোনো লক্ষণই দেখা যাচ্ছে না।
তাই বক্তারা পাহাড়িদের আদিবাসী পরিচয়ে সংবিধানিক স্বীকৃতির দাবী জানিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়নসহ তাদের মৌলিক অধিকারগুলো মেনে নিতে সরকারে প্রতি আহবান জানান।

এই বিভাগের আরও খবর

  পাহাড়ে ম্যালেরিয়া রোগে অনেকেই মারা গেছে, এই রোগকে অবহেলা করলে চলবে না-অংসুই প্রু চৌধুরী

  পার্বত্য এলাকার সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা আগের চেয়ে অনেকটাই উন্নত হয়েছে- পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর

  জাতীয় শোক দিবসে জাতির সাথে বিশ্বাস ঘাতকতা করেছে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ

  পৌরসভাকে আরো এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে পৌর কর্তৃপক্ষ নিষ্ঠার সাথে কাজ করে যাচ্ছে-মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী

  অপরাধ দমনে সবসময় সতর্ক থাকতে হবে-অধ্যাপক মোঃ শফিউল্লাহ

  লামায় “উপজেলা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ক্লাবের” শুভ উদ্বোধন

  সাংবাদিক কামালের হত্যান্ডের ১ যুগ পার হলো

  বর্তমান সরকার পাহাড়ে যেমন শান্তি প্রতিষ্টিত করেছে তেমনী শিক্ষা ও উন্নয়নেও এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে-পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর

  কাপ্তাইয়ে শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে সনাতনী সম্প্রদায়ের সাথে সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদারের শুভেচ্ছা বিনিময়

  লামায় উন্নয়ন প্রকল্প পরিদর্শনে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক

  স্বেচ্ছাসেবক দলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে রাঙ্গামাটিতে বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা



 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন