বুধবার, ২১ নভেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

শুক্রবার, ০৯ নভেম্বর, ২০১৮, ০৭:৫৭:২০

সড়কে নিরাপদে গাড়ি চালাতে কাপ্তাইয়ে অটোরিক্সা চালকদের প্রশিক্ষণ

সড়কে নিরাপদে গাড়ি চালাতে কাপ্তাইয়ে অটোরিক্সা চালকদের প্রশিক্ষণ

কাজী মোশাররফ হোসেন, কাপ্তাইঃ-চট্টগ্রাম কাপ্তাই মহাসড়কসহ সকল আঞ্চলিক ও গ্রামীণ সড়কে নিরাপদে গাড়ি চালানোর জন্য ট্রাফিক বিভাগ রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার উদ্যোগে অটোরিক্সা চালক ও হেলপারদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। শুক্রবার (৯ নভেম্বর) সকালে কাপ্তাই নতুন বাজার অটোরিক্সা চালক সমিতি কার্যালয়ের সামনে এই প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।
এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, কাপ্তাই থানার ওসি সৈয়দ মোহাম্মদ নুর। কাপ্তাই ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল লতিফের সভাপতিত্বে কর্মশালার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন পুলিশ পরিদর্শক (শহর ও যানবাহন) তারক চন্দ্র পাল। কর্মশালায় কাপ্তাই নতুন বাজার অটোরিক্সা চালক সমিতির সকল চালক ও হেলপাররা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও মাইক্রোবাস এবং অন্যান্য গাড়ির চালকও কর্শশালায় উপস্থিত ছিলেন।
স্থানীয় মোঃ মনিরুল ইসলামের সঞ্চালনায় কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন কাপ্তাই পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক আতাউর রহমান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কাপ্তাই শাখার সভাপতি সাগর চক্রবর্তী, সাধারন সম্পাদক মহিউদ্দিন পাটোয়ারী, ছাত্রলীগের সভাপতি নূরউদ্দিন সুমন, নতুন বাজারের সেক্রেটারী সামসুল আলম নূর মুন্না, স্থানীয় ইউপি মেম্বার সজিবুর রহমান, সিএনজি চালক সমিতির সাধারন সম্পাদক মোঃ ইমান আলী, সমিতির সাবেক সভাপতি আবদুস সোবহান, গণমাধ্যম কর্মী কবির হোসেন ও কাজী মোশাররফ হোসেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওসি সৈয়দ মোহাম্মদ নূর বলেন, বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তে প্রতিদিন সড়ক দূর্ঘটনা ঘটছে। এতে বহুলোক হতাহত হচ্ছেন। একটি দুর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না উল্লেখ করে ওসি বলেন, বেশিরভাগ দূর্ঘটনা ঘটছে চালক ও হেলপারদের অসচেতনতার কারণে। অনেক অদক্ষ চালকও গাড়ী চালান। অনেকে গাড়ী চালানোর সময় কানে মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতেও গাড়ী চালান। এসব কারণে সড়কে অনেক দূর্ঘটনা ঘটে। তিনি বলেন একটি দূর্ঘটনায় যাত্রী যেমন মারা যাচ্ছেন তেমনি চালকও মারা যাচ্ছেন। গাড়ীটিও ক্ষতিগ্রস্থ হলো। এখন থেকে সকল চালক ট্রাফিক আইন মেনে গাড়ী চালাবেন বলে ওসি আশা প্রকাশ করেন।
সভাপতির বক্তব্যে ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল লতিফ বলেন, অনেক যাত্রী এবং পথচারীও সড়ক দুর্ঘটনার জন্য বহুলাংশে দায়ী। যাত্রীরা গাড়ী জোরে চালানোর জন্য চালকদের তাগিদ দেন। অনেক পথচারী কানে মোবাইল ফোন লাগিয়ে বেখায়েলে রাস্তায় চলাচল করেন। এর ফলেও সড়কে দূর্ঘটনা ঘটে থাকে। কোন কোন গাড়ীর চালক গাড়িটি কিভাবে এবং কোথায় পার্কিং করবেন সেটাও ভালোভাবে জানেন না। অথবা জেনেও যত্রতত্র গাড়ী পার্ক করেন। এরকম বিশৃঙ্খল অবস্থাও সড়ক দূর্ঘটনার কারণ হতে পারে।
পুলিশ পরিদর্শক তারক চন্দ্র পাল বলেন, সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে ট্রাফিক পুলিশ বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছে। এর অংশ হিসেবে ইতিমধ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ট্রাফিক আইন সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের সচেতন করতে প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়। তিনি বলেন ইতিমধ্যে আমরা মানুষকে সচেতন করতে বিপুল সংখ্যক ট্রাফিক আইন মানার ছাপানো সংকেত বিনামূল্যে বিতরণ করেছি। এই ট্রাফিক সংকেত গুলো চালক ও যাত্রীরা সবাই যদি মেনে চলেন তাহলে সড়ক দূর্ঘটনা শুন্যের কোঠায় নেমে আসবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।

এই বিভাগের আরও খবর

  বান্দরবানে পর্যটকবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দূর্ঘটনায় নিহত-১, আহত-৪৫

  না ফেরার দেশে রাঙ্গামাটি ক্যাবল অপারেটর সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোঃ শহিদুল ইসলাম শহীদ

  ২ মাস পর উদ্ধার হলো অপহৃত মিতালী চাকমা, আটক-৪

  রাঙ্গামাটি সাংবাদিক নাজিমের মায়ের ইন্তেকাল, বিভিন্ন মহলের শোক

  রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়িতে ইউপিডিএফ কর্মী আটক

  তারেক রাহমানের ৫৪তম জন্মদিন উপলক্ষে রাঙ্গমাটিতে ছাত্রদলের দোয়া মাহফিল

  লামায় ৩২ শিক্ষার্থীকে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণ করতে দেয়া হয়নি

  কর্মস্থলে নিরাপত্তা বিষয়ে কাপ্তাইয়ের সুইডেন পলিটেকনিকে ৫ দিনের বিশেষ প্রশিক্ষণ

  বর্তমান সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশের লক্ষ্য নিয়ে তরুণ প্রজন্মকে স্বপ্ন দেখিয়েছে-বীর বাহাদুর এমপি

  রাঙ্গামাটিতে দীপংকরের পক্ষে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেন আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ

  সরকার দেশে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীদের আত্ম-সামাজিক উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে-উদয় জয় চাকমা



 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন