সোমবার, ২৬ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

বুধবার, ৩১ জুলাই, ২০১৯, ০৯:০৭:৪০

ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়েছে সারাদেশে

ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়েছে সারাদেশে

ডেস্ক রিপোর্টঃ-রাজধানীসহ সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে অ্যাডিস মশাবাহিত ডেঙ্গু জ্বর। দেশের ৬৪টি জেলার মধ্যে ৬০টিতেই ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ১ হাজার ৩৩৫ জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকার বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ভর্তি হয়েছেন ৯৭৪ জন। নতুনদের নিয়ে এ বছর ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ৩৬৯ জন, যার মধ্যে আট জনের মৃত্যু হয়েছে বলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।
তবে অনুসন্ধানে এ বছর ডেঙ্গুতে ৫০ জনের মৃত্যুর তথ্য পাওয়া গেছে। এর মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উপসচিবের স্ত্রীসহ ৬ জন মারা গেছেন। সারাদেশে ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলায় স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করেছে সরকার। সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ঢাকা না ছাড়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।
এদিকে আমদানিকারকদের একটি সিন্ডিকেট কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে ডেঙ্গু টেস্টের রি-এজেন্টের মূল্য বৃদ্ধি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আবার কিছু জেলায় প্রশাসনের একশ্রেণির কর্মকর্তা বেসরকারি হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীদের ফ্রি রক্ত পরীক্ষার জন্য চাপ সৃষ্টি করছেন। যদিও সরকার বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ডেঙ্গুর পরীক্ষা ফি ৫০০ টাকা নির্ধারণ করেছে।
এবার বর্ষার শুরুতেই ঢাকায় মশাবাহিত ডেঙ্গু জ্বরের প্রাদুর্ভাব ঘটে। এখন বিভিন্ন জেলা থেকে আক্রান্তের খবর আসছে। গতকাল দেশের ৬০টি জেলায় ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হওয়ার কথা জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, যেখানে আগের দিনও ৫০ জেলায় ডেঙ্গু রোগীর তথ্য পাওয়ার কথা জানিয়েছিল তারা। বিভিন্ন জেলায় আক্রান্তদের অনেকে ঢাকা থেকে রোগ নিয়ে গেছে। ঢাকার বাইরে সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীর চিকিৎসা নিয়ে অনেক ক্ষেত্রে সমস্যা হচ্ছে। অনেক চিকিৎসক কিংবা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ডেঙ্গু রোগের চিকিৎসা ও ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে অনভিজ্ঞ, এমন তথ্য স্থানীয় প্রতিনিধি সূত্রে জানা যায়। তবে রাজধানীর বাইরেও অ্যাডিস মশার বিচরণ রয়েছে বলে স্থানীয় পর্যায়ে আক্রান্তের আশঙ্কাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না বিশেষজ্ঞরা। তাছাড়া ঢাকা থেকে এই রোগ নিয়ে যাওয়ায় সারাদেশেই তা ছড়িয়ে পড়ছে বলে মনে করছেন তারা। এদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন মশক নিধনে নিজেদের ব্যর্থতার কথা স্বীকার করেছেন।
কোন হাসপাতালে কতজন রোগী: ডেঙ্গু নিয়ে নতুন করে যারা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে, তাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ২২১ জন ভর্তি হয়েছে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে, বর্তমানে এখানে চিকিৎসাধীন আছে ৬৭৯ জন ডেঙ্গু রোগী। এরপর মিটফোর্ড হাসপাতালে নতুন ভর্তি ১০৫ ও চিকিৎসাধীন ২৯৯ জন, ঢাকা শিশু হাসপাতালে নতুন ভর্তি ৪৮ ও চিকিত্সাধীন ১২১ জন, শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নতুন ভর্তি ৬১ ও চিকিৎসাধীন ২৬৬ জন, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট হাসপাতালে নতুন ভর্তি ৪২ ও চিকিত্সাধীন ২১৬ জন, বারডেম হাসপাতালে নতুন ভর্তি ১৭ ও চিকিৎসাধীন ৫২ জন, বিএসএমএমইউতে নতুন ভর্তি ২৬ এবং চিকিৎসাধীন ৯৬ জন, পুলিশ হাসপাতালে নতুন ভর্তি ৩৩ এবং চিকিৎসাধীন ১৩২ জন, মুগদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নতুন ভর্তি ৬৩ এবং চিকিৎসাধীন ২৫৩ জন, বিজিবি হাসপাতালে নতুন ভর্তি দুই জন এবং চিকিৎসাধীন ৩০ জন, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নতুন ভর্তি ৯০ এবং চিকিৎসাধীন আছে ২৪৭ জন।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোলরুমের সহকারী পরিচালক ডা. আয়শা আক্তার সারাদেশের সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে গতকালের ডেঙ্গু রোগীর তথ্য তুলে ধরেন। ঢাকা শহরের বাইরে ঢাকা বিভাগের জেলাগুলোতেই সবচেয়ে বেশিসংখ্যক ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে। আমাদের বিভাগীয় অফিস, জেলা প্রতিনিধি ও উপজেলা সংবাদদাতাদের পাঠানো তথ্য অনুযায়ী, খুলনা বিভাগে নতুন ডেঙ্গু রোগী ৫৬ এবং মোট চিকিৎসাধীন ১৫১ জন, রাজশাহী বিভাগে নতুন ৫৬ জন এবং মোট চিকিৎসাধীন ১৯৮ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে নতুন ৫৫ জন এবং মোট চিকিৎসাধীন ১০৪ জন, সিলেট বিভাগে নতুন ৫৫ এবং মোট চিকিৎসাধীন ৭০ জন, রংপুর বিভাগে নতুন রোগী ২০ এবং মোট চিকিৎসাধীন ৮৩ জন, ময়মনসিংহ বিভাগে নতুন রোগী ৯ জন এবং মোট চিকিৎসাধীন ২৫ জন, বরিশাল বিভাগে নতুন শনাক্ত ছয় জন এবং হাসপাতালে মোট ভর্তি ২৫ জন।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তালিকা অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা জেলায় ১৫৯ জন, গাজীপুর তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৯৪ জন, গোপালগঞ্জে ৫ জন, মাদারীপুরে ১০ জন, মানিকগঞ্জে ৩২ জন, নরসিংদীতে ২১ জন, রাজবাড়ীতে ২৭ জন, শরীয়তপুরে ৯ জন, টাঙ্গাইলে ৩৭ জন, মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ১৮ জন, কিশোরগঞ্জে ৮৪ জন, নারায়ণগঞ্জে ১৯ জন, ফরিদপুরে ২ জন, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৬৩ জন, চট্টগ্রাম জেলায় ৮০ জন, ফেনীতে ৭০ জন, কুমিল্লায় ৫১ জন, চাঁদপুর সদর হাসপাতালে ৮৮ জন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে ২০ জন, লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ২২ জন, নোয়াখালীতে ৩০ জন, কক্সবাজারে ১৩ জন, খাগড়াছড়িতে ৫ জন, রাঙ্গামাটিতে ৩ জন, বান্দরবানে ১ জন, খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৪৬ জন, খুলনায় ৮২ জন, কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ৫৮ জন, মাগুরায় ৩ জন, নড়াইলে ২ জন, যশোরে ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে ৭১ জন, ঝিনাইদহ ২৫০ শয্যার সদর হাসপাতালে ২৫ জন, বাগেরহাটে ৮ জন, সাতক্ষীরায় ১৭ জন, চুয়াডাঙ্গায় ছয় জন, মেহেরপুরে ১ জন, রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৬২ জন, বগুড়ায় ৯২ জন, পাবনায় ৪৭ জন, সিরাজগঞ্জে ১৯ জন, নওগাঁয় তিন জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১১ জন, নাটোরে দুই জন, রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৫৬ জন, রংপুরে ছয় জন, লালমনিরহাটে দুই জন, কুড়িগ্রামে পাঁচ জন, গাইবান্ধায় চার জন, নীলফামারীতে পাঁচ জন, দিনাজপুরে ১৭ জন, পঞ্চগড়ে ১ জন, ঠাকুরগাঁওয়ে ৬ জন, বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৪২ জন, পটুয়াখালীতে ১২ জন, ভোলায় ৬ জন, পিরোজপুরে ২ জন, ঝালকাঠিতে ১ জন, সিলেট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৪৫ জন, সিলেটে ৩৫ জন, সুনামগঞ্জে ৪ জন, হবিগঞ্জে ৭ জন, মৌলভীবাজারে ১৬ জন, জামালপুরে ২৭ জন ও শেরপুরে ১১ জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছে।
ইতিপূর্বে দেশে বিভিন্ন সময় ডেঙ্গু রোগ দেখা গেলেও এবারের মতো ভয়াবহ ছিল না। এবার যেমন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে, তেমনি মৃত্যুর সংখ্যাও বাড়ছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এবার ডেঙ্গু জটিল অবস্থার দিকে এগিয়েছে। ডেঙ্গু এমন পরিস্থিতিতে গেলে ‘ডেঙ্গু শক’ হয়। ডেঙ্গু শকের উপসর্গগুলো হলো-চামড়া ভেদ করে রক্ত চলে এসে চামড়ার ওপর কালো দাগ পড়া, কালো পায়খানা হওয়া, অনেক সময় প্রস্রাবের সঙ্গে রক্ত ঝরে। রক্তের প্লাজমা লিকেজ হয়। এ বছর ডেঙ্গু আক্রান্তের লক্ষণ ও উপসর্গ পালটে আরো মারাত্মক হয়েছে। কারো জ্বর হলে দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যাওয়া, ডেঙ্গু ধরা পড়লে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া এবং এমনকি রোগ সারার পরেও সজাগ থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞ চিকিত্সকরা।
স্বাস্থ্য বিভাগে ছুটি বাতিল :গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে ‘ডেঙ্গু প্রতিরোধ, বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলা ও গুজব প্রতিরোধ’ সংক্রান্ত একটি পর্যালোচনা সভা শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) শেখ মুজিবুর রহমান সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘ঈদের ছুটি তো একটা ধর্মীয় অনুষ্ঠান। তারপরও আমরা ঈদের ছুটি সকল কর্মকর্তাকে ঢাকায় উপভোগ করার জন্য উৎসাহিত করছি এবং ছুটি না নেওয়ার জন্য নিরুত্সাহিত করেছি। কোনো কোনো ক্ষেত্রে ছুটি ক্যানসেল করা হয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগে যেসব কর্মকর্তা সংশ্লিষ্ট, তাদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া যে সকল চিকিৎসক বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কোর্সে আছেন, তাদের প্রশিক্ষণ বাতিল বা স্থগিত করে চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত করা হবে।’
ডেঙ্গু চিকিত্সার ফি নিয়ে কথা হয়েছে কি না-জানতে চাইলে মুজিবুর রহমান বলেন, ‘সাধারণ ডেঙ্গুর ইনভেস্টিগেশন যেটা হয় সেটা অনেক বেশি, দুই থেকে আড়াই হাজার টাকা। এটা কমিয়ে সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা এবং মোট ১ হাজার ৪০০ টাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে হবে।’
আরো ৬ জনের মৃত্যু : ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৪ জন এবং বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আরো দুই জন ডেঙ্গু-আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার রাত পৌনে ২টার দিকে হাসপাতালের মেডিসিন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের হেলথ ইকোনিকস ইউনিটের উপ-পরিচালক (উপসচিব) ড. নুরুল আমিনের স্ত্রী ফারজানা হোসেনের (৪৫) মৃত্যু হয়। সাউথ পয়েন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজের মিরপুর শাখার ভাইস প্রিন্সিপাল ফারজানা রাজধানীর নিউ ইস্কাটন এলাকায় থাকতেন। ঢাকা মেডিক্যালে মারা গেছেন পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কনকদিয়া গ্রামের মজিদ হাওলাদারের ছেলে লিটন হাওলাদার। ২৫ বছর বয়সি লিটন গত ২৭ জুলাই থেকে মেডিসিন বিভাগের ৬০১ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি ছিলেন। সোমবার থেকে তার মধ্যে শক-এর উপসর্গ দেখা দেয়। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে চিকিত্সকরা লিটনকে মৃত ঘোষণা করেন। ঢাকা মেডিক্যালে মারা যাওয়া আরেক জন হলেন উপেন্দ্র চন্দ্র মণ্ডল (৬০)। তার বাড়ি টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে। এছাড়া গতকাল রাতে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে রূপা আক্তার নামের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।
অন্যদিকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা যাওয়া দুজন হলেন-বাকেরগঞ্জ উপজেলার শ্যামপুর এলাকার নাসির খানের ছেলে আসলাম খান (২৪) ও পিরোজপুর জেলার কাউখালী উপজেলার গোসনতারা এলাকার আদম আলীর ছেলে সোহেল (১৮)। সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে আসলাম এবং রাত দেড়টার দিকে সোহেল হাসপাতালে ভর্তি হন। তারা দুজনই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ছিলেন এবং দুজনের অবস্থাই ছিল গুরুতর। তারা দুজনই ঢাকায় থাকেন। অসুস্থ হওয়ার পর গ্রামের বাড়িতে চলে যান।
ল্যাবএইড ও ইবনে সিনাকে জরিমানা : ডেঙ্গু টেস্টে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগে রাজধানীর ল্যাবএইড ও ইবনে সিনা হাসপাতালকে জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। ভুক্তভোগীদের অভিযোগে মঙ্গলবার শুনানি শেষে প্রতিষ্ঠান দুটিকে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া ইবনে সিনার চার জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। অধিদপ্তরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার জানান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ডেঙ্গুর চিকিত্সার জন্য বিভিন্ন টেস্টের ফি নির্ধারণ করে দিয়েছে। কিন্তু রাজধানীর বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল রোগীদের কাছ থেকে সরকার-নির্ধারিত ফির চেয়ে অতিরিক্ত টাকা আদায় করছে। বিভিন্ন হাসপাতালের বিরুদ্ধে গ্রাহক এ ধরনের ১৬টি অভিযোগ দিয়েছেন। তিনি বলেন, অভিযোগের শুনানি শেষে ল্যাবএইড হাসপাতালকে ৫০ হাজার টাকা ও ইবনে সিনা হাসপাতালকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এর আগে গত সোমবার ৫০০ টাকায় ডেঙ্গু টেস্ট ১ হাজার ২০০ টাকা রাখার অপরাধে পপুলার হাসপাতালকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করে ভোক্তা অধিদপ্তর।
ডেঙ্গু তদারকিতে ‘মিনিস্টার মনিটরিং সেল’ : ডেঙ্গু রোগের চিকিত্সা কার্যক্রম তদারকিতে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক তার নিজের দপ্তরে ‘মিনিস্টার মনিটরিং সেল’ গঠন করেছেন। এই সেল থেকে ডেঙ্গু রোগ-সংক্রান্ত জনভোগান্তি নিরসনে এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের চলমান কর্মকাণ্ড তদারকি করা হবে বলে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। এজন্য হটলাইন নম্বরগুলো হলো : ০১৩১৪-৭৬৬০৬৯/০১৩১৪-৭৬৬০৭০, ০২-৪৭১২০৫৫৬/০২-৪৭১২০৫৫৭।

এই বিভাগের আরও খবর

  পাহাড়ে ম্যালেরিয়া রোগে অনেকেই মারা গেছে, এই রোগকে অবহেলা করলে চলবে না-অংসুই প্রু চৌধুরী

  পার্বত্য এলাকার সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা আগের চেয়ে অনেকটাই উন্নত হয়েছে- পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর

  জাতীয় শোক দিবসে জাতির সাথে বিশ্বাস ঘাতকতা করেছে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ

  পৌরসভাকে আরো এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে পৌর কর্তৃপক্ষ নিষ্ঠার সাথে কাজ করে যাচ্ছে-মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী

  অপরাধ দমনে সবসময় সতর্ক থাকতে হবে-অধ্যাপক মোঃ শফিউল্লাহ

  লামায় “উপজেলা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ক্লাবের” শুভ উদ্বোধন

  সাংবাদিক কামালের হত্যান্ডের ১ যুগ পার হলো

  বর্তমান সরকার পাহাড়ে যেমন শান্তি প্রতিষ্টিত করেছে তেমনী শিক্ষা ও উন্নয়নেও এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে-পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর

  কাপ্তাইয়ে শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে সনাতনী সম্প্রদায়ের সাথে সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদারের শুভেচ্ছা বিনিময়

  লামায় উন্নয়ন প্রকল্প পরিদর্শনে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক

  স্বেচ্ছাসেবক দলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে রাঙ্গামাটিতে বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা



 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন