রবিবার, ১৯ আগস্ট ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ০৯ জুলাই, ২০১৮, ০৯:২১:৫৯

বরকল উপজেলার বরুনাছড়ি স্বাস্থ্য ক্লিনিক জড়াজির্ন, ব্যাহত হচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা

বরকল উপজেলার বরুনাছড়ি স্বাস্থ্য ক্লিনিক জড়াজির্ন, ব্যাহত হচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা

রাঙ্গামাটিঃ-রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার প্রত্যন্ত দুর্গম অঞ্চল বরকল উপজেলার সুভলং ইউনিয়নের বরুনাছড়ি স্বাস্থ্য ক্লিনিক জড়াজির্নতার কারণে ব্যাহত হচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা। বরকল উপজেলার দুর্গম সুভলংইউপি ৯নং ওয়ার্ডের স্বাস্থ্য ক্লিনিকটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ১৯৮৪ সালে। প্রতিষ্ঠাকাল হতে এ স্বাস্থ্য ক্লিনিকটিতে সংস্কার বা মেরামত করা হয়নি। ফলে দিনের পর দিন জড়াজির্ন অবস্থায় পড়ে আছে এই স্বাস্থ্য ক্লিনিকটি। স্বাস্থ্যসেবার কোন পরিবেশ নেই বললেই চলে। এতে করে সেখানে বসবাসরত সাধারণ মানুষরা স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছে বছরে পর বছর।
এলাকাবাসীরা জানান, এ স্বাস্থ্য ক্লিনিকটি প্রথমত ভাংঙ্গাচুরা দ্বিতীয়ত্ব ডাক্তার কর্মচারি কিছুই থাকেনা। তাই স্বাস্থ্যসেবা থেকে প্রতিনিয়ত বঞ্চিত হচ্ছে সাধারণ মানুষ। অন্য দিকে ওষধপত্র কিছুই নেই ক্লিনিকটিতে। নামে মাত্র স্বাস্থ্যসেবা ক্লিনিক। কাজের বেলায় কিছু নেই বললেই চলে।
বরুনাছড়ির ভুক্তভোগি মোঃ শাহ জামাল ও মোঃ আজিজ জানান, ক্লিনিকটি প্রতিষ্টাকাল হতে এযাবৎ সংস্কার ও মেরামত করা হয়নি। অন্যদিকে এই ক্লিনিককে স্বাস্থ্যসেবা বলতে কিছুই নেই। তাই সাধারণ মানুষ ক্লিনিক থেকে মূখ ফিরিয়ে নিচ্ছে। এখানে সুচিকিৎসা ও ডাক্তার এবং ওষধ না পেয়ে অনেকে রাঙ্গামাটি প্রাইভেট ক্লিনিকগুলোতে ভীড় জমাচ্ছে। এব্যাপারে স্থানীয় প্রশাসন ও জন প্রতিনিধিদের কোন মাথা ব্যথা নেই বললেই চলে। ক্লিনিকটির আশপাশে রয়েছে একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এধরনের একটি গুরুত্বপূর্ণ এবং জনবহুল এলাকায় উন্নত মানের একটি স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রটির কার্যক্রম না থাকায় স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে বিপাকে পড়েছে এলাকার মানুষ।
তারা আরো বলেন, বরুনাছড়ি স্বাস্থ্যসেবা ক্লিনিকে একজন এমবিবিএস ডাক্তার,একজন মেডিকেল সহকারি,একজন ফামাসিষ্ট, একজন নার্স, একজন আয়া ও একজন নিরাপত্তা প্রহরী থাকার কথা। কিন্তু একজন মেডিকেল সহকারি আছেন তিনিও মনে চাইলে মাঝে মধ্যে আসেন। কিন্তু দেখা গেছে বেশীর ভাগ সময় বন্ধ থাকে ক্লিনিকটি।
বরুনাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান তরুণ জ্যোতি চাকমা বলেন, এখানে একটি সরকারি স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র রয়েছে। অনেকে অভিযোগ করেছেন স্বাস্থ্য ক্লিনিকটি জড়াজির্ন ও ভাঙ্গাচুরা। এছাড়াও স্বাস্থ্য ক্লিনিকটি সেবারমান শুন্যের কোটায়। তাই স্বাস্থ্য বিভাগের দৃষ্টি আকর্ষণ অচিরেই যেন গৃহীত ব্যবস্থা গ্রহন করা হউক। এখানে স্বাস্থ্যসেবা মারাত্মক ঝুঁকিতে রয়েছে। এখানে কঠিন কোন রোগ বালাই হলে রোগী তাড়াতাড়ি রাঙ্গামাটি নিয়ে যেতে হয়।
এ ব্যাপারে সিভিল সার্জন ডা. শহীদ তালুকদার বলেন, বিষয়টি যেহেতু আমি অবগত হলাম তাই সামনে বরাদ্দে তা সংস্কার বা মেরামত করে দেয়া হবে। আর ডাক্তারের বিষয়ে এ জেলাতে ডাক্তার স্বল্পতা রয়েছে যার কারনে ডাক্তার পেতে দেরী হবে। তবে বিষয়টি তদন্ত পূর্বক সিদ্ধান্ত নেয়া হবে এবং জরুরী ভিত্তিতে এর সুব্যবস্থাপনা করতে যা যা করনীয় তা করার চেষ্টা চালানো হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

  আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলে দেশের জনসাধারণ উপকৃত হয়-বীর বাহাদুর এমপি

  বঙ্গবন্ধুর স্বপরিবারে হত্যার পেছনে বিএনপি-জামায়াতসহ দেশী বিদেশী ষড়যন্ত্র যুক্ত ছিলো-কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

  খাগড়াছড়িতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত-৬, আহত-৩

  লামায় পৃথক ঘটনায় নিহত-২

  খাগড়াছড়িতে সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদঃ সোমবার অবরোধ

  বনরূপায় অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের নগদ অর্থ সহায়তা

  রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতাল ২৫০শষ্যায় উন্নতি, নতুন ১০তলা ভবনের অনুমোদন

  লামায় তুচ্ছ ঘটনায় ৩ শিশু ও নারী গুরুতর আহত

  রুমায় চার ইউনিয়নে চাল বিতরণ চলছে

  সেবার মানসিকতা নিয়ে কাজ করবে খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসন-মো.শহিদুল ইসলাম

  নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তন করতে পারলে জাতিগোষ্ঠী ও দেশের পরিবর্তন আনা সম্ভব-খুশিরায় ত্রিপুরা



 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন